Scores

ক্যান্ডিতে স্পিন রাজত্বের বিশ্বরেকর্ড

ক্রিকেটে এখন স্পিনারদের রাজত্ব। বিশেষ করে উপমহাদেশের কন্ডিশনে পেসাররা যতটা অসহায়, ঠিক ততটাই দাপুটে স্পিনাররা।

ক্যান্ডিতে স্পিন রাজত্বের বিশ্বরেকর্ড

আর সেই সুবিধা কাজে লাগিয়েই ক্যান্ডি টেস্টে স্পিনাররা গড়েছেন বিশ্বরেকর্ড।

উইকেট নেওয়া কি এতই সোজা! পঞ্চম দিনের শুরুতেই ইতি দেখা ক্যান্ডি টেস্টে স্পিনাররা উইকেট তুলেছেন মুড়ি-মুড়কির মত। এই ম্যাচে পতন ঘটা ৪০টি উইকেটের ৩৮টিই যে শিকার করেছেন স্পিনাররা। আর এতেই হয়েছে বিশ্বরেকর্ড।

Also Read - এবার আঘাত হানলেন নাঈম হাসান

৪০টি উইকেটের মধ্যে ইংল্যান্ডের ২০টি উইকেটের ১৯টিই স্পিনে শিকার করা, যথারীতি তা-ই শ্রীলঙ্কার ইনিংসেও। ইংল্যান্ডের ২০ উইকেটে ১টি মাত্র উইকেট শিকার করেছেন পেসার সুরাঙ্গা লাকমল। ইংলিশ পেসাররা তো আরও দুর্ভাগা। স্পিনারদের শিকার করা ১৯টি উইকেটের সাথে অন্য একটি উইকেট এসেছে রানআউটের প্রচেষ্টায়।

ম্যাচের প্রথম তথা ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে চারটি উইকেট পেয়েছিলেন দিলরুয়ান পেরেরা, তিনটি উইকেট পেয়েছিলেন মালিন্দা পুষ্পকুমারা এবং দুটি উইকেট পেয়েছিলেন আকিলা ধনঞ্জয়া। ঐ ইনিংসে পেসার লাকমল পেয়েছিলেন একটি উইকেট।

এরপর ম্যাচের দ্বিতীয় তথা শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে দিমুথ করুনারত্নে সাজঘরে ফিরেছিলেন রানআউটের শিকার হয়ে। এছাড়া বাকি সব উইকেটের পতন ঘটেছে স্পিনারদের বলে। এর মধ্যে জ্যাক লিচ ও আদিল রশিদ তিনটি করে, মঈন আলী দুটি এবং জো রুট একটি উইকেট শিকার করেন।

ম্যাচের শেষ দুটি ইনিংসে ছিল স্পিনারদেরই জয়জয়কার। দুই ইনিংস মিলে ২০টি উইকেটের সবকটিই শিকার করা হয়েছে ঘূর্ণিজাদুতে। ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে আকিলা ধনঞ্জয়া একাই শিকার করেন ৬টি উইকেট। এছাড়া পেরেরা ৬টি এবং পুষ্পকুমারা ১টি উইকেট শিকার করেন। এরপর ম্যাচের শেষ ইনিংসে তথা শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় ইনিংসে লিচ ৫টি, মঈন আলী ৪টি এবং আদিল রশিদ ১টি উইকেট শিকার করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে একটি ম্যাচে এতগুলো উইকেট নিতে পারেননি স্পিনাররা। ১৯৬৯ সালে নাগপুরে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচে স্পিনাররা ৩৭টি উইকেট শিকার করেছিলেন। এতদিন সেটিই ছিল বিশ্বরেকর্ড। এছাড়া ১৯৫৬ সালে নাগপুরেই ভারত-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ৩৫টি, ১৯৮৭ সালে ব্যাঙ্গালুরুতে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে ৩৫টি এবং মোহালিতে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্টে ৩৪টি উইকেট নিয়েছিলেন স্পিনাররা।

আরও পড়ুন: এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল ইংল্যান্ড

Related Articles

টেস্ট জার্সিতে নাম-নম্বরের ব্যবহারে আইসিসির সবুজ সংকেত

শেবাগের কাছে বাংলাদেশ ‘শিকারি বাঘ ‘

ইতিহাস গড়ে নিজেদের প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপে নাইজেরিয়া

টি-২০ সিরিজও দক্ষিণ আফ্রিকার

অজিদের কাছে হারে সিরিজ শুরু পাকিস্তানের