কোহলিদের অভয় দিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার দুই অধিনায়ক

0
1105

তিনটি একদিনের ও ৪টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে এই ডিসেম্বরেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার কথা বিরাট কোহলিদের৷ পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী একদিনের সিরিজ মাঠে গড়ানোর কথা ১৭ ডিসেম্বর থেকে৷

পাকিস্তান শক্তিশালী দল, আমাদেরকে সেরা ক্রিকেটটাই খেলতে হবেঃ কোহলি
বিরাট কোহলিদের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর নিয়ে আছে শঙ্কা। ফাইল ছবি

দেশের মাটিতে এখন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষের সিরিজ নিয়ে ব্যস্ত ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দল৷ সূচি অনুযায়ী চলমান সিরিজ শেষে তাদের চড়ে বসার কথা দক্ষিণ আফ্রিকার বিমানে৷ কিন্তু, কোভিড-১৯ এর নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ায় কিছুটা ঘোলাটে হয়ে গেছে সমগ্র পরিস্থিতি। শঙ্কা জেগেছে ভারত দলে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর নিয়েও৷

Advertisment

অতি ক্ষুদ্রকায় অনুজীব করোনা ভাইরাসের সাথে খেলাধুলার যুদ্ধটা চলছে প্রায় আড়াই বছর ধরে৷ ২০১৯ সালের শেষের দিকে এই ভাইরাস পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়লে তার উল্লেখযোগ্য প্রভাব পড়েছিল মাঠের খেলাধুলায়৷ দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল দলগত খেলা ক্রিকেটও৷ বাতিল হয়েছে একটার পর একটা দ্বিপাক্ষিক সিরিজ৷ আর এবছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মত বৈশ্বিক আসর আয়োজনের মধ্য দিয়ে আইসিসি যখন সব ধরণের শঙ্কাকে পাশ কাটিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছিল, তখনই নতুন চিন্তার কারণ হয়ে আবির্ভাব ঘটেছে করোনা ভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রনের৷

আফ্রিকা অঞ্চলেই বেশি প্রভাব দেখা যাচ্ছে করোনা ভাইরাসের এই নতুন ধরণের। ঐ অঞ্চলে ক্রিকেট আয়োজন নিয়ে তাই জাগছে শঙ্কা৷ ইতোমধ্যেই বাতিল হয়েছে জিম্বাবুয়েতে চলতে থাকা নারীদের একদিনের বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব৷ নেদারল্যান্ডস দল দেশের ফিরে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষ না করেই৷ এমতাবস্থায়, ভারত জাতীয় ক্রিকেট দল আর ভারত ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরটাও আছে স্থগিত হওয়ার শঙ্কায়৷

এমন পরিস্থিতিতে ভারতকে আশ্বস্ত করতে এগিয়ে এসেছেন দক্ষিণ আফ্রিকা দলের দুই ফরম্যাটের দুই অধিনায়ক৷ দলটির সাদা বলের অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা বিরাট কোহলিদের অভয় দিয়ে বলেছেন, ‘বায়োবাবলে থেকে ক্রিকেট খেলাটা সবার জন্যই চ্যালেঞ্জিং। হোটেলে থাকা কিংবা অনুশীলন করার পদ্ধতিসহ সবই বদলে গিয়েছে। এমনকি একে অপরকে জড়িয়ে ধরার অধিকার টুকুও এখন নেই আমাদের।’

‘কিন্তু, সবকিছু মাথায় রেখেও আমি বলবো, যে ধরনের বায়োবাবলে আমাদের রাখা হয়, তাতে সর্বোচ্চ মানের নিরাপত্তাই দেওয়া হয়। প্রত্যেকের শারীরিক স্বাস্থ্যের সাথে সাথে মানসিক স্বাস্থ্যকেও গুরুত্ব দেওয়া হয়।’

দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট দলের অধিনায়ক ডিন এলগার বলেছেন, ‘কোভিডের এই সময়ে আমরা সবাই জানি জৈবদুর্গে থাকার গুরুত্ব কতটা। শারীরিক বা মানসিক ভাবে ঠিক থাকা কঠিন। তবে বোর্ড যে ভাবে সব দিক থেকে আমাদের খেয়াল রাখছে, তাতে আমরা খুশি।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনের চ্যাটে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime Crickey সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।