SCORE

সর্বশেষ

চার অর্ধশতকে পাকিস্তানের বড় লিড

লর্ডসে দ্বিতীয় দিনশেষেও ম্যাচের নিয়ন্ত্রন নিজেদের কাছে রেখেছে সফরকারী পাকিস্তান। প্রথম দিনে বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ইংল্যান্ডকে অল্প রানে গুটিয়ে দেয়ার পর দ্বিতীয় দিনে আজহার আলি, আসাদ শফিক, বাবর আজম, শাদাব খান- চার অর্ধশতকে ভর করে ১৬৬ রানের লিড নিয়েছে পাকিস্তান। এখনো তাদের হাতে রয়েছে দুই উইকেট। ক্যাচ ছাড়ার খেসারতও যেন দিতে হচ্ছে ইংলিশদের। চার অর্ধশতকে পাকিস্তানের বড় লিড

এক উইকেটে ৫০ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে পাকিস্তান। হারিস সোহেল আর আজহার আলি মিলে দ্বিতীয় দিনের সকালটা কাটিয়ে দেন দেখেশুনে। দিনের ১৭ তম ওভারে উইকেট পায় ইংলিশরা। দলীয় ৮৭ রানের মাথায় হারিস সোহেলকে ফিরিয়ে দেন মার্ক উড। উডের বলে উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টোর হাতে ক্যাচ দেন হারিস সোহেল। ৯৫ বলে ৫ চারে ৪৪ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে যান হারিস সোহেল।

তৃতীয় উইকেট জুটিটা টিকেনি বেশিক্ষণ। আসাদ শফিকের সঙ্গে ৩২ রান যোগ করার পরে বিদায় নেন আজহার আলি। ১৩৬ বলে ৫০ রান করে জেমস অ্যান্ডারসনের বলে এলবিডব্লিউ হন আজহার আলি। আজহারের ৫০ রানের ইনিংসে ছিল ৬ টি চার।

Also Read - টুইটারে রশিদ খানের বন্দনা

এরপর বাবর আজমকে নিয়ে হাল ধরেন আসাদ শফিক। দুজন মিলে গড়েন ৮৪ রানের জুটি। এ জুটিতেই ইংল্যান্ডের স্কোর টপকে যায় পাকিস্তান। হাতে তখনো সাতটি উইকেট। দুজনই দেখা পান অর্ধশতকের। টেস্ট ক্যারিয়ারের বিশতম অর্ধশতক হাঁকান আসাদ শফিক। ৫৯ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। আসাদ শফিককে ফিরিয়ে দিয়ে এ দীর্ঘ জুটি ভাঙেন বেন স্টোকস। থিতু হতে পারেননি পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ২৪ বলে ৯ রান করে হন বেন স্টোকসের দ্বিতীয় শিকার। স্টোকসের বলে উডের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন সরফরাজ।

পাকিস্তানকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন বাবর আজম। টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ অর্ধশতক পূর্ণ করে শতকের পথে এগিয়ে যাচ্ছিলেন এ ব্যাটসম্যান। কিন্তু বেন স্টোকসের বলে কব্জিতে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় বাবর আজমকে। ১২০ বলে ৬৮ রানের ইনিংস খেলে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে আছেন বাবর আজম। তার ইনিংসে রয়েছে ১০ টি চার।

বাবর আজম ফিরে গেলে ফাহিম আশরাফকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন শাদাব খান। কিছুটা আগ্রাসী ব্যাটিং করেন ফাহিম আশরাফ। দলীয় ৩১৮ রানের মাথায় ফাহিম আশরাফকে বোল্ড করেন জেমস অ্যান্ডারসন। সাত চারের সাহায্যে ৩৮ বলে ৩৭ রানের ইনিংস খেলেন ফাহিম আশরাফ।

টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতক হাঁকান শাদাব খান। ৬ চারে সাজানো ৮৫ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলে বেন স্টোকসের বলে আউট হন শাদাব খান। স্টোকসের বলে ধরা পড়েন উইকেটরক্ষক বেয়ারস্টোর গ্লাভসে।

শাদাবের বিদায়ের পরের ওভারে আঘাত হানেন জেমস অ্যান্ডারসন। বোল্ড করেন হাসান আলিকে। রানের খাতা খুলতে পারেননি হাসান আলি। দিনের বাকি সময় কাটিয়ে দেন মোহাম্মদ আব্বাস আর মোহাম্মদ আমির। মোহাম্মদ আমিরও ব্যাট হাতে দেখিয়েছেন দৃঢ়তার পরিচয়। খেলেছেন আস্থার সাথে। ৩ চারে ৩৬ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত আছেন মোহাম্মদ আমির।

দিনশেষে আট উইকেটে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৩৫০। ইংল্যান্ডের চেয়ে ১৬৬ রান এগিয়ে রয়েছে তারা। ইংল্যান্ডের হয়ে তিনটি করে উইকেট শিকার করেছেন দুই পেসার জেমস অ্যান্ডারসন এবং বেন স্টোকস। একটি করে উইকেট পেয়েছেন মার্ক উড এবং স্টুয়ার্ট ব্রড।

এর আগে প্রথম দিনে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট। মোহাম্মদ আব্বাস আর হাসান আলির বোলিং তোপে পড়ে মাত্র ১৮৪ রান করেই গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর, দ্বিতীয় দিনশেষে

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস ১৮৪/১০, ৫৮.২ ওভার
কুক ৭০, স্টোকস ৩৮, বেয়ারস্টো ২৭
আব্বাস ৪/২৩, হাসান আলি ৪/৫১

পাকিস্তান ১ম ইনিংস, ৩৫০/৮ ১১০ ওভার
হারিস ২১*, আজহার ১৮*, ইমাম-উল-হক ৪
স্টোকস ৩/৭৩, অ্যান্ডারসন ৩/৮২


আরো পড়ুন : রশিদ-সাকিবে ভর করে ফাইনালে হায়দরাবাদ


 

Related Articles

আফগানিস্তান সিরিজের জন্য আয়ারল্যান্ড স্কোয়াড ঘোষণা

জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়ালেন মুজারাবানি

ভারতের চেয়েও বেশি প্রস্তুত ছিল পাকিস্তান!

নিউজিল্যান্ডের নতুন কোচ গ্যারি স্টেড

অদ্ভুত রেকর্ড গড়লেন রশিদ