‘কেন্দ্রীয় চুক্তি’ প্রকাশে বিলম্বের কারণ ব্যাখ্যা বিসিবির

বছরের ষষ্ঠ মাস শুরু হলেও এখনও ২০২১ সালের কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকা প্রকাশ করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। অবশেষে এই বিলম্বের কারণ জানালেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন।

Advertisment

জানুয়ারি মাস থেকে শুরু হয় প্রতিটি কেন্দ্রীয় চুক্তির মেয়াদ। তাই বছরের শুরুর দিকেই জানিয়ে দেওয়া হয় কেন্দ্রীয় চুক্তিতে কারা থাকছেন বা কত টাকা পারিশ্রমিক পাচ্ছেন। কিন্তু এ বছর কেন্দ্রীয় চুক্তি জানার অপেক্ষা ফুরাচ্ছেই না।

সুজন জানালেন, চুক্তির জন্য খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স বিচারের ক্ষেত্রে আমলে নেওয়া হচ্ছে সাম্প্রতিক সিরিজগুলো। গত বছর করোনার কারণে খুব বেশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হয়নি বাংলাদেশের। নির্বাচক প্যানেল ও ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগ তাই এ বছরের পারফরম্যান্সকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ঠাই পাওয়া ক্রিকেটাররা অবশ্য গত জানুয়ারি থেকেই পারিশ্রমিক পাবেন।

প্রধান নির্বাহী বলেন,  ‘আপনারা জানেন সাধারণত জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় ধরে কেন্দ্রীয় চুক্তি হয়। কিন্তু এবার এই সময়ে করা হচ্ছে, কারণ গত বছর সেরকম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হয়নি করোনার কারণে। তাই সাম্প্রতিক সময়গুলোর ওপর ভিত্তি করে নির্বাচক প্যানেল ও ক্রিকেট অপারেশন্স চুক্তির জন্য ক্রিকেটারদের নাম সুপারিশ করবেন। আগামী বোর্ড সভায় হয়ত সুপারিশ পাব, তার ওপর ভিত্তি করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

‘আমাদের সর্বশেষ বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল আগামী বোর্ড সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিব এবং কয়জন কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকবে খেলোয়াড়দের সেই সংখ্যা চূড়ান্ত করব।’– বলেন তিনি।

বর্তমানে সব মিলিয়ে মোট ১৭ জন খেলোয়াড় আছেন বিসিবির চুক্তিতে। চলতি বছরের চুক্তিতে খেলোয়াড়ের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বিসিবির গত বছরের কেন্দ্রীয় চুক্তি অনুযায়ী, লাল বলের চুক্তি ছিল তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুমিনুল হক, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী ও এবাদত হোসেনের সাথে। সাদা বলের চুক্তি ছিল তামিম ইকবাল, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মুস্তাফিজুর রহমান, আফিফ হোসেন ধ্রুব ও নাইম শেখের সাথে।