Score

‘গত চার দিনে ২৫টি ব্যথানাশক ট্যাবলেট খেয়েছি’

এশিয়া কাপে প্রথম ম্যাচে দলের অভিজ্ঞ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম খেলতে পাড়বেন কিনা সেটি নিয়ে অনেক সংশয় ছিল। মূলত জানা যায় ইনজুরিতে পড়েছেন তিনি। তাই তার খেলার সম্ভবনা খুবই কম। তবে সব ছাপিয়ে মাঠে নেমেছেন তিনি। দেখিয়েছেন বীরত্বও। ম্যাচের আগে , গত চার দিনে ফিট হওয়ার জন্য ২৫টির মতো ব্যথানাশক ট্যাবলেট খেয়েছেন মুশফিক।

নতুন মাইলফলকের সামনে মুশফিক

এশিয়া কাপের শুরুর আগ থেকেই দুঃসংবাদে ছড়াছড়ি ছিল বাংলাদেশ শিবিরে। সাকিবের আঙুলের চোট। ইনজুরিতে পড়েছিলেন তামিম ইকবালও। সর্বশেষ যোগ হয়েছিলো মুশফিকুর রহিমের নাম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের আগে কিপিং অনুশীলন করছিলেন তিনি। তখনি ইনজুরিতে পড়েন মুশফিক। ম্যাচের আগেরদিন নাকি ভাবাও হয়েছিলো মুশফিকের পরিবর্তে কে মাঠে নামবেন। তবে ছাপিয়ে ইনজুরি নিয়েই ২২ গজে দলের জার্সি গায়ে মাঠে নামেন তিনি।

শুধু নামেনই নি, খেলেছেন ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংসও। তার করা ১৪৪ রানেই লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। তবে বাঁ-পাঁজরের ইনজুরি নিয়েও কীভাবে খেললেন মুশফিক? সেটিই জানানলেন তিনি। প্রথম আলোকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি জানান, ম্যাচের জন্য নিজেকে ফিট রাখতে গত চার দিনে ২৫টির মতো ব্যথানাশক ট্যাবলেট খেয়েছেন মুশফিক!

Also Read - ‘ভবিষ্যতে এমন অনেক ইনিংস খেলতে চাই’

“গত চার দিনে ২৫টির মতো ব্যথানাশক ট্যাবলেট খেয়েছি। এভাবেই খেলছি। বাঁ পাঁজরের ৯ নম্বর হাড়টা ভেঙে গেছে। এখনো ওটা ভাঙাই আছে। এটা এমন একটা জায়গা যেখানে ইনজেকশনও দেওয়া যায় না। টেপ লাগিয়ে, ট্যাবলেট খেয়ে যতটুকু খেলা যায়। পরশু  তো পুরো ইনিংসেই সমস্যা হয়েছে। শট খেলতে গেলেই ওখানে লেগেছে

মুশফিক যে ব্যথা নিয়েই খেলেছেন সেটি দেখা গিয়েছিল টিভি স্ক্রিনেই। দল যখন লিটন কুমার দাস ও সাকিবকে হারিয়ে দিশেহারা ঠিক তখনি আঙুলে চোট পেয়ে মাঠ ত্যাগ করেন তামিম। মিঠুনকে সঙ্গে নিয়ে দলকে নিয়ে যান সম্মানজনক স্কোরে। ব্যাটিংয়ের সময় বারবার বুকে হাত দিচ্ছিলেন মুশফিক, তখনি বুঝা যায় কতটা ব্যথা অনুভব করছিলেন দলের এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার।

বাঁ পাঁজরের ব্যথা নিয়েও যেভাবে লড়েছেন সেটাতে দেশের মানুষের মন জয় তো করেছেনই সেই সাথে প্রশংসিত হয়েছে বাইরের মহলেও। অবশ্য প্রশংসিত হবেই না কেন, ব্যথাকে চাপা দিয়ে যেভাবে বুক চিতিয়ে দলের জন্য লড়াই করেছেন সেটা তো প্রশংসা পাওয়ারই যোগ্য।

আরও পড়ুনঃ ‘ভবিষ্যতে এমন অনেক ইনিংস খেলতে চাই’

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি