‘খেলতে পারে না বলেই ম্যাক্সওয়েল বারবার দল হারায়’

0
750

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মূল্যের দিক থেকে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল সবসময়ই তালিকার ওপরের দিকেই অবস্থান করেন। কিন্তু বরাবরই পারফর্মের দিক থেকে সেই অবস্থান দখল করতে ব্যর্থ হন। আইপিএলে ম্যাক্সওয়েলের সাবেক অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের মতে ম্যাক্সওয়েল ভালো খেলতে পারে না বলেই বারবার দলগুলো তাকে ছেড়ে দেয়।

'খেলতে পারে না বলেই ম্যাক্সওয়েল বারবার দল হারায়'
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের অনুশীলনে ম্যাক্সওয়েল

২০১২ সালে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ম্যাক্সওয়েলকে কিনে প্রথমবারের মতো আইপিএলে খেলার সুযোগ দিয়েছিল। পরের আসরেই তাকে ছেড়ে দেয় দলটি। ২০১৩ সালে সর্বোচ্চ মূল্যে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে যান ম্যাক্সওয়েল। সেখানেও স্থায়ী হতে পারেননি। পরের বছরই নতুন ঠিকানা হয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। ২০১৪ সালে আসরজুড়েই দুর্দান্ত খেলেন এই অজি ব্যাটসম্যান। তারপরেই আবার চলে যান অফ-ফর্মে।

Advertisment

২০১৬ সালের আসরের পরে ম্যাক্সওয়েলকে ছেড়ে দেয় পাঞ্জাব। ২০১৭ সালে নিলাম থেকে তাকে কিনে নেয় দিল্লি। কিন্তু ম্যাক্সওয়েলের অফফর্মের সমাপ্তি আর ঘটে না। দিল্লি থেকে ব্রাত্য হয়ে ২০২০ সালে আবার পাঞ্জাবে জায়গা পান ম্যাক্সওয়েল। তবে সবচেয়ে বাজে যায় ২০২০ সালের আসরটি। তাকে আবারও ছেড়ে দেয় পাঞ্জাব।

বারবার দল হারালেও চড়ামূল্যে দল পেতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি ম্যাক্সওয়েলকে। ২০২১ সালের আসরে তাকে ১৪ কোটি ২৫ রুপিতে দলে ভিড়িয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। এবারের নিলামে তৃতীয় সর্বোচ্চ মূল্য তার। বারবার ব্যর্থ হওয়ার পরও তার ওপরে আশা রেখেই দলে ভেড়ায় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। কিন্তু ভালো খেলতে পারেন না বলেই বারবার দল হারান বলে মন্তব্য করেছেন দিল্লিতে ম্যাক্সওয়েলকে নেতৃত্ব দেওয়া গম্ভীর।

গম্ভীর বলেন, ‘কেবল একটি কারণেই ফ্র্যাঞ্চাইজি আপনাকে ছেড়ে দিতে পারে, তা হলো ভালো খেলতে না পারা। আপনি যত বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজিতে খেলবেন, সেটা প্রমাণ করবে যে আপনি ততই খারাপ খেলছেন এবং কোনো জায়গায় স্থায়ী হতে পারছেন না। সত্যি বলতে, ম্যাক্সওয়েল যদি ভালো খেলতেই পারত, তাহলে তাকে সে এতগুলো ফ্র্যাঞ্চাইজিতে খেলত না। তারা তাকে দলে নেই কারণ বেশির ভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজিই মনে করে ম্যাক্সওয়েল এক্স-ফ্যাক্টর হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সবচেয়ে দুর্ভাগ্যের ব্যাপার হলো, এত সুযোগ পাওয়ার পরেও ম্যাক্সওয়েল সফল হতে পারেনি কেবল ২০১৪ সাল ছাড়া। সে যদি প্রতি আসরে ভরসা দিতে পারত তাহলে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিই তাকে ছাড়ত না। আন্দ্রে রাসেলকে দেখুন, সে কত বছর ধরে একটানা কলকাতা নাইট রাইডার্সে খেলছে এবং সে কেকেআরে কতটা অবদান রেখেছে।’