ক্যারিয়ারের ১১ বছরে অভিষেক, সঙ্গী ১১ জন

টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা কতটা ব্রাত্য সেটিই আবার স্পষ্ট হয়ে উঠল যেন। সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) শুরু হয়েছে ডিপিএলের টি-২০ আসর, যার উদ্বোধনি দিনে মুখোমুখি হয়েছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও খেলাঘর সমাজকল্যাণ সমিতি। ঐ ম্যাচে অভিষেক ঘটেছে ১১ ক্রিকেটারের!

ক্যারিয়ারের ১১ বছরে অভিষেক, সঙ্গী ১১ জন

ঐ ১১ ক্রিকেটারের সবাই দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেললেও লিস্ট ‘এ’ ক্যাটাগরির টি-২০ ম্যাচে এবারই প্রথম মাঠে নেমেছেন। এর মধ্যে রবিউল ইসলাম নিজের প্রথম স্বীকৃত টি-২০ খেলতে নেমেছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ১১টি বছর পার করার পর!

Also Read - প্রথম টেস্ট খেলতে হ্যামিল্টনে তামিম–মাহমুদউল্লাহরা


ডিপিএলে ফিরেই টি-২০ এই টুর্নামেন্ট পেয়েছে লিস্ট ‘এ’ ক্যাটাগরির মর্যাদা। ফলে আসরে মাঠে নামা অনেকের কাছেই এটি প্রথম টি-২০ টুর্নামেন্ট (কিংবা ম্যাচ)। কারণ বিদেশিদের ভিড়ে বিপিএলে যে তারা সুযোগই পান না!

শেখ জামাল ও খেলাঘরের ম্যাচে অভিষিক্ত হওয়া ১১ ক্রিকেটার হলেন- রবিউল ইসলাম রবি, সাদিকুল রহমান, মইনুল ইসলাম, মাসুম খান, অমিত মজুমদার, রাফসান আল মাহমুদ, রিশাদ হোসাইন, ইফরান হোসাইন, ফারদিন হাসান, শাহবাজ চৌহান, ও সালাউদ্দিন শাকিল।

এই ম্যাচে ৬৯ রানের দারুণ ইনিংস খেলা রবিউল ইসলাম রবি ম্যাচ শেষে জানান আসরে বেশি ম্যাচ খেলতে না পারার আক্ষেপ।

তবে অবশেষে লিস্ট ‘এ’ ক্যাটাগরির টি-২০ ক্রিকেটে খেলতে পেরে উচ্ছ্বসিতও রবিউল। তিনি বলেন, ‘সাধারণত টি-২০ খেলা হয় না। বিপিএলেও সুযোগ পাই না। এর আগে পিসিএল (পোর্ট সিটি লিগ) খেলেছিলাম। ওখানে ভালোই করেছিলাম। তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেন করছিলাম আবাহনীর হয়ে। এর পর আর খেলা হয়নি। বিসিবিকে ধন্যবাদ এমন একটা টুর্নামেন্টে আয়োজন করায়।’

রবিউল বলেন, ‘এ রকম টুর্নামেন্ট যখন পেয়েছি, সুযোগটা ছাড়ব না। ম্যাচ অবশ্য কম পাব। আজ একটা ম্যাচ, কাল আরেকটা। ম্যাচ আরও বেশি হলে ভালো হতো।’

রবিউলের এই আক্ষেপের অন্যতম কারণ দলের পরাজয়। তার ঝলমলে ইনিংসের পরও দল ম্যাচটি হেরে গেছে। জয়-পরাজয়ের ব্যবধানও ১১ রানের!

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন