Scores

চায়ের আড্ডা থেকেই আইপিএল নিলামের ভাবনা

আইপিএল ক্রিকেটের ধারণাই পাল্টে দিয়েছে। ক্রিকেটকে যে এত জাঁকালোভাবে আয়োজন করা সম্ভব, এই ভাবনা কারও মাথায় ছিল না। এমনও বলা হয়, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে নিজ হাতে সাজিয়েছে এই আইপিএল। সেই আইপিএলের অন্যতম প্রধান আকর্ষণ খেলোয়াড়দের নিলাম।

চা খেতে খেতে উঠে আসে ক্রিকেটারদের নিলামে তোলার ভাবনা

বিশ্বের নামীদামী ক্রিকেটারদের ভিড় হয় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে। বিশ্বের সবচেয়ে জমজমাট লিগ এই আইপিএল- এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। কেউ কেউ তো একে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চেয়েও বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন।

Also Read - পর্ব ১: গিনেজ বিশ্বরেকর্ড সম্ভারে 'ক্রিকেট'






সেই আইপিএলের ম্যাচগুলোই শুধু নয়, সমর্থক ও দর্শকদের তুমুল আগ্রহ থাকে নিলাম নিয়েও। কোন ক্রিকেটার কোন দলে খেলবেন, কার দাম কত হবে, সবচেয়ে বেশি মূল্য পাবেন কে- এসব নিয়ে নিয়ে আকাশচুম্বী আগ্রহ থাকাটাই স্বাভাবিক। নিলামের এই যে প্রক্রিয়াটি ক্রিকেটকে করেছে আরও আকর্ষণীয়, সেই প্রক্রিয়া শুরুর ভাবনা এসেছিল চা খেতে খেতে!

আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের সেই চা আড্ডা শুরুর সময়ও হয়ত কেউ ভাবেননি, এখান থেকে বেরিয়ে আসবে কালজয়ী সিদ্ধান্তটি। আইপিএলের সাবেক প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা সুন্দর রমন সেদিনের মজার ঘটনা জানিয়ে বলেন, ‘একদিন সন্ধ্যার চায়ের আড্ডায় নিলামের ভাবনা আসে। আমরা তখন অনেক ব্যস্ত। ফ্র্যাঞ্চাইজি ভাগ হয়ে গেছে, কিন্তু খেলোয়াড়দের কীভাবে দলগুলোতে বিভক্ত করা হবে, তা খুব ভাবাচ্ছিল।’






ঐসময় একজন ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকের মাথায় আসে, চাইলে তো খেলোয়াড়দের নিলামের মত বিক্রির ব্যবস্থা করা যায়! যেই ভাবা সেই কাজ। প্রস্তাব তুললেন ঐ ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক, সেই প্রস্তাবে সায় দিলেন বাকি সবাই। আইপিএল দিয়ে শুরু হল খেলোয়াড়দের নিলামের প্রথা, যা পুরো ক্রীড়া বিশ্বকেই চমকে দিয়েছিল। পরবর্তীতে সবাই যে এই কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়েছে, তা তো স্পষ্ট অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের নিলাম ব্যবস্থাতেই।

সুন্দর রমন জানান, শচীন টেন্ডুলকার মুম্বাইয়ের হয়ে, বীরেন্দর শেবাগ দিল্লির হয়ে, যুবরাজ সিং পাঞ্জাবের এবং সৌরভ কলকাতার হয়ে খেলবে বলে ঠিক হয়ে গিয়েছিল। খেলোয়াড় ভাগ করার সমস্যা নিয়ে যখন দুশ্চিন্তায় ছিলাম, তখন ঠিক মনে নেই কে, তবে একজন ফ্র্যাঞ্চইজি মালিক বললেন- আমরা ক্রিকেটারদের নিয়ে নিলাম করছি না কেন? দুই মিনিট ভাবার পর আমি বললাম- ভালো পরামর্শ। কেনা-বেচা নিয়ে প্রচুর আগ্রহ তৈরি হবে। এভাবেই নিলামের ভাবনা বাস্তবায়িত হয়।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

আইপিএলে ফিজিও-ট্রেনারের গায়ে থাকবে পিপিই

রোহিতদের জন্য পুরো ভবনই ভাড়া নিবে মুম্বাই

স্পন্সর নিয়ে ভারতীয়রাই উপহাস করছে আইপিএলকে

খাবারও ভাগাভাগি করতে পারবেন না কোহলি-আনুশকারা

লোকসানের শঙ্কা নিয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে বিসিসিআই