Scores

কলঙ্কের ম্যাচে অজিদের শোচনীয় পরাজয়

অবশেষে ফলাফলের দেখা পেল আলোচিত কেপটাউন টেস্ট। আর সেই টেস্টে কোনো সুখস্মৃতি নিয়ে আর মাঠ ছাড়তে পারল না অজিরা। স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৩২২ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এই জয়ে চার ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে স্বাগতিকরা।

কলঙ্কের ম্যাচে অজিদের শোচনীয় পরাজয়

এই টেস্টের তৃতীয় দিন বল টেম্পারিং করে কেলেঙ্কারি বাঁধিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সেই বিতর্কে কিছুটা হলেও পানি ঢেলে দিতে পারত অজিদের জয়। তবে জয় দূরে থাক, শোচনীয় পরাজয় বরণ করে নেওয়া সবচেয়ে বেশিবারের বিশ্বকাপজয়ীরা গড়তে পারেনি ন্যূনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতাও।

Also Read - অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে ফিরতে রাজি ক্লার্ক!


টেস্টের চতুর্থ দিনে সকালে অস্ট্রেলিয়া ব্যাট করতে নামে ৪৩০ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য নিয়ে। বল টেম্পারিং করা বিতর্কিত ব্যাটসম্যান ক্যামেরুন বেনক্রফট ও সহ-অধিনায়কত্ব থেকে অব্যাহতি পাওয়া ডেভিড ওয়ার্নার মিলে দিচ্ছিলেন ভালো শুরুর ইঙ্গিতই। তবে বেনক্রফটের (২৬) বিদায়ের পর বিদায় নেন ওয়ার্নারও (৩২)। অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপ দুর্বল তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে এরপরই।

বিনা উইকেটে ৫৭ রান থেকে মুহূর্তেই ৪ উইকেটে ৫৯ রানের ভূতুড়ে ফিগার দাঁড়ায় অস্ট্রেলিয়ার স্কোরবোর্ডে। আর এই ধ্বস নামানোতে মূল অবদান মরনে মরকেলের। তার বোলিং আক্রমণ ক্রমশ ধারালো হতে থাকলে অস্ট্রেলিয়া অসহায় হার মেনে নেয় কেপটাউন টেস্টে। দলীয় মাত্র ১০৭ রানেই সফরকারী দলটি হারায় সবগুলো উইকেট। বিতর্কিত দুই ওপেনার ছাড়া কারও রানই ছুঁতে পারেনি দুই অঙ্কের ঘর। অধিনায়ক হিসেবে নিজের শেষ টেস্টে স্টিভ স্মিথ করেন মাত্র ৭ রান।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে মরকেল একাই পাঁচটি উইকেট শিকার করেন। এছাড়া কেশব মহারাজ দুইটি এবং কাগিসো রাবাদা একটি উইকেট শিকার করেন। ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন মরকেল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা ৩১১ ও ৩৭৩

অস্ট্রেলিয়া ২৫৫ ও ১০৭

ফল- দক্ষিণ আফ্রিকা ৩২২ রানে জয়ী।

আরও পড়ুনঃ আক্ষেপ নেই মিরাজের

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওয়েডের ‘মাথার খুলি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিল’ আর্চার!

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ

সমতায় শেষ হলো অ্যাশেজ, ট্রফি গেল অস্ট্রেলিয়ায়

অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ সমর্থকই আমাকে ঘৃণা করে: মার্শ

নেতৃত্বে ফিরবেন স্মিথ!