‘চেষ্টা করে রিভার্স সুইং পেয়েছি’

টস হেরে বোলিং নিয়ে ব্যাটিং উইকেটে বেশ ভালোভাবেই নিজেকে মেলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন বাংলাদেশি পেসার তাসকিন আহমেদ। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে ভালো বোলিং করে নির্বাচকদের নজর কারেন। যার দরুন হায়দরাবাদে ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে দলে জায়গা করে নেন তিনি। আর নিজের প্রথম ওভারেই উইকেট তুলে নিতে সক্ষম হন এই ডান হাতি পেসার। তাছাড়া তার পেস এবং সুইংয়ের পাশপাশি বাউন্সারগুলোও ছিল চোখে দেখার মত।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে নিজের নতুন এক অভিজ্ঞতার কথাই জানালেন তাসকিন।  ‘আসলে এটা আমার জন্য নতুন এক অভিজ্ঞতা। বেশ ধৈর্যেরও ব্যাপার বলা চলে। অনেক ধৈর্য নিয়ে বল করতে হবে। এর সাথে যখন বলে সুইং থাকবে না তখন রিভার্স সুইং করানোর চেষ্টা করতে হবে। আমি চেষ্টা করছি এবং হয়েছেও রিভার্স সুইং।’

Also Read - করুণ নায়ারের দূর্ভাগ্য


ভারতে বিশ্বের সেরা দল আখ্যায়িত করে তাসকিন বলেন, ‘তারা বিশ্বের সেরা দল তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তারা খুব ভালো সামলে নিয়েছে।’

৩ উইকেটে ৩৫৬ রান নিয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ করে ভারত। বাউন্ডারি বল দিয়ে বিজয়-কোহলিদের কাজটা সহজ করে দেন বাংলাদেশের বোলাররা। তাসকিন বলেন, ‘পেস বোলার তো আমরা দুজনই আছি, বাউন্সার আমিও করেছি, কামরুলও করেছে। যেগুলো ততটা উঠেনি সেগুলো ওরা ভালো খেলেছে। লাঞ্চের পর শর্ট বল অনেক স্লো হয়ে গেছে। যার কারণে আরও সহজভাবে খেলতে পেরেছে ওরা। প্রথম দিকে আমি এবং কামরুল যে বাউন্সারগুলো করেছি সেগুলো ভালো ছিল। পরের দিকে স্লো হওয়ার কারণে হাফে পড়াগুলো বাউন্ডারি হয়েছে। শর্ট বলও আমাদের পরিকল্পনার মধ্যে ছিল। কিন্তু প্রয়োগটা আরও একটু ভাল হলে হয়তো আরও ভাল হতো।’

আরো পড়ুনঃ সুযোগ হাতছাড়া করার আক্ষেপ তাসকিনের

রুশাদ রাসেল,প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন