চোটাক্রান্ত তামিম-লিটনকে নিয়ে তাড়াহুড়া নেই বিসিবির

0
1232

তামিম ইকবাল প্রায় এক মাস ধরে একটি চোট বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছেন। সম্প্রতি চোট পেয়ে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয়েছে লিটন দাসকেও। তামিম ইতোমধ্যে দেশে ফিরে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করছেন।

চোটাক্রান্ত তামিম-লিটনকে নিয়ে তাড়াহুড়া নেই বিসিবির
তামিম ইকবাল ও লিটন দাস

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) খেলাকালীন চোট পেয়েছিলেন তামিম। প্রাথমিকভাবে সেই চোটে ডিপিএলের সুপার লিগ থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। তারপরে খেলা হয়নি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচেও। ওয়ানডেতে তামিম নিজেই অধিনায়ক তাই ঝুঁকি নিয়েই খেলেছেন ম্যাচ। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ না খেলেই ফিরে এসেছেন দেশে।

Advertisment

ওয়ানডে সিরিজ শেষে তামিম নিজেই জানিয়েছিলেন এখন বিশ্রামে না গেলে আরও লম্বা সময়ের জন্য মাঠের বাইরে চলে যেতে হতে পারে তাকে। অবশ্য এখন যে অবস্থা তাতেও প্রায় দেড় থেকে দুই মাস ব্যাট হাতে নামা হবে না তামিমের। এই ব্যাটসম্যানকে পুরোপুরি সুস্থ করার জন্য কোনো ঝুঁকি নিবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তাই তাড়াহুড়া করে তার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না।

তামিমকে পরবর্তী পরিকল্পনা ও তার সুস্থ হয়ে ওঠার ব্যাপারে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বিডিক্রিকটাইমকে বলেন,

‘তামিমকে রিহ্যাবের একটি পরিকল্পনা দেওয়া হয়েছে। ওটা ও আজ থেকে অনুসরণ করবে। প্রথম তিন সপ্তাহ হালকাভাবে এবং পরে আস্তে আস্তে তার প্রস্তুতি বাড়বে। ৬ থেকে ৮ সপ্তাহের যে বিশ্রামের পরামর্শ দেয়া হয়েছিল ওটা মেনেই আমরা মেডিক্যাল টিম পরিকল্পনা দিয়েছি। তবে আমরা তামিমের এ বিষয় নিয়ে কোনো তাড়াহুড়া করব না।’

জিম্বাবুয়ে সফরের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে চোট পান লিটন। তাই তার পরিস্থিতি সম্পর্কে এখনো পরিষ্কার কিছু বলা সম্ভব হয়নি দেবাশীষের পক্ষে। তবে লিটনকে নিয়েও কোনো ঝুঁকি নেওয়া হচ্ছে না। বর্তমানে তাকে রাখা হয়েছে বিশ্রামে।

দেবাশীষ বলেন, ‘ওর তো গত পরশু ইনজুরি হলো। বাম উরুতে চোট পেয়েছে। ও এখনো সেরে ওঠেনি। সুস্থ হয়ে উঠতে কয়দিন লাগবে সেটা এখনো আমরা নির্ধারণ করিনি। জিম্বাবুয়ের সাথে টি টোয়েন্টি শেষ হলে বলতে পারে। লিটন বিশ্রামে আছে আপাতত।’