কুশল মেন্ডিসের ডাবল সেঞ্চুরির স্বপ্নভঙ্গ

মাত্র চার রানের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি করতে পারেননি শ্রীলঙ্কার ডানহাতি ব্যাটসম্যান কুশল মেন্ডিস। শতক হাঁকিয়ে ২৩তম জন্মদিনে যেমন বাড়িয়েছেন আনন্দ, তেমনি পুড়েছেন আফসোসে। ডাবল সেঞ্চুরির কাছে এসে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো নার্ভাস নাইন্টিজে ফিরে গেলেন কুশল মেন্ডিস।

শতকের পর মেন্ডিস
শতকের পর মেন্ডিস

১৯৬ রানের মাথায় স্পিনার তাইজুল ইসলামের বল উড়িয়ে মারতে যান কুশল মেন্ডিস। দুর্দান্ত এক ক্যাচ নিয়ে তাকে ডাবল সেঞ্চুরি করতে দেননি মুশফিকুর রহিম। চার রানের আক্ষেপ নিয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। ৩২৭ বলে ১৯৬ রানের ইনিংস খেলেন মেন্ডিস। তার ইনিংসে ছিল ২২ টি চার এবং ২ টি ছক্কা।

Advertisment

ওপেনিংয়ে নেমে এসেই হারান সঙ্গী দিমুথ করুনারাত্নেকে। এরপর হাল ধরেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে নিয়ে। তাদের ৩০৮ রানের জুটিতে ম্যাচে ফিরে আসে শ্রীলঙ্কা। এ জুটির স্থায়ীত্ব ছিল ৭৯ ওভার ২ বল। দুজন মিলে একের পর এক সেশন বাংলাদেশের বোলারদের হতাশায় পোড়াতে থাকেন।

তৃতীয় দিন প্রথম সেশনে নিজের শতক পূর্ণ করেন মেন্ডিস। ধীরে ধীরে এগিয়ে যেতে থাকেন দ্বিশতকের দিকে। ধনঞ্জয়া ১৭৩ রান করে ফিরে গেলেও টিকে ছিলেন কুশল মেন্ডিস। ১৯৬ রানের মাথায় গিয়ে ডাউন দ্যা উইকেটে এসে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে দ্বিশতক পূরণ করতে গিয়ে আউট হতে হয় তাকে।

এর আগেও ১৯০- এর ঘরে কাটা পড়েছিলেন কুশল মেন্ডিস। সেটাও বাংলাদেশের বিপক্ষে। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরে প্রথম টেস্টে গলেতে ১৯৪ রান করেছিলেন কুশল। মাত্র ছয় রানের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি করা হয়নি তার। ফিরে গিয়েছিলেন মেহেদি হাসান মিরাজের বলে। চট্টগ্রামে এসেছিলেন আরো কাছে। তবুও পার করতে পারলেন না ডাবল সেঞ্চুরির চৌকাঠ।

তৃতীয় দিনের খেলাশেষে চালকের আসনে রয়েছে সফরকারী শ্রীলঙ্কা। ৩ উইকেটের বিনিময়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ৫০৪। লিড থেকে মাত্র ১০ রান দূরে তারা। হাতে আছে সাত উইকেট। তৃতীয় দিন তারা হারিয়েছে মাত্র দুই উইকেট।


আরো পড়ুন ঃ স্বাগতিকদের চোখ রাঙাচ্ছে শ্রীলঙ্কা