SCORE

সর্বশেষ

‘চ্যালেঞ্জিং সিরিজ’ নিয়ে রিয়াদের ভাবনা

দরজায় কড়া নাড়ছে আরও একটি সিরিজ, তাই আরও জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষায় গোটা ক্রিকেট অঙ্গন। ক্রিকেটীয় শক্তিমত্তা, অভিজ্ঞতা, ইতিহাস কিংবা পরিসংখ্যানের দিক থেকে আফগানিস্তান বাংলাদেশের চেয়ে যোজন যোজন পিছিয়ে আছে। কিন্তু টেস্ট খেলুড়ে দুই দলের আসন্ন লড়াইটি এমন এক ফরম্যাটে, যেখানে বাংলাদেশ দল প্রত্যাশা অনুযায়ী ভালো করতে পারছে না অনেক চেষ্টা করেও, আর আফগানরা প্রদর্শন করছে প্রত্যাশার চেয়েও ভালো পারফরম্যান্স।

'চ্যালেঞ্জিং সিরিজ' নিয়ে রিয়াদের ভাবনা

ভারতের দেরাদুনে সেই কাঙ্ক্ষিত লড়াই শুরু হবে আগামী ৩ জুন। তিন ম্যাচের সিরিজে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনাকে একটু হলেও হুমকির মুখে ফেলছে র‍্যাংকিংয়ের টেবিল। টি-২০ র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ যেখানে ১০ম, আফগানিস্তান যে দুই ধাপ এগিয়ে ৮ম!

Also Read - কোহলি নাকি স্মিথ? অ্যান্ডারসনের চোখে কে সেরা?

তবে সবকিছু মাথায় রেখে অতি স্বাভাবিকভাবেই এই সিরিজে ভালো করার বীজ বপন করছেন বাংলাদেশ দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আফগানিস্তান সিরিজ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে রোববার নিদাহাস ট্রফির অর্ধেক অংশে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া রিয়াদ বলেন, ‘আসলে আমি এই জিনিসটা খুব স্বাভাবিকভাবে নিই। র‌্যাঙ্কিংয়ের কথাই ধরি, র‌্যাঙ্কিংয়ে ওরা আট নম্বর, আমরা দশ নম্বর। আমি চ্যালেঞ্জটা যেভাবে দেখি, প্রতিটি টি-২০ ম্যাচ আমরা যখন খেলি, ওটা আমাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ।’

টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশ পিছিয়ে আছে, এটি নয় কোনো মিথ্যা বিবৃতি। তবে বাংলাদেশ দলের সর্বশেষ আন্তর্জাতিক মিশন নিদাহাস ট্রফিতে টাইগারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পর সেই ‘পিছিয়ে থাকা’টা আর আগের জায়গায় নেই, উত্থান ঘটেছে একটু হলেও। সেদিকে ইঙ্গিত করে রিয়াদ জানালেন, দিনকে দিন নিজেদের উন্নতির কথা। সেই সাথে প্রত্যাশা ব্যক্ত করলেন আশাব্যঞ্জক ফলাফলেরও। তার মতে, টি-২০ ফরম্যাটে বাংলাদেশের সামনে থাকা ‘প্রশ্নবোধক চিহ্ন’টা এখন আর নেই!

রিয়াদ জানান, ‘কিছুদিন আগেও আমাদের সামনে একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন ছিল। এখন ওটা আমাদের সামনে থেকে সরে গেছে। প্রতিদিনই আমরা উন্নতি করছি।’

আফগানিস্তান সিরিজ শেষেই উইন্ডিজে পূর্ণাঙ্গ সিরিজের সফর। সেখানে জ্বালানী হয়ে কাজে দিতে পারে আফগানিস্তান সিরিজের প্রত্যাশিত সাফল্য। রিয়াদের ভাষ্য, ‘এই সিরিজটি আরও একটা সুযোগ, প্রতিটি ম্যাচ জেতার। এই সিরিজটা জিততে পারলে, পরবর্তী সব সিরিজের জন্য দারুণ সুযোগ তৈরি হবে।’

টি-২০ ক্রিকেট বলে এখানে ভিন্ন দর্শন এনে মাথা ঘামাচ্ছেন না রিয়াদ। দলের মতো তারও একই কথা- ফরম্যাট যাই হোক; ফল হওয়া চাই ভালো। রিয়াদ বলেন, ‘কোর্টনি (ওয়ালশ) একটু আগে বললেন, আমরা যে সংস্করণের ক্রিকেটই খেলি না কেন, সব ম্যাচই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিটি ম্যাচই আমাদের বুস্টআপ করবে পরের স্টেপে যাওয়ার ক্ষেত্রে।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই টি-২০ সিরিজকে সামনে রেখে বাংলাদেশ দলের প্রেরণা হতে পারে নিদাহাস ট্রফির সাফল্য। শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ঐ ত্রিদেশীয় সিরিজে লঙ্কানদের দুই ম্যাচেই হারিয়েছিল বাংলাদেশ, তাও লড়াকু পারফরম্যান্স করে। ফাইনালে ভারতকেও আরেকটু হলে পরাজয়ের স্বাদ দিতে পারত টাইগাররা। ঐ সিরিজে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে নিজেদের শক্তি ও সামর্থ্যেরও জানান দিয়েছে। তবে রিয়াদ সেই সাফল্যকে পুঁজি না করে সামনে তাকাচ্ছেন নতুন উদ্যম নিয়ে।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘সত্য কথা হচ্ছে নিদাহাস ট্রফির কথা এখন আর চিন্তাও করছি না। ওই সময়টা চলে গেছে। আমার জন্য যেটা করণীয় দলের জন্য পরামর্শ দেওয়া, প্রতিটি খেলোয়াড়কে উজ্জীবিত করা এবং চেষ্টা করা আমরা সবাই মিলে কিভাবে ভালো পারফরম্যান্স করতে পারি।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই সিরিজটি যে বাংলাদেশের জন্য সহজ হতে যাচ্ছে না, সেটি উপলব্ধি করছেন রিয়াদও। তার মতে, সিরিজ জিততে হলে বাংলাদেশকে প্রদর্শন করতে হবে ভালো পারফরম্যান্স। রিয়াদের ভাষ্য, ‘টিম ম্যানেজমেন্টের সবাই মিলে কাজ করছে। এই সিরিজটি অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। খুব একটা সহজ হবে না। আমাদের খুব ভালো ক্রিকেট খেলেই সিরিজটা জিততে হবে। এটাই এই মুহূর্তে সত্য।’

আরও পড়ুনঃ শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মাঠে নামছে চেন্নাই-হায়দরাবাদ

Related Articles

এবার দাতব্য কাজে মন দিলেন রশিদ খান

আসগর স্টানিকজাই থেকে আসগর আফগান

ক্রিকেটের ৯০ শতাংশ দর্শকই উপমহাদেশের!

স্ট্রাইকিং প্রান্তে শুরু করতেই ভালোবাসেন তামিম

“খেলায় আপস অ্যান্ড ডাউনস থাকবেই”