SCORE

সর্বশেষ

“ক্রিকেটে এসব ঘটেই”

নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে ভারতের কাছে শেষ বলে হারা ম্যাচে বাংলাদেশের পরাজয়ের কারণ হিসেবে অনেকেই দায়ী করে থাকেন পেসার রুবেল হোসেনকে!

কোর্টনি ওয়ালশ
কোর্টনি ওয়ালশ। ছবি: এএফপি

ঐ ম্যাচে নিজের প্রথম ৩ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়েছিলেন রুবেল। যেখানে তার শিকারে ছিল দুটি উইকেট। ২ ওভারে যখন ভারতের প্রয়োজন ৩৪ রান, তখন অধিনায়ক স্বাভাবিকভাবেই ভরসা রেখেছিলেন রুবেল হোসেনের বিশ্বস্ত হাতে। তবে ১৯তম ওভারেই কেবল রুবেল বিলিয়ে বসেন ২২ রান। তাতে অবশ্য রুবেলের যতটা দায়, তার চেয়েও বেশি ছিল কৃতিত্ব দীনেশ কার্তিকের মারমুখো ব্যাটিংয়ের।

সেই ক্ষতি বাংলাদেশ পুষিয়ে উঠতে পারেনি আর। শেষ ওভারে ১২ রান প্রয়োজন ছিল ভারতের, শেষ বলে ৫। সৌম্যর করা ওভারের শেষ বলটিকে ছক্কা বানিয়ে ভারতকে বিজয় উল্লাসে মাতোয়ারা করেন কার্তিক। আর বিমর্ষ হয়ে আরও একটি ফাইনাল হারার বিষাদে নীল হয় বাংলাদেশ।

Also Read - ইতিবাচক ও আত্মপ্রত্যয়ী ওয়ালশ

এই হারের জন্য অনেকেই দোষারোপ করছেন রুবেল হোসেনের করা ১৯তম ওভারটিকে। যদিও আদতে দীনেশ কার্তিকের মারকুটে আচরণের সামনে তখন রুবেলের তেমন কিছু করারও ছিল না। সামনে আফগানিস্তান সিরিজ, যার ফরম্যাট নিদাহাস ট্রফির মতো টি-২০। রুবেলের প্রসঙ্গ এলেই তাই উঠে আসে নিদাহাস ট্রফির ঐ ম্যাচের কথা।

এ প্রসঙ্গে টাইগারদের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ কোর্টনি ওয়ালশ অবশ্য রয়েছেন রুবেলের পক্ষেই। রোববার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন-

‘ওকে আমাদের সাহায্য করতে হবে। সবাই তার পাশেই আছে। আপনি হয়তো ভাবছেন ও দলকে ডুবিয়েছে কিন্তু আমার চোখে সেই ছিল অন্যতম সেরা বোলার। ওই ম্যাচ পরিস্থিতিতে একটি বল বা একটি ওভার সবকিছু বদলে দিতে পারে। ওর একটা বাজে ওভার গেছে। তাতে হয়তো শিরোপাটা হারালাম আমরা। কিন্তু ক্রিকেটে এসব ঘটেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভালো ব্যাপার হলো সে যা করতে চেয়েছে তাই করেছে। ব্যাটসম্যান সম্ভবত একটু বেশি ভালো ছিল ঐদিন। রুবেল অনেক সমৃদ্ধ কিংবা তাকে আরো কিছু করার কথা ভাবতে হবে।’

আরও পড়ুনঃ আইপিএল থেকে চোট নিয়ে ফিরেছেন মুস্তাফিজ

Related Articles

এবার দাতব্য কাজে মন দিলেন রশিদ খান

আসগর স্টানিকজাই থেকে আসগর আফগান

ক্রিকেটের ৯০ শতাংশ দর্শকই উপমহাদেশের!

স্ট্রাইকিং প্রান্তে শুরু করতেই ভালোবাসেন তামিম

“খেলায় আপস অ্যান্ড ডাউনস থাকবেই”