ক্ষোভে ফুঁসছেন ইংলিশ ক্রিকেটাররা, উধাও তসলিমার টুইট

মঈন আলীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় বাংলাদেশের বিতর্কিত নির্বাসিতা লেখিকা তসলিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে ক্রিকেট দুনিয়া। সেই তালিকায় নাম লিখিয়েছেন বিদেশের তারকা ক্রিকেটাররাও।

তসলিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছেন বিলিংস-ডাকেট-সাকিব মাহমুদরা
মুছে ফেলা তসলিমার টুইট।

মুসলিম ক্রিকেটারদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় মঈন, তার ধর্মীয় ভাবধারার কারণে। সম্প্রতি মঈনকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য টুইট করেন তসলিমা। তিনি লিখেন, মঈন ক্রিকেটে না আসলে নাকি সিরিয়া গিয়ে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনে যুক্ত হতেন।

Advertisment

যদিও পরবর্তীতে তিনি আরেক টুইটে উল্লেখ করেন, ‘নিন্দুকরা এটা ভালো করেই জানে যে মঈনকে নিয়ে টুইটটা মজা করে দিয়েছি। কিন্তু তারা এটাকে আমাকে অপমান করার মত ইস্যু বানিয়ে ফেলেছে কারণ ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলি এবং ইসলামিক ধর্মান্ধতার বিরোধিতা করি। মানবসমাজের অন্যতম বড় ট্র্যাজেডি হল নারীপন্থী বামপন্থীরাও নারীবিরোধী ইসলামিস্টদের সমর্থন করেন।’

তসলিমার এই বাজে মন্তব্যের পর মঈনের হয়ে ব্যাট ধরেন জফরা আর্চার। এরপর একে একে আর্চারের কণ্ঠে সুর মিলিয়েছেন স্যাম বিলিংস, বেন ডাকেট, সাকিব মাহমুদের মত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাররা।

তসলিমার টুইটে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ইংলিশ ক্রিকেটার সাকিব মাহমুদ লিখেছেন, ‘বিশ্বাস করতে পারছি না। বিশ্রী টুইট। ঘৃণ্য ব্যক্তি (তসলিমাকে উদ্দেশ্য করে।’

সাকিবের সেই টুইটে আরেক ইংলিশ তারকা স্যাম বিলিংস লিখেছেন, ‘অনুগ্রহ করে আপনারা সবাই তসলিমার একাউন্টকে রিপোর্ট করুন। জঘন্য!’

অস্ট্রেলিয়ার স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল লিখেছেন, ‘রিপোর্ট করো এবং ব্লক দাও। টুইটারের মান নষ্ট হয়ে যাবে যদি আমরা তা না করি।’

বেন ডাকেট পৃথক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘টুইটারের সমস্যা হল এটাই। মানুষ এরকম যা তা বলে বেড়াতে পারে। পরিবর্তন দরকার। সবাই এই একাউন্ট রিপোর্ট করুন।’

এই প্রতিবেদন লেখার সময় তসলিমার বিতর্কিত টুইটটি মুছে ফেলা হয়েছে। যদিও তার প্রথম টুইটকে রসিকতা করে দাবি করা পোস্ট এখনো প্রদর্শিত হচ্ছে।