Score

কোহলি-রোহিতের যুগলবন্দিতে ভারতের বিশাল জয়

৩২৩ রানের বিশাল লক্ষ্য দিয়ে ভারতকে চাপের মধ্যে ফেললেও গুয়াহাটির ব্যাটিং সহায়ক পিচে সহজেই জয় তুলে নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া।

বিরাট-কোহলিও অসাধারণ যুগলবন্দিতে ৮ উইকেট হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে যায় ভারত।  অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়কের জোড়া সেঞ্চুরির সামনে টিকতেই পারেনি উইন্ডিজ দল। তবে টেস্ট ক্রিকেটে রীতিমতো ধুঁকতে থাকা ক্যারিবিয়ানদের ৩২৩ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা দেওয়ায় প্রথমে কিছুটা চমকের সৃষ্টি হয়েছিলে বটে।

Also Read - কায়েসের বীরত্ব ও দারুণ বোলিংয়ে শুভসূচনা

তবে টেস্ট ক্রিকেটে দুর্দান্ত একদিনের সিরিজের আগেও ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নেমেছিল ভারত। প্রথম ম্যাচেই তার যথার্থ প্রয়োগও দেখাল দলটি। রবিবার টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত।  ক্যারিবিয়ানদের অল্প রানেই খাতা বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামলেও প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ হয় তারা। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে শুরু করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা।

কাইরন পাওয়েলে ৩৯ বলে ৫১ রানের ইনিংস রীতিমত ভারতের ভারতীয় বোলারদের মনোবলে আঘাত হানে। এরপরে ৯ রান করে হেমরাজ সাজঘরে ফিরলে দলের হাল ধরেন শাই হোপ। পাওয়েলের সাথে জুটি বেধে ভালই এগোচ্ছিল উইন্ডিজের রানের সংগ্রহ। কিন্তু পাওয়েলের আউটে জুটি ভাঙার পরপরই আরেক ধাক্কা আসে তাদের একাদশে। ০ রানে স্যামুয়েলসও ফিরে যান। তবে এরপর হেটমেয়ারের আগমনের পর আর ফিরে তাকাতে হয়নি। ৭৮ বলে ১০৬ রানের ইনিংসে একার হাতিই ক্যারিবিয়ানদের ফাইটিং টোটালে পৌঁছে দেন এ ব্যাটসম্যান।

এর মাঝে অধিনায়ক হোল্ডার ৩৮ এবং উইকেটরক্ষক হোপ ৩২ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন।  শেষ পর্যন্ত ক্যারিবিয়ান ইনিংস গিয়ে দাড়ায় ৮ উইকেটে ৩২২ রানে। ভারতের হয়ে ৩ টি উইকেট পান চাহেল, ২ টি করে উইকেট পান শামি এবং জাদেজা, একটি উইকেট পান তরুণ খলিল আহমেদ।

অন্যদিকে বোলিং ইনিংসের পাশাপাশি ব্যাটিং ইনিংসের শুরুতেই বিপর্যয় হতাশ করেছিল ভারতীয় সমর্থকদের। দলগত মাত্র ১০ রানের মাথায় ফর্মে থাকা শিখর ধাওয়ানের উইকেট তুলে নেয় ২১ বছর বয়সী মিডিয়াম পেসার ওসানে থমাস। সেই ধাক্কার প্রতিশোধ নিতেই যেন গর্জে ওঠে ভারতীয় দল। ইনিংসের হাল ধরেন অধিনায়ক এবং সহ-অধিনায়ক।

প্রথমে বিরাট এবং পরে রোহিতের এই সেঞ্চুরির ইনিংসে ম্যাচ কার্যত ভারতের পকেটে পুরে দেয়। ভারতের সেরা ব্যাটিং জুটির কাছে ধরাশায়ী হয়ে পড়ে ক্যারিবিয়ান বোলাররা। ১৪০ রান করে ২৫৬ রানের মাথায় যখন আউট হন বিরাট। ততক্ষণে ভারতের জয় একপ্রকার লেখা হয়ে গেছে। যেটুকু কাজ বাকি ছিল তা পুরো করেন রোহিত এবং রায়ডু। ৪৭ বল বাকি থাকতেই টার্গেটে পৌঁছে যায় ভারত। শেষ পর্যন্ত রোহিত অপরাজিত থাকেন ১৫২  রানে এবং রায়ডু অপরাজিত থাকেন ২২ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ওয়েস্ট ইন্ডিজ : ৩২২/৮ (৫০ ওভার)

হেটমেয়ার ১০৬, পাওয়েল ৫১

চাহাল ৩/৪১, সামি ২/৮১, জাদেজা ২/৬৬

ভারত : ৩২৬/২ (৪২.১ ওভার)

রোহিত ১৫২(অপরাজিত), কোহলি ১৪০

থমাস ১/৮৩, বিশু ১/৭২

Related Articles

ওয়ানডে সিরিজে এগিয়ে গেল আফগানিস্তান

আধিপত্য বিস্তার করে বাংলাদেশের স্বস্তির জয়

‘বিষয়টা আসলে ভুল বোঝাবুঝি ছিল’

ওডিআইতে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন সাকিব

বর্তমান বিশ্বের তৃতীয় সেরা ওপেনার তামিম