Scores

ঘরবন্দি সময়ে বাবা-ছেলে এখন শেফ

ক্রিকেট নিয়েই বেশিরভাগ সময় ব্যস্ত থাকতে হয় জাতীয় দলের অলরাউন্ডার ও টি-২০ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সব ধরণের খেলা বন্ধ থাকায় পরিবারকে সময় দেয়ার সুযোগ পেয়েছেন এ ক্রিকেটার। ঘরবন্দি বাবা-ছেলে এখন হয়ে উঠেছে শেফ। শুধু তাই নয়, ছেলে রাঈদের পড়াশোনাতেও সাহায্য করছেন রিয়াদ।

ঘরবন্দি সময়ে বাবা-ছেলে এখন শেফ

ছাত্রের প্রশংসাই পেয়েছেন রিয়াদ। বিডিক্রিকটাইম লাইভ আড্ডায় রিয়াদ পুত্র বলেন, “আমার বাবা ভালোই পড়াচ্ছে। বাবা ক্রিকেটে চলে গেলে অনেক মিস করব।”  

Also Read - সাকিবের সাথেই রিয়াদের বোঝাপড়া সবচেয়ে ভালো






শেফ রিয়াদের প্রশংসাও ছিল। রাঈদ জানায় এখন পর্যন্ত জিলাপি, পিজ্জা, নান আর চিকেন ডেরিয়া রান্না করেছেন রিয়াদ।। এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সুস্বাদু ছিল পিজ্জা ও নান।

রিয়াদ বলেন, “ও পিজ্জা আর নান খুব পছন্দ করে। হঠাৎ করে আমাকে একদিন এসে বলে, ‘বাবা, পিজ্জা বানিয়ে দাও।’ আমি তো কখনো চেষ্টা করিনি। এখন সে বলেছে আমার আর কী করার! আমি ভাবলাম চলো মিলেমিশে চেষ্টা করি। ও আমাকে সাহায্য করেছে। রেসিপি গুলো বলে দিয়েছে, সাজেশন দিয়েছে। “






ইউটিউব থেকে শিখে নেয়া একটি রেসিপিও বলেন রাঈদ। রাঈদ জানিয়েছেন এখন পড়াশোনা তেমন হচ্ছে না। সময় কাটছে রান্নাঘরে। রাঈদ বলেন,  “আমি একাই জেনেছি ইউটিউব থেকে। আমরা দুইজন শেফ হয়ে গিয়েছি। এখন আর পড়া হচ্ছে না।”  

তবে রিয়াদ জানিয়েছেন পুত্রের ওপর কোনো চাপ দেন না তিনি। খেলাধুলায় ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে রাঈদের বাধা হয়ে দাঁড়াবেন না বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, “রাঈদের আগ্রহ আছে। ও যদি খেলাধুলা করতে চায় আমি না করব না। আমি কখনো পড়াশোনায় চাপ দেওয়া পছন্দ করি। কারণ আমরা যখন বড় হয়েছি আমাদেরও স্পেস ছিল। আমাদের বিনোদনই ছিল খেলাধুলা। বাসার সামনে হোক, পাড়ার রাস্তা হোক বা পাড়ার কোনো মাঠ হোক- যেখানে সময় পেতাম খেলার চেষ্টা করতাম। আমরা এ বিনোদনটা ওদের দিতে পারছি না। কারণ ঢাকায় ঐ পরিবেশটাও আমরা খুব একটা পাইনা। তাই আমি মাঝে মাঝে ছাদে বা বাসার নিচে খেলার চেষ্টা করি।”

পুরো লাইভ দেখতে ক্লিক করুন এখানে। 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সৌম্যর উপর সবচেয়ে বেশি আস্থা রাখেন রিয়াদ 

কৃতজ্ঞচিত্তে সুজনের অবদান স্মরণ রিয়াদের

রিয়াদকে বাদ দিতে যেয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন সুজন

বাংলাদেশকে দেখলে এখন অন্যরা বলে, “খাইছে আমারে, বাবারে বাবা!”

গুরুর প্রয়াণে শোকাহত রিয়াদ