Scores

জহুরুলের ব্যাটে চড়ে মোহামেডানকে হারাল আবাহনী

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) এ দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী লিমিটেড ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে ম্যাচে ৬ উইকেট হাতে রেখেই জিতেছে আবাহনী। ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি থেকে ৪ রান দূরে, ৯৬ করে আউট হয়েছেন জহুরুল ইসলাম।

বাংলাদেশে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর নাম আবাহনী ও মোহামেডান। এবার সেটি ক্রিকেট হোক, ফুটবক হোক কিংবা হকি। এই দুই দলের লড়াইয়ের অন্যরকম মজাই রয়েছে। আছে মর্যাদার লড়াই। আর সেই মর্যাদার লড়াইয়ে মোহামেডানের বিপক্ষে মাঠে নামে আবাহনী লিমিটেড। তারকায় ঠাসা আবাহনী মাঠে নামে লিটন, আশরাফুল, রকিবুলদের বিপক্ষে। টস জিতে আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন আবাহনী অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন।

Also Read - টি-২০ র‍্যাঙ্কিংয়ে প্রোটিয়াদের উত্থান


ব্যাটিংয়ের শুরুটা মোটামুটি ভালো করেন মোহামেডানের দুই ওপেনার লিটন কুমার দাস ও আব্দুল মজিদ। নিউজিল্যান্ড সফর শেষে কয়েকদিন বিশ্রামে থাকার পর মাঠে নেমেছেন লিটন। অবশ্য ডিপিএলেও রানে ফিরতে পারেননি লিটন। ২৭ রান করে নাজমুলের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন লিটন। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আসে ৪৭ রান। দলীয় ৮৭ রানে মোসাদ্দেকের বলে আউট হন আব্দুল মজিদ।

মোহামেডানের রানের সংগ্রহটা বড় করেন রকিবুল ও ইরফান শুক্কুর। দুইজন মিলে যোগ করেন ৬৮ রান। ব্যক্তিগত ৫৭ করে আউট হন ইরফান। ফিফটি হাঁকান দলের অধিনায়ক রকিবুলও। ৫১ করে আউট হন রকিবুল। শেষদিকে সিলভার ৩২ ও সোহাগের ২৭ রানে ভর করে ২৪৮ রান সংগ্রহ করে মোহামেডান। আবাহনীর হয়ে তিনটি করে উইকেট পান সাইফউদ্দিন ও নাজমুল।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে আবাহনীকে দারুণ শুরু এনে দেন দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও জহুরুল ইসলাম। দুই ওপেনার মিলে দলীয় সংগ্রহ যোগ করে ১০৫ রান। এই দুই ব্যাটসম্যানের জুটি ভাঙেন শাহদাত হোসেন। ৪৩ করে বোল্ড হন সৌম্য। অবশ্য মোহামেডানের বোলাররা ম্যাচটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিতেই পারেনি। ম্যাচটি একপেশে করে নিয়েছেন আবাহনীর ব্যাটসম্যানরা।

মোহামেডান বোলারদের উপরে চেপে বসে জহুরুল ও ওয়াসিম জাফর। দুইজন মিলে যোগ করেন ৬৯ রান। জাফর, শান্ত আউট হলেও ততক্ষণে ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণেই নিয়ে গিয়েছিল আবাহনী। তবে সেঞ্চুরি থেকে মাত্র চার রান দূরে থেকে সাজঘরে ফিরে যেতে হয় জহুরুলকে। শাহদাতের বলে বোল্ড হন জহুরুল। শেষ পর্যন্ত মোসাদ্দেকের অপরাজিত ১৮ ও সাব্বিরের অপরাজিত ২১ রানে ৬ উইকেটের জয় পায় আবাহনী।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মোহামেডান ২৪৮-৭ (ওভার ৫০)

শুক্কুর ৫৭, রকিবুল ৫১, আশরাফুল ৪, লিটন ২৭: নাজমুল ৩-২৯

আবাহনী ২৫৪-৪ (ওভার ৪৭.৩)

জহুরুল ৯৬, সৌম্য ৪৩, জাফর ৩৮ঃ শাহদাত ২-৫৯

আরও পড়ুনঃ টি-২০ র‍্যাঙ্কিংয়ে প্রোটিয়াদের উত্থান

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

সৌম্যকে যেভাবে সাহায্য করেছেন জাফর

ওয়াসিম জাফরের পরামর্শ কাজে লাগানোর প্রত্যাশা

তাণ্ডবের আগে ‘নার্ভাস’ ছিলেন সৌম্য

গর্বিত ‘অধিনায়ক মোসাদ্দেক’, কৃতিত্ব মাশরাফিকে

শেখ জামালকে উড়িয়ে আবাহনী চ্যাম্পিয়ন