Scores

জাকির-আফিফকে নিয়ে হতাশ নান্নু, ভাবনায় আছেন মেহেদি

বছরের শুরুতে দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে অভিষেক হয়েছিল ছয় জনের।  এর মধ্যে আরিফুল হক, নাজমুল ইসলাম অপু এবং আবু জায়েদকে এরপরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা গেলেও দেখা যায়নি জাকির হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব এবং মেহেদি হাসানকে। জাকির হাসান ও আফিফ হোসেন ধুরবকে নিয়ে আশার পারদ উঁচুতে থাকলেও প্রতিদান দিতে তারা ব্যর্থ হয়েছেন বলে মনে করেন নির্বাচক মিনহাজুল ইসলাম আবেদীন নান্নু।

জাকির-আফিফে হতাশ নান্নু, ভাবনায় আছেন মেহেদি

বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন ধ্রুব বোলিংয়েও কার্যকরী। বিপিএলে রাজশাহী কিংস্রে হয়ে পাঁচ উইকেত শিকার করে আলোচনায় আসেন আফিফ হোসেন ধ্রুব। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে এবং ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে পারফর্ম করে জায়গা করে নেন জাতীয় দলে।

Also Read - আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ 'পাঁচ' বাংলাদেশি


জাকির হাসানও বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। পাশাপাশি করে থাকেন উইকেটকিপিং। বিপিএলে অফস্পিন করে নজর কাড়া মেহেদি হাসানের রয়েছে ব্যাটিংয়ের সামর্থ্যটাও। এই তিন তরুণের মধ্যে জাকির হাসান ও আফিফ হোসেন ধ্রুব হতাশ করেছেন নির্বাচক মিনহাজুল ইসলাম আবেদীন নান্নুকে। এখনো বিবেচনার বাইরে যাননি মেহেদি হাসান।

জাকির হাসান ও আফিফ হোসেন ধ্রুবকে নিয়ে ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোকে মিনহাজুল ইসলাম বলেন,
 “সত্যি বলতে জাকির ও আফিফ নিয়ে আমাদের উচ্চ আশা ছিল কিন্তু তারা পুরোপুরি হতাশ করেছে। তারা তাদের স্কিল বাড়াতে পারেনি। আফিফ এবং জাকির ঘরোয়া ক্রিকেট ও ইমার্জিং কাপেও ভালো করতে পারেনি।” 

স্পিনার মেহেদি হাসানকে নিয়ে বলেন, “সে আমাদের চিন্তার বাইরে নয়। মেহেদি হাসান মিরাজ এখন তিন ফরম্যাটে খেলেছে। টেস্টে নাঈম হাসান তার ক্যারিয়ারের দুর্দান্ত শুরু করেছে। আমরা নাঈমকে মিরাজের বিকল্প হিসেবে ভাবছি। কিন্তু আমাদের রাডারের মধ্যে থাকা অফস্পিনারের মধ্যে মেহেদি অন্যতম।”

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১৯ বছর বয়সী আফিফ হোসেনের শতক চারটি। এর মধ্যে দুইটি হাঁকান টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পর। তবে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দল ও আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে ৬ ইনিংসে ৬৪ রান করতে সক্ষম হন তিনি। ইমার্জিং কাপে আফিফ চার ইনিংস মিলিয়ে করেন ৫৮ রান। সর্বোচ্চ ২০। এছাড়া এবারের বিসিএলে ইস্ট জোনের হয়ে দুই ইনিংসে করেন ২৬ রান। এবারের এনসিএলেও ছিলেন বিবর্ণ। ৫ ম্যাচে ১৭.৮৭ গড়ে আফিফ হোসেন করেছেন ১৪৩ রান। বোলিংয়ে পেয়েছেন নয় উইকেট।

নিজের খেলা একমাত্র আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে বিদায় নিয়েছিলেন ০ রান করে। বোলিংয়ে দুই ওভারে রান দেন ২৬। শিকার করেন এক উইকেট।

২০ বছর বয়সী জাকির হাসান ইমার্জিং কাপে চার ইনিংসে করেছেন ১২২ রান। খেলেছেন ৬৯ রানের একটি ইনিংস। এর আগে ইস্ট জোনের হয়ে দুই ইনিংসে করেন ৬। বিসিবি একাদশের হয়ে উইন্ডিজদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যচে করেন ১৮ রান। এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে ৫ ম্যাচে৩৮.৫৭ গড়ে ২৭০ রান করেছেন জাকির। অভিষেক টি-২০ তে ৯ বলে ১০ রান করে বোল্ড হয়েছিলেন জাকির হাসান।

তুলনা করলে মেহেদি হাসানের পরিসংখ্যানের চিত্রটা একটু ভালো। ২৪ বছর বয়সী মেহেদি হাসান অভিষেকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ওভার বোলিং করে রান দেন ২৫। ব্যাট হাতে ১১ বলে ১১ রান। এবারের বিসিএলে চার ম্যাচে সাত ইনিংস বোলিং করে ১৬ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। ব্যাট হাতে ৭ ইনিংসে করেছেন ৩২২ রান। অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন তিনটি। তিন ইনিংসে অপরাজি থাকা মেহেদি হাসানের গড় ৮০.৫। তবে আর আগে জাতীয় লিগটা ভালো কাটেনি মেহেদি হাসানের। ১৭.৩৭ গড়ে করেছেন ১৩৯ রান। বল হাতে নিয়েছেন ছয় উইকেট।

তবে বাকি তিন অভিষিক্ত অবশ্য কিছুটা থিতু হয়ে গিয়েছেন। এরপর টেস্ট ও ওয়ানডেতেও অভিষেক হয়েছে আরিফুল হকের। এ বছরের সবগুলো টি-২০ ম্যাচেই দলে দেখা গিয়েছে নাজমুল ইসলাম অপুকে। আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীকে দেখা গিয়েছে টেস্ট দলে।


আরো পড়ুনঃ বিজয় দিবসের ম্যাচে নান্নুদের শহীদ মুশতাক একাদশের জয়


 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

খুলনা নয়, সিলেটের হয়ে খেলবেন আফিফ

প্রস্তুতি ম্যাচে অসহায় আত্মসমর্পণ মুশফিক-সাব্বিরদের

আফিফের বোলিংয়ে দিশেহারা জিম্বাবুয়ে

প্রথম ইনিংসে ভালো সংগ্রহ পেয়েছে বাংলাদেশ

লঙ্কানদের বিপক্ষে শান্ত’র দুর্দান্ত সেঞ্চুরি