Scores

গেইলকে ছাড়িয়ে সবার উপরে মুশফিক

এই নিয়ে বেশ কয়েকবার দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গিয়েও ম্যাচ শেষ করে আসতে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ দলের অভিজ্ঞ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এই জয় পেলেই স্বাগতিক উইন্ডিজের বিপক্ষে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয়ের স্বাদ পেত বাংলাদেশ। জয়ের এত কাছে গিয়েও ম্যাচ হাত থেকে ফসকে বের হওয়ার কষ্ট মনে হয় মুশফিকের চেয়ে কেউ বেশি পাননি। কেননা শেষ পর্যন্ত লড়াই করার আশাটা টিকে রেখেছিলেন মুশফিকই।

গেইলকে ছাড়িয়ে সবার উপরে মুশফিক
দ্বিতীয় ম্যাচে ৬৮ রানের লড়াকু ইনিংস খেলেন মুশফিক। ছবিঃ এএফপি

তাইত উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের করা ৫০তম ওভারের প্রথম বলে কিমো পলের হাতে ক্যাচ তুলে দেওয়ার পর বারবার মাথা নাড়াচ্ছিলেন আফসোসে। মনে মনে ভাবছিলেন হয়ত ম্যাচটা নিজেই বের করে আনতে পারতেন। হোল্ডারের করা ফুলটসে আউট হবেন সেটা ভাবেননি তিনি নিজেও। ম্যাচ জেতাতে পারেননি তো কী হয়েছে খেলেছেন দলের হয়ে লড়াকু ৬৭ বলে ৬৮ রানের ইনিংস।

দল না জিতলেও এইদিন নিজের ব্যক্তিগত এক রেকর্ড গড়েছেন মুশফিক। উইন্ডিজ-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সিরিজে উইন্ডিজ ওপেনার ক্রিস গেইলকে ছাড়িয়ে এখন সবচেয়ে বেশি রান সংগ্রাহক অভিজ্ঞ উইকেটকিপার মুশফিক। ২০০৭ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত মোট ১৮টি ম্যাচ খেলেছে মুশফিক। ১৮ ম্যাচে ৪০ গড়ে করেছেন ৬০৩ রান। সেঞ্চুরি না থাকলেও রয়েছে চারটি অর্ধশতক।

Also Read - যে কারণে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে সৌম্য


উইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে গেইলকে ছাড়িয়ে যান মুশফিক। দ্বিতীয় সেরা রান সংগ্রাহকের তালিকায় রয়েছেন গেইল। মুশফিকের চেয়ে দুই ম্যাচ বেশি, ২০ ম্যাচে ৩২ গড়ে ৫৮৮ রান করেছেন এই মারকুটে ওপেনার। রয়েছে একটি শতক ও তিনটি অর্ধশতক। দুই ব্যাটসম্যানের মধ্যে কোন রান করেই একবার আউট হয়েছেন মুশফিক এবং দুইবার আউট হয়েছেন গেইল।

বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে ৩৮ বলে ২৯ রানের ইনিংস খেলেন গেইল। ডান হাতি স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এলবিডাব্লিউয়ের শিকার হন গেইল। এই তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছেন আরেক উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান মারলন স্যামুয়েলস। এই সিরিজে না থাকলেও সেরা তিনে রয়েছেন তিনি। ১২ ইনিংসে ৪৮ গড়ে ৫৩৩ রান করেন তিনি। তারপরেই রয়েছেন তামিম ইকবাল। মুশফিকের সমান সংখ্যক, ১৮ ম্যাচে ৩২ গড়ে ৫২০ রান করেছেন তিনি। এই তালিকার সেরা পাঁচে থাকার দারুণ সুযোগ রয়েছে সাকিব আল হাসানের। ১০ ইনিংসে ৪১ গড়ে ৩৭৫ রান করেছেন সাকিব।

 

ক্রমিক নং. ক্রিকেটার দল ম্যাচ রান গড়
১. মুশফিকুর রহিম বাংলাদেশ ১৮ ৬০৩ ৪০.২২
২. ক্রিস গেইল উইন্ডিজ ২০ ৫৮৮ ৩২.৬৬
৩. মারলন স্যামুয়েলস উইন্ডিজ ১৩ ৫৩৩ ৪৮.৪৫
৪. তামিম ইকবাল বাংলাদেশ ১৮ ৫২০ ৩২.৫০
৫. শিব চন্দরপল উইন্ডিজ ১১ ৩৭৮ ৭৫.৬০
৬. সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ ১১ ৩৭৫ ৪১.৬৬

 

আরও পড়ুনঃ যে কারণে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে সৌম্য

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

পেস বোলিংয়ে ‘অনাগ্রহ’; ওয়ালশের আক্ষেপ নেই

মাশরাফিই ছিলেন নেপথ্যের কারিগর

সিদ্ধান্ত সাকিবের উপরেই ছেড়ে দিল বিসিবি

নিজেদের ব্যর্থতার দায় বোর্ডের উপর চাপাচ্ছেন না রাব্বি

উইন্ডিজে কোচের নজর কেড়েছেন যারা