Scores

চট্টগ্রাম টেস্টের দলে ডাক পেলেন রাজ্জাক

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৫০০ উইকেট নেওয়ার মাইলফলক স্পর্শের বেশিদিন হয়নি। এরই মধ্যে আলোচনা হচ্ছিল আব্দুর রাজ্জাককে জাতীয় দলে নেওয়া-না নেওয়া প্রসঙ্গে। শুক্রবার নির্বাচকরা এও জানিয়েছিলেন, ঘরোয়া ক্রিকেটে রাজ্জাকের মতো যারা ভালো পারফর্ম করছেন, তাদের সুযোগ দেওয়া হবে।

চট্টগ্রাম টেস্টের দলে রাজ্জাক

অবশেষে অপেক্ষা ফুরিয়েছে রাজ্জাকের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন চট্টগ্রাম টেস্টের স্কোয়াডের ১৭তম খেলোয়াড় হিসেবে রোববার ডাক পেয়েছেন তিনি।

Also Read - ডাকাই হলো না তামিম-রিয়াদকে


এর মাধ্যমে দীর্ঘ চার বছর পর টেস্ট দলে প্রত্যাবর্তন ঘটল রাজ্জাকের। হুট করে পাওয়া ডাক অপ্রত্যাশিতই ছিল তার কাছে। বিবিসি বাংলাকে রাজ্জাক বলেন, ‘হঠাৎ পাওয়া এই ডাকে আমি আসলেই খুশি, আমি ভাবতে পারিনি এভাবে ডাক আসবে। কিছুক্ষণ আগে থেকেও সবাই জিজ্ঞেস করছিলো আমি টেস্ট দলে আছি কি না। আমি উত্তর দেইনি। হঠাৎ নান্নু ভাই ফোন দিয়ে জানালেন চট্টগ্রামে দলের সাথে যোগ দিতে।’

ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত ১২টি টেস্ট খেলেছেন রাজ্জাক, যাতে শিকার করেছেন ২৩টি উইকেট। সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলেন ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে, এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই। আবারও আরেকটি ফেব্রুয়ারিতে মাঠে গড়াবে এমন একটি টেস্টের মাধ্যমে তার প্রত্যাবর্তন ঘটতে যাচ্ছে।

৩৫ বছর বয়সেও নিজের ফিটনেস নিয়ে বেশ আশাবাদী রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘ইনজুরির কথা তো বলা যায়না কখন কী হয়? তবে শেষ কদিন ধরেই চারদিনের ম্যাচ খেলছি এবং টেস্ট খেলার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত আমি।’

উল্লেখ্য, শনিবার ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েন টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এই ইনজুরির কারণে সাকিব মিস করবেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টও, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে যা শুরু হবে ৩১ জানুয়ারি। শনিবার রাতে সাকিবের ইনজুরির কারণে বদলি হিসেবে স্কোয়াডে সানজামুল ইসলাম ও তানভীর হায়দারের অন্তর্ভুক্তির কথা জানিয়েছিল বিসিবি। এবার ডাক পেলেন রাজ্জাকও।

আরও পড়ুনঃ আইপিএলে সুযোগ পেলেন নেপালি ক্রিকেটার

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

১০০ উইকেটের ক্লাবে ঢুকেই মুস্তাফিজের রেকর্ড

রাজ্জাককে পেছনে ফেলে বিশ্বকাপে মুস্তাফিজের অনন্য রেকর্ড

বিশ্বকাপে থাকছেন রাজ্জাক!

বিশ্বকাপের সেরা ৫ টাইগার বোলার

রাজ্জাককে ছাড়িয়ে শীর্ষে মাশরাফি