Score

ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে স্বস্তিতে ভিল্লাভারায়ান

এশিয়া কাপের আগেই ইনজুরির সমস্যায় ভুগছেন বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার। মূল লড়াই শুরু হওয়ার আগেই অন্যান্য দলের চেয়ে খানিকটা পিছিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। তবে সব ছাপিয়ে ইনজুরি নিয়ে ভাবছেন না দলের ভারপ্রাপ্ত ম্যানেজার ও ট্রেইনার মারিও ভিল্লাভারায়ান। দলের ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছেন তিনি।

ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে স্বস্তিতে ভিল্লাভারায়ান
ফিটনেসের উন্নতিতে স্বস্তি ভিল্লাভারায়ানের। ছবিঃ এসিসি

বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের ফিটনেসের এত উন্নতির পেছনে বড় অবদান রয়েছেন জাতীয় দলের ট্রেইনার মারিও ভিল্লাভারায়ানের। তার অধীনেই ফিটনেস নিয়ে বর্তমানে যথেষ্ট সচেতন ক্রিকেটাররা। তার অধীনেই ক্রিকেটারদের মাঝে এমন পরিবর্তন ঘটেছে। ফিটনেস নিয়ে ক্রিকেটার সচেতনতা খুশিরই সংবাদ তার জন্য।

তবে এশিয়া কাপের আগে তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসানের মত তারকা ক্রিকেটারদের ইনজুরি তাকে চিন্তায় ফেলতেই পারে। আঙুলের চোট থেকে এখনো পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে পারেনি সাকিব। ইনজুরি পড়েছেন তামিমও। তবে এত কিছুর পরও কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলতে পারেন ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে।

স্বস্তির নিশ্বাস ফেলতে পারেন এ কারণে, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মত দলগুলোর মত বেশি ম্যাচ খেলতে হয়না বাংলাদেশকে। গত চার বছরে দলের ক্রিকেটারদের ফিটনেসের উন্নতির কারণে একটু স্বস্তিতে থাকতেই পারেন ভিল্লাভারায়ান।

Also Read - তবুও শিরোপার দাবিদার ভারত

“গত চার বছর আগে আমরা যেমন ম্যাচ খেলতাম, বিগত কয়েক বছরে আমরা তার চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলছি। তবে এখনো ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ভারত এবং অন্যান্য কয়েকটি দেশের মত বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়না আমাদের। সে হিসেবে কিছুটা স্বস্তিতে থাকতেই পারি আমরা।”

গত চার বছর আগে যেরকম ফিটনেস ছিল ক্রিকেটার সেখান থেকে বর্তমানে অনেক উন্নতি হয়েছে তামিম, মুশফিকদের। ভিল্লাভারায়ানের মতে ক্রিকেটারদের যে সামর্থ্য ও স্কিল রয়েছে সেটি আরও বাড়াতে হবে।

“আমাদের যে সামর্থ্য ও স্কিল রয়েছে তা আরও বাড়াতে হবে। আপনি যদি ক্রিকেটারদের ফিটনেসের দিকে লক্ষ্য করেন, তাহলে দেখবেন গত চার বছরের তুলনায় বর্তমানে ক্রিকেটাররা ফিটনেসে অনেক উন্নতি করেছে এবং তারা নিজেদের ফিটনেস নিয়ে বেশ সচেতন।”

তিনি আরও যোগ করেন, “যেহেতু আমার ব্যাকগ্রাউন্ড ক্রিকেট, সেহেতু আমার শুধু ফিটনেস নিয়েই থাকলে হবে না, অন্যান্য স্কিলেও সাহায্য করতে পারি। বোলারদেরও থ্রোয়িং এবং অন্যান্য স্কিলের দিক দিয়েও তাদের সহয়তা করতে পারি।”

আরও পড়ুনঃ তবুও শিরোপার দাবিদার ভারত!

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি