Scores

চামিন্দা ভাসও একসময় ১১০ কিমি. গতিতে বল করেছে : সুজন

সাবেক মিডিয়াম পেস বোলিং অলরাউন্ডার খালেদ মাহমুদ সুজনকে নিয়ে সমর্থকদের একটি অংশ সবসময় সমালোচনায় মুখর থাকেন। বিশেষ করে সুজনের বোলিংয়ের গতি নিয়ে খোঁচানো যেন নিন্দুকদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। এছাড়া ক্রিকেটে তার নানা ভূমিকায় থাকা নিয়েও রসিকতা করেন অনেকে। 

ক্যাসিনো বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন সুজন

তবে জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক ক্রিকেট সমর্থকদের এসব সমালোচনায় কর্ণপাত করেন না। কেন তার বলের গতি কম ছিল, সেই বিষয়টিও খোলাসা করেছেন তিনি। সম্প্রতি নট আউট নোমান অনুষ্ঠানে সুজন তার কম গতির বোলিং নিয়ে কথা বলেন।

Also Read - মুশফিকুর রহিম: লর্ডস থেকে মিরপুর






নিন্দুকদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটে আমাদের একটা কথা আছে- যে জিনিস নিয়ন্ত্রণের বাইরে তাকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করো না। যেটা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব আমি সেটাই নিয়ন্ত্রণ করতে চাই। যারা এসব বলেন তারা কেন বলেন আমি জানি না। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমি এত সক্রিয় নই।’ 

সুজনকে অনেকে ব্যাঙ্গ করে বলেন ‘গতিদানব’। এই অলরাউন্ডার মিডিয়া পেসে বল করলেও তার গতি নিয়ে ব্যাঙ্গ করার প্রবণতা চোখে লাগার মত। অথচ বাংলাদেশের ক্রিকেটে উত্থানের সময়ে তার বোলিংই ছিল দলের অন্যতম বড় অস্ত্র।






সুজন বলেন, ‘গতিদানব যে কথাটা আছে… আমি কিন্তু একদম খারাপ গতিতেও বল করিনি একসময়। ১৩৭ কিমি. সর্বোচ্চ গতি ছিল, এত কম নয়। যখন ছন্দে ছিলাম ১৩৫ এর মত গতিতে বল করেছি। চামিন্দা ভাস ১৪০ কিমি. গতিতে বল করেছে আবার শেষদিকে এসে ১১০-১১৫ কিমি. গতিতেও বল করেছে। আমি অবশ্য নিজেকে উনার সাথে তুলনা করি না।’ 

তখন বাংলাদেশের উইকেটে গতির ঝড় তোলা মুখের কথা ছিল না। তাতে বোলিংয়ের কারুকার্য অনেকটাই অসম্ভব হয়ে পড়ত। তিনি বলেন, ‘ঢাকার উইকেটে খেলার সময় গতির কথা চিন্তা করলে বল বারবার মাঠের বাইরে থেকে নিয়ে আসতে হত। আমরা তখন চিন্তা করেছি কীভাবে কাটার শিখতে পারি, কাটার নিয়ে অনেক কাজ করেছি।  শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ- যত বড় উইকেট পেয়েছি সব লেগ কাটারে পেয়েছি। এজন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অনুশীলন করতে হয়েছে।’ 

ক্রিকেট সমর্থকদের কানাঘুষা তাই কানেই তোলেন না বর্তমান বোর্ড পরিচালক ও গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান। সুজন বলেন, ‘আমার কোনো অভিযোগ নেই। মানুষ যা বলার সেটা বলবেই। অনেকে হয়ত খেলাই দেখেনি আমার কিন্তু আমাকে নিয়ে অনেক কথা বলে। এগুলো নিয়ে আমার এত বেশি মাথাব্যথা নেই।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

Related Articles

শীঘ্রই ছন্দে ফিরবেন সাকিব, প্রত্যাশা সুজনের

আমরা এর চাইতে ভালো দল : সুজন

বিদেশি ক্রিকেটার না থাকায় আকবর-নাঈমদের জন্য বড় মঞ্চ প্রস্তুত : সুজন

ইনফর্ম মুশফিককেই দলে চেয়েছিলেন সুজন

ক্লাবগুলোর জন্য লোনের ব্যবস্থা করবে বিসিবি