কোয়ারেন্টিনে ছাড় পাচ্ছেন না সাকিব-মুস্তাফিজ

ভারত থেকে ফেরার অপেক্ষায় থাকা দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের ক্ষেত্রে কোভিড প্রটোকল শিথিল করবে না সরকার। দেশে ফিরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক তাদের জন্য।

বল হাতে খরুচে সাকিব, কলকাতার বড় লক্ষ্য

Advertisment

শ্রীলঙ্কা সফর শেষ করে মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ টেস্ট দল। শ্রীলঙ্কায় জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকায় দেশে ফেরা ক্রিকেটারদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন পালন করতে হচ্ছে না। তাদের জন্য শিথিল করা হয়েছে কোভিড প্রটোকল।

ভারতে অবশ্য সাকিব ও মুস্তাফিজ জৈব সুরক্ষা বলয়েই ছিলেন। আইপিএলের চতুর্দশ আসরে সাকিব খেলছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে, মুস্তাফিজ খেলছিলেন রাজস্থান রয়্যালসের জার্সিতে। আইপিএল বন্ধ ঘোষণা করার প্রাক্কালে সাকিবের দলের একাধিক সদস্য করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। এছাড়া আরও একাধিক দলে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ায় ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিতে পড়ে রাজস্থান রয়্যালসসহ সব দল।

শুধু তা-ই নয়, সাকিব-মুস্তাফিজের জন্য করোনা নীতি শিথিল না করার কারও আছে আরেকটি। ভারতের সাথে এখন দেশের যোগাযোগ প্রায় বন্ধ। স্থলপথে দেশে প্রবেশের সুযোগ থাকলেও সেক্ষেত্রে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন কঠোরভাবে মেনে চলতে হচ্ছে, তাও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন।

সাকিব ও মুস্তাফিজ বাংলাদেশে আসতে পারেন চার্টার্ড ফ্লাইটে। কিন্তু তবুও তাতে ভারতের ভয়ংকর ধরনের করোনার প্রজাতি ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি এড়ানোর কোনো নিশ্চয়তা নেই। তাই সাকিব-মুস্তাফিজকেও বাংলাদেশে এসে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করে যোগ দিতে হবে শ্রীলঙ্কা সিরিজের অনুশীলনে।

গণমাধ্যমকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম জানান, ‘ভারত থেকে ফিরে তাদের অবশ্যই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে।’

সাকিব ও মুস্তাফিজের কোভিড প্রটোকল শিথিলের জন্য বিসিবি আবেদন করেছিল জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘বিসিবি আবেদন করেছিল। কিন্তু এক্ষেত্রে সরকারী সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে। আমরা না করে দিয়েছি।’