Scores

গিবস-কারস্টেনের রেকর্ডে ভাগ বসালেন তামিম-সাদমান

দুই দিন বৃষ্টির পর তৃতীয় দিন মাঠে গড়ায় বল। টস হেরে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পাওয়া বাংলাদেশকে দারুণ শুরু এনে দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল ও সাদমান ইসলাম অনিক। প্রায় বিশ বছর আগের এক রেকর্ডেও ভাগ বসিয়েছেন তারা।

গিবস-কারস্টেনের রেকর্ডে ভাগ বসালেন তামিম-সাদমান

Also Read - ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে দুই পরিবর্তন

১ম ম্যাচের দুই ইনিংসেই পঞ্চাশোর্ধ্ব জুটি গড়েছিলেন তামিম ও সাদমান। হ্যামিল্টনে ১ম টেস্টের দুই ইনিংসে যথাক্রমে ৫৭ ও ৮৮ রানে তামিম ও সাদমানের। তাই আজ মাঠে নামার আগেই ইতিহাসে নিজেদের নাম লেখানোর হাতছানি ছিলো তাদের সামনে।

ওয়েলিংটনের সবুজ গালিচায় কিউই পেসাররা আক্রমণ করছিল বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। সেসবের ভালোই জবাব দিচ্ছিলেন তামিম-সাদমান। এই ইনিংসেও তাদের জুটি ৭৫ রান তুলেছে। ফলে টানা তৃতীয় ফিফটি জুটিতে বাংলাদেশ গড়েছে বিরল এক কীর্তি।

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট ইতিহাসে কোনো সফরকারী দলের টানা তিন ইনিংসে অর্ধশত রানের ওপেনিং জুটি হয়েছে আগে মাত্র একবারই। ১৯৯৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার গ্যারি কারস্টেন ও হার্শেল গিবস জুটি টানা তিনটি ফিফটি পার্টনারশিপে সেই কীর্তি গড়েছিলেন। টানা তিন ইনিংসে তারা করেছিলেন ৭৬, ১২৭ ও ৭৩ রান।

কলিন ডি গ্রান্ডহোমের বলে সাদমান দলীয় ৭৫ রানে আউট হলে তাদের জুটি ভেঙে যায়। নিজের ষষ্ঠ ওভারে বল করতে এসে অ্যাঙ্গেল বদলে রাউন্ড দা উইকেটে এসে সাদমানকে ২৭ রানে ফেরান গ্রান্ডহোম। ভালো শুরুর পরও অবশ্য সুবিধাজনক অবস্থানে নেই বাংলাদেশ। মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় আজও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে দল।

অবশ্য টানা তিন ইনিংসে অর্ধশতাধিক রানের ওপেনিং জুটি বাংলাদেশ আগেও দুই বার দেখেছে। প্রথমবার ২০১০ সালের ইংল্যান্ড সফরে। তামিম ও ইমরুল কায়েসের জুটিতে লর্ডসে এসেছিল ৮৮ ও ১৮৫ রান। ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টের প্রথম ইনিংসে তাদের জুটি তুলেছিল ১২৬।

২০১৭ সালে তামিম ও সৌম্য টানা তিন ইনিংসে ফিফটি জুটি  গড়েছিল। শ্রীলঙ্কার মাটিতে গল টেস্টে দুই ইনিংসে বাংলাদেশ পায় ১১৮ ও ৬৭ রানের জুটি। পরের টেস্টে পি সারা ওভালে প্রথম ইনিংসে তারা করেছিল ৯৫ রান।


 আরো পড়ুন :সীমিত ওভারের চেয়েও বেশি জনপ্রিয় টেস্ট ক্রিকেট!


 

Related Articles

জন্মদিনে সতীর্থদের ভালোবাসায় সিক্ত তামিম

সবদেশের বিপক্ষে তামিমের সেরা ইনিংসগুলো

“স্বপ্নে দেখেছি, বাইকে করে ওরা গুলি করছে’

“অনেকেই ভয়ে নামাজের টুপি খুলে ফেলে”

সাংবাদিকদের প্রতি তামিমের কৃতজ্ঞতা