SCORE

সর্বশেষ

জাতীয় দলের কোচ হওয়ার সামর্থ্য নেই সালাউদ্দিনের!

বেশ কয়েকদিন হয়ে গেল, বাংলাদেশ দলের নেই কোনো প্রধান কোচ। ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কা সিরিজে সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসলই ছিলেন প্রধান কোচ, যদিও কোচিংয়ের ক্ষেত্রে তারও বেশি ক্ষমতা ছিল ঐ সিরিজগুলোর টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনের।

জাতীয় দলের কোচ হওয়ার সামর্থ্য নেই সালাউদ্দিনের!

শ্রীলঙ্কা সিরিজের আগে বলা হয়েছিল, নিদাহাস ট্রফির আগেই চলে আসবেন টাইগারদের নতুন কোচ। তবে এখন আর সেই সম্ভাবনা নেই। খালেদ মাহমুদ সুজনের সাথে ঠিক বনিবনা হচ্ছে না ম্যানেজমেন্টের, আর রিচার্ড হ্যালসল আছেন ছুটিতে। তাই পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকেই নিদাহাস ট্রফির অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

Also Read - দ্রুত দল থেকে বাদ দেওয়ার বিরোধী সালাউদ্দিন

কোচ নিয়ে এমন টানাহেঁচড়ায় দেশের ক্রিকেট অঙ্গনে ঘুরপাক খাচ্ছে একটি প্রশ্ন- দীর্ঘদিন ধরে দেশের ক্রিকেটে কাজ করা কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন কি হতে পারতেন না বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ? দেশের ক্রিকেটের উত্থানের পেছনে জড়িয়ে থাকা এই কোচকেই তো বলা হয় দেশের সেরা কোচ!

এমন প্রশ্ন বুধবার সাংবাদিকরা ছুঁড়ে দিলেন খোদ সালাউদ্দিনের দিকেই। সেখানে অধিক বিনয়ী সালাউদ্দিনের দাবি, জাতীয় দলের কোচ হওয়ার সামর্থ্যই নাকি নেই তার!

সালাউদ্দিন বলেন, ‘আসলে আমার মনে হয়, আমার ওই সামর্থ্যও নাই, অত গুণাবলীও নাই জাতীয় দলের কোচ হওয়ার মতো। আমি সত্যিই বলছি যে, আমাকে ওই জায়গায় যেতে হলে আরও বেশি পরিশ্রম করতে হবে, আরও অনেক কিছু শিখতে হবে, জানতে হবে।’

জাতীয় দলের কোচ হতে হলে কোচ হিসেবে নিজের দক্ষতা আরও বাড়ানো প্রয়োজন বলে মনে করছেন তিনি। সাংবাদিকদের সালাউদ্দিন বলেন, ‘নিজের দক্ষতাও বাড়াতে হবে। আমার নিজের উন্নতির জন্যে অনেক কিছু করতে হবে।’

তবে এখন এ নিয়ে না ভাবলেও আরও ৫-১০ বছর পর টাইগারদের কোচ হওয়ার মতো অবস্থা আসতে পারে বলে অভিমত তার। তিনি বলেন, ‘আমি হয়তো আরও ৫-১০ বছর পর এসব নিয়ে চিন্তা করতে পারি। কিন্তু এই মুহূর্তে বাংলাদেশ দলের কোচ হওয়ার মতো সামর্থ্য আমার নেই।’

আরও পড়ুনঃ ‘বাংলাদেশ এখন নির্ভীক ক্রিকেট খেলে’

Related Articles

“সিরিজটি অনেক স্মরণীয় হয়ে থাকবে”

ওয়ালশের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন পেসাররা

জ্যামাইকায়ও থাকবে সবুজ উইকেট!

মুস্তাফিজের ইনজুরি নিয়ে ওয়ালশের বক্তব্য

“আমরা এখনও শক্তিশালী দল”