Scores

জাতীয় দলের কোচ হতে চান বুলবুল

বাংলাদেশের ক্রিকেট তারুণ্য পেরিয়ে এখন যেন টগবগে যুবক। বিশ্বের যেকোনো দলকে হারানোর সক্ষমতা টাইগারদের আছে। তবে একটি বিষয়ে এখনো বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের আক্ষেপ- এখনো প্রধান কোচ হিসেবে দেশের কাউকে পাননি সাকিব-তামিমরা।

বাংলাদেশি হাই প্রোফাইল কোচ নেই, ব্যাপারটা এমনও নয়। মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, সারোয়ার ইমরানরা দীর্ঘ সময় ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে শ্রম বিলিয়ে যাচ্ছেন। আছেন দেশের ক্রিকেটের কিংবদন্তী আমিনুল ইসলাম বুলবুলও, যিনি দেশে মূল্যায়ন না পেলেও এসিসি ও আইসিসির হয়ে নিজের ক্রিকেট জ্ঞান কাজে লাগাচ্ছেন প্রতিনিয়ত।

Also Read - করোনা আক্রান্ত দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার






সম্প্রতি ক্রীড়া সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদের সাথে আলাপকালে বুলবুল জানান, সুযোগ পেলে তিনি বাংলাদেশে কাজ করতে চান।

আক্ষেপ নিয়ে বুলবুল বলেন, ‘সিডনিতে থাকাকালে ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলসের হেড কোচ ছিলাম। ইনডোরে স্পেশালাইজড ব্যাটিং কোচ ছিলাম। আমার পরিবার সিডনিতে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিল। হঠাৎ করে একদিন সন্ধ্যেবেলা মনে হল- কী লাভ এখানে কোচিং করিয়ে। কেন আমি বাংলাদেশে ফিরে গিয়ে দেশের জন্য কাজ করছি না। এরপর সবকিছু ছেড়ে বাংলাদেশে চলে গিয়েছিলাম। ১৬ মাস সেখানে ছিলাম, কোনো চাকরিবাকরি পাইনি।’






দেশে এসে বুলবুল কোচিং করিয়েছেন আবাহনী ক্রীড়া চক্র ও অ্যাকমি ল্যাবরেটরিজকে। তার দৃষ্টিতে যা দেশে কোচ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার ‘সিঁড়ি’। আন্তর্জাতিক পরিসরে নিজেকে মেলে ধরলেও বুলবুলের মন পড়ে থাকে দেশে। তিনি বলেন, ‘যাই করি না কেন, ঘুরেফিরে দেশে যাওয়ার চিন্তা করি। দেশের জন্য কিছু করার চেষ্টা করি। দেশটাই আসলে সবকিছু।’

বুলবুল মনে করেন, তার ক্রিকেট জ্ঞান পেলে উপকৃত হবে এদেশের ক্রিকেট, ‘আমি একজন পেশাদার ক্রিকেটের লোক। খেলোয়াড়ি জীবনের পরও খেলা পেশা হয়ে যাওয়ার কারণে আমি ভাগ্যবান। বলছি না ক্রিকেট সম্পর্কে আমি অনেক জানি। যেহেতু একটা সেক্টরের সাথে বহু বছর ধরে লেগে আছি, অনেকটাই জানা হয়ে গেছে। যারা ভবিষ্যতে খেলবে বা এখন খেলছে তাদের সাথে সেই জ্ঞান ভাগাভাগি করা গুরুত্বপূর্ণ।’

আর তাই বিসিবির প্রস্তাবের অপেক্ষায় দেশের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান ও বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আমার ইচ্ছা-অনিচ্ছার কিছু নেই। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একটা সংস্থা, একটা কর্পোরেট বডি। বিশাল টিম নিয়ে কাজ করে। তারা যদি আমার যোগ্যতা দিয়ে মনে করে সে যথেষ্ট ভালো বা আবেদন করতে পারে, সেটা এক ধরনের ব্যাপার। আরেকটা ব্যাপার হল- বাংলাদেশের ক্রিকেটার বা ক্রিকেট অধিনায়ক হিসেবে তার অগ্রাধিকার পাওয়া উচিৎ।’

ক্রিকেটারদের উন্নতির জন্য কেন স্বদেশী কোচ উত্তম, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন বুলবুল। তিনি জানান, ‘আমরা যেভাবে বড় হই, যেভাবে বাসায় চলি, বন্ধুদের সাথে কথা বলি; কোচিং সেভাবেই হওয়া উচিৎ। আপনি হঠাৎ করে নতুন কোচিং সিস্টেম আনলেন, যেটা আমরা জানিই না। সংস্কৃতিও একটা বড় ব্যাপার। এই জায়গায় আমি সবার চেয়ে এগিয়ে থাকব। টপ লেভেলে কোচিংয়ে মূল ব্যাপারই ব্যবস্থাপনা। মূল ব্যাপারগুলো ভালো করে বোঝানো সম্ভব নিজের ভাষাতেই। আমরা শুধু পারফরম্যান্স নিয়ে ব্যস্ত থাকি। ক্রিকেট মানে শুধু পারফরম্যান্স না। ক্রিকেট একটা প্রতিষ্ঠিত ব্র্যান্ড। শুধু কোচিং না, যেকোনো কাজেই যদি আসতে পারি আমি খুব খুশিই হবো। সবকিছু মিলে যদি মনে করে যোগ্য, তারা আমাকে প্রস্তাব দিতে পারে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

Related Articles

আইসিসির মাসসেরার মনোনয়ন পেয়ে আলোচনায় নেপালের কুশল

ভারতে অনুষ্ঠিত না হলেও বিশ্বকাপ ছাড়বে না বিসিসিআই

পিচের কারণে ডিমেরিট পয়েন্ট পেল পাল্লেকেলে

কমনওয়েলথ গেমসে কোয়ালিফাই করল ‘৭’ দল

নিষিদ্ধ হলেন আরব আমিরাতের আরেক ক্রিকেটার