Score

খুলনায় বিজয়-সৌম্যর ব্যাটে রান

ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে না পারায় জাতীয় দলে জায়গা হারিয়েছেন দুজনই। আবারও লাল-সবুজের জার্সি গায়ে জড়াতে অর্থাৎ আন্তর্জাতিক আঙিনায় ফিরতে ভালো পারফরম্যান্সের বিকল্প নেই। সেই তাড়নায়ই কিনা, জাতীয় ক্রিকেট লিগের টায়ার এক এর তৃতীয় রাউন্ডের প্রথম দিনেই অর্ধ-শতক হাঁকিয়েছেন এনামুল হক বিজয় ও সৌম্য সরকার।

খুলনায় বিজয়-সৌম্যর ব্যাটে রান

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে এদিন টস হেরে ব্যাট করতে নামে খুলনা বিভাগ। দলীয় ২৩ রানেই ওপেনার রবিউল ইসলাম রবিকে হারালে কিছুটা চাপ ভর করে স্বাগতিক দলের উপর। তবে সেই চাপ জয় করে দলকে আলোর পথ দেখান আরেক ওপেনার বিজয় ও ওয়ান ডাউনে নামা সৌম্য।

খুলনায় বিজয়-সৌম্যর ব্যাটে রান

Also Read - জাবিদের দিনে ম্লান আশরাফুল

দ্বিতীয় উইকেটে দুজনে গড়েন ১১১ রানের অনবদ্য এক জুটি। ১০৬ বলে ৫৬ রান করে সঞ্জিত সাহার শিকার হয়ে বিজয় সাজঘরে ফিরলে পার্টনারশিপ ভেঙে যায়। এরপর ১৭৬ রানে সাজঘরে ফেরেন সৌম্যও। তার আগে ১৪১ বলের মোকাবেলায় তার ব্যাট থেকে আসে ৭৬ রান।

দুই সেট ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর অবশ্য খেই হারায় খুলনার ব্যাটিং অর্ডার। দলীয় রান ২০২ এ পৌঁছাতেই সাজঘরে ফেরেন আরও তিন ব্যাটসম্যান। মেহেদী হাসানকে জিয়াউর রহমান বিপর্যয় মোকাবেলার চেষ্টা করেন। তবে দিনের শেষভাগে সাজঘরে ফেরেন ৩৭ রান করা মেহেদী। প্রথম দিনের খেলা শেষে ৭ উইকেটে ২৭২ রান নিয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

৩৩ রান করে অপরাজিত রয়েছেন জিয়াউর। তার সঙ্গী অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক, যিনি অপরাজিত আছেন শূন্য রানে। রংপুরের পক্ষে সাজেদুল ইসলাম একাই শিকার করেছেন চারটি উইকেট।

এদিকে টায়ার ওয়ান এর অন্য ম্যাচের উদ্বোধনী দিনে মাঠেই নামতে পারেনি বরিশাল বিভাগ ও রাজশাহী বিভাগ। বৃষ্টির কারণে বরিশালে এদিন মাঠে গড়ায়নি একটি বলও।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (প্রথম দিন শেষে)

খুলনা বিভাগ ২৭২/৭; সৌম্য ৭৬, বিজয় ৫৬; সাজেদুল ৫৭/৪

আরও পড়ুন: জিম্বাবুয়ে সিরিজে টাইগারদের ম্যানেজার আকরাম খান

Related Articles

ক্যারিয়ারের শেষ ইনিংসেও রঙিন রাজিন

জাতীয় লিগের শিরোপা জিতল রাজশাহী বিভাগ

ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচেও রাজিনের ব্যাটে রান

বিদায়ের কথা জানাতে গিয়ে অশ্রুসিক্ত রাজিন

আশা জাগিয়েও পারলেন না আশরাফুল