Scores

ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন জন হ্যাস্টিংস

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেছেন অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার জন হ্যাস্টিংস। শারীরিক অসুস্থতার জন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন জন হ্যাস্টিংস

শ্বাসযন্ত্রে সমস্যার কারণে বেশ কয়েকদিন ধরেই ভোগান্তি পোহাচ্ছেন হ্যাস্টিংস। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম এর পেসার বল করলে তার শ্বাসযন্ত্রে আবারও গুরুতর সমস্যা দেখা দিতে পারে, এমনকি হতে পারে রক্তক্ষরণও। শারীরিক এই সমস্যাই তাই হ্যাস্টিংয়ের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের দ্রুত ইতি টানার মুল কারণ।

অবসর গ্রহণের কথা জানিয়ে অস্ট্রেলিয়ার প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম সিডনি মর্নিং হেরাল্ডকে হ্যাস্টিংস বলেন, সতীর্থদের সাথে একই দলে খেলা আমি দারুণ ভালোবাসতাম এবং দলে থাকা এমন কিছু ছিল যা আপনি প্রতিদিনের জীবনে পাবেন না।’

Also Read - নিলামের জন্য সাকিব-তামিমকে ছেড়ে দিয়েছে পেশোয়ার


ক্রিকেট থেকে এই অলরাউন্ডারের বিদায় মেনে নেওয়া কষ্টকর হলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে তার নেওয়া এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছেন তার ভক্ত, সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

১৯৮৫ সালে নিউ সাউথ ওয়েলসে জন্ম নেওয়া হ্যাস্টিংস অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে খেলার পাশাপাশি খেলেছেন জাতীয় দলের হয়েও। বিশ্বের জনপ্রিয় টি-২০ লিগগুলোতেও দাপিয়ে বেড়িয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ১টি টেস্ট, ২৯টি ওয়ানডে ও ৯টি টি-২০ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে তার। এছাড়া খেলেছেন ৭৫টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচও।

আরও পড়ুন: আফ্রিদিকে ছেড়ে দিয়েছে করাচি

[একটা সময় বিশ্বের বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগে তিনি ছিলেন পরম আকাঙ্ক্ষিত খেলোয়াড়। জৌলুস যে এখন একেবারেই কমে গেছে সেটিও নয়। কদিন আগেই দল পেয়েছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএলে)। অথচ সেই শহীদ আফ্রিদিকে দল থেকে ছেড়ে দিয়েছে তার নিজ দেশ পাকিস্তানের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-২০ আসর পাকিস্তান সুপার লিগেরই (পিএসএল) একটি দল। পিএসএলের গত আসরে করাচি কিংসের হয়ে খেলেছিলেন আফ্রিদি। নিয়ম অনুযায়ী আগামী আসরকে সামনে রেখে প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি ১০ জন করে খেলোয়াড় দলে ধরে রাখতে পেরেছে। করাচির ১০ জন ধরে রাখাবিস্তারিত]

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওয়েডের ‘মাথার খুলি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিল’ আর্চার!

একাধিক রেকর্ড দিয়ে অ্যাশেজ শেষ করলেন স্মিথ

সমতায় শেষ হলো অ্যাশেজ, ট্রফি গেল অস্ট্রেলিয়ায়

অস্ট্রেলিয়ার অধিকাংশ সমর্থকই আমাকে ঘৃণা করে: মার্শ

নেতৃত্বে ফিরবেন স্মিথ!