Scores

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের প্রাপ্তি কী?

আফগানিস্তানের মতো নবীন দলের বিপক্ষে দুই শতাধিক রানের বিশাল ব্যবধানে হারার পর সেই ম্যাচ থেকে আর কী প্রাপ্তি থাকতে পারে! হার-জিত যেটাই হোক, সব ম্যাচ শেষেই কিছু ইতিবাচক দিক তুলে ধরা যায়। কিন্তু এই ম্যাচ হারের কারণ ব্যাখা করা বা কোনো অজুহাত দেয়ার জায়গাও মনে হয় নেই।

প্রথম ইনিংসে আফগানিস্তানের প্রথম ইনিংসে ৩৪২ রানের জবাবে ২০৫ রানেই অলআউট যায় সাকিব-মুশফিকরা। ৩৯৮ রানের বড় লক্ষ্যে তো দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৭৩ রানেই শেষ হয়ে গেছে বাংলাদেশের ইনিংস। সেটাও আবার সারাদিন বৃষ্টির পর শেষ বেলায় ঘণ্টাখানেক খেলা হওয়ার মধ্যেই।

Also Read - ‘ভেবেছিলাম কোহলি সেরা, কিন্তু স্মিথ ভিন্ন গ্রহের’


অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ভাষায়, এই ম্যাচ যত দ্রুত সম্ভব ভুলে যেতে চায় দল। কিন্তু ভুলে গেলেই কি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে? টেস্ট ক্রিকেটে রং লাগাতে আইসিসির নতুন উদ্যোগে র‍্যাঙ্কিংয়ের প্রথম ৯ দলকে নিয়ে শুরু হয়েছে  বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। অবশ্য এখনো সেই টুর্নামেন্টে মাঠে নামা হয়নি বাংলাদেশের। কিন্তু তার আগেই আফগানিস্তানের মতো নতুন ও মাত্র ৩টি টেস্ট খেলা দলের কাছে প্রায় ২০ বছর ও ১১৫টি টেস্ট খেলা দলের ২২৪ রানের বড় ব্যবধানে হার তো অশনি সংকেতই বাংলাদেশের জন্য! আগামী নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে মাঠে নামার আগে এই টেস্ট বড় চিন্তার ভাঁজ ফেলল।

এই ম্যাচে বাংলাদেশের প্রাপ্তি বলতে বলা যায়, ম্যাচটা পঞ্চম দিনে গড়ানো এবং প্রতিপক্ষের সবগুলি উইকেট শিকার করতে পারা। কিন্তু বৃষ্টির বাধা না থাকলে কী ম্যাচটা পঞ্চম দিনে গড়াত? হয়ত কিংবা না। হ্যা গাণিতিক যুক্তিতে সম্ভাবনা দেখলে হয়ত ম্যাচটা বাংলাদেশের পক্ষেও আসার কথা বলা যায়। কিন্তু কাগজে-কলমে মিললেই তো হবে না, মাঠের পারফর্ম দেখে হয়ত সম্ভাবনার সেই নমুনা বিন্দুটিতে কেউ হাত দিতে সাহস করতে পারেনি!

তাহলে তো বলা যায়, আফগানদের ২০টি উইকেট তুলে নেয়ায় চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের একমাত্র প্রাপ্তি। সবগুলো উইকেট বাংলাদেশ নিয়েছে ঠিকই কিন্তু তা বেশ দেরি হয়ে গেছে। অবশ্য ব্যাটসম্যানরা একটু দায়িত্বশীলতা দেখাতে পারলে হয়ত সেটাই অনেক হতো। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ অধিনায়ক যেমন বলেছিলেন, দুই দলের ব্যাটিং-ই গড়ে দেবে ম্যাচের পার্থক্য- সেটাই কিন্তু হয়েছে। এখানে আফগানিস্তান লেটার মার্কস পেলেও, বাংলাদেশ ফেল করেছে।

আর ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত প্রাপ্তির দিকে নজর দিলে কী দেখা যায়- সেখানে কি কেউ লেটার মার্কস পেয়েছে? সেটার উত্তরও ‘না’ আসবে। তাইজুলের ধারাবাহিক বোলিং ও প্রথম ইনিংসে মাটি কামড়ে থাকার চেষ্টাকে পাস মার্ক দেয়া যায়। প্রথম ইনিংসে মমিনুল হকের অর্ধশতক, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতে অপরাজিত ৪৮ রান কিংবা দ্বিতীয় ইনিংসে সাকিবের ৪৪ রান ও ৫ উইকেটকে কী বিশেষণ দেয়া যায়? তাদের কাছে প্রত্যাশার থেকে যে প্রাপ্তিটা অনেক কম ছিল। অবশ্য প্রথম ইনিংসে সৈকত চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু যোগ্য সঙ্গীর অভাবে এগোতে পারেননি।

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের বড় প্রাপ্তি মনে হয় এটাই যে, আফগানিস্তান আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে ২০ বছর ধরে টেস্ট খেলেও আমাদের পরিকল্পনা, দল গোছানো, মানসিকতা এখনো কতটা পিছিয়ে! বাংলাদেশের একাদশের থেকে আহামরি ভালো ছিল না আফগানদের একাদশ কিন্তু ওই যে মানসিকতা ও পরিকল্পনার বেড়াজালে আটকে গেছে সাকিবরা! এই প্রাপ্তি থেকে শিক্ষা নিয়ে যদি নড়েচড়ে বসে বোর্ড ও দল সামনে এগোতে পারে তবেই মঙ্গল।

প্রথমবারের মত বিডিক্রিকটাইম নিয়ে এলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। বাংলাদেশ এবং সকল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বল বাই বল লাইভ স্কোর, এবং সাম্প্রতিক নিউজ সহ সবকিছু এক মুহূর্তেই পাবেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় অনলাইন পোর্টাল BDCricTime এর অ্যাপে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সার্চ করুন BDCricTime অথবা ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

পুনে টেস্ট: কোহলির দ্বিশতকে চালকের আসনে ভারত

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যর্থ কোহলি, চালকের আসনে ভারত

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের বর্তমান হালচাল

অ্যান্টিগা টেস্ট: বুমরাহ-ইশান্তে নীল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

রোমাঞ্চকর টেস্টে উচ্ছ্বসিত মুশফিক, স্টোকসকে প্রশংসা