‘জোর দিতে চেয়েছি টিম স্পিরিটের ওপর’

0
857

বিপিএল শুরুর আগে নবাগত দল সিলেট সিক্সার্সকে নিয়ে বাজি ধরার লোক খুব কমই ছিলেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত বিপিএলের সবচেয়ে সফল দল সিলেট অঞ্চলের প্রতিনিধিত্বকারী ফ্র্যাঞ্চাইজিটিই। সিলেট পর্বে ঘরের মাঠে চারটি ম্যাচে মাঠে নেমে সিলেট জিতেছে তিন ম্যাচেই।

'জোর দিতে চেয়েছি টিম স্পিরিটের ওপর'

Advertisment

সম্প্রতি দেশের শীর্ষস্থানীয় জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠর সাথে আলাপকালে দলের অন্যতম প্রধান অস্ত্র নুরুল হাসান সোহান জানান, খুব বেশি শক্তিশালী না হলেও টিম স্পিরিটে বেশ জোর দিয়েছেন তারা।

সোহান বলেন, ‘অন্যরা হয়তো ভাবেননি, তবে আমরা ঠিকই ভেবেছি। সত্যি বলতে কী, কাগজ-কলমে আমাদের দলের চেয়ে ভালো দল বিপিএলে রয়েছে। আমরা তাই জোর দিতে চেয়েছি টিম স্পিরিটের ওপর। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকে জানতাম, টিম স্পিরিট দিয়ে অনেক কিছু করা সম্ভব। সেটি এখন পর্যন্ত করে দেখাতে পেরেছি। দুই বিদেশি ওপেনার উপুল থারাঙ্গা ও আন্দ্রে ফ্লেচারের ব্যাটিং আমাদের কাজ সহজ করে দিচ্ছে অনেকটা।’

সিলেটে নিজেদের পক্ষের দর্শকদের সামনে খেলতে একটু হলেও স্বাচ্ছন্দ্য ছিল সিক্সার্স। ঢাকা পর্বে চ্যালেঞ্জটা নিশ্চয়ই বেশি? এমন প্রশ্নের জবাবে উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান বলেন, ‘অবশ্যই। এখানে উইকেট আলাদা। সিলেটে বেশ ভালো উইকেটে খেলেছি আমরা। ঢাকায় কেমন উইকেট হবে, কে জানে! ব্যাটিংটা আরো কঠিন হতে পারে। সে দিক থেকে বিবেচনা করলে অন্য রকম চ্যালেঞ্জ।’

দর্শক-সমর্থকের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এর ভালো দিক আছে, খারাপ দিকও আছে। সিলেটে যেমন জানতাম যে, সবাই আমাদের সমর্থন করবে। তাতে জেতার জন্য বাড়তি একটা চাপ কিন্তু চলে আসে। না চাইলেও চলে আসে। ঢাকায় সে ব্যাপার হবে না। এখানে অন্য দলগুলোর সমর্থন যেমন থাকবে, আমাদেরও তেমন। তাতে করে চাপ না নিয়ে খেলা যাবে। তাতে নিজেদের খেলা আরো ভালোও হতে পারে।’

বিপিএল শুরুর আগে নিজের ব্যাটিং নিয়ে পরিকল্পনা ছিল কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সোহান বলেন, ‘ওই রকমভাবে না এবার একাদশে বিদেশি খেলোয়াড় একজন বেড়ে গেছে তাতে করে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের খেলার জায়গা একটু হলেও কমেছে আমি যে জায়গায় ব্যাটিং করতে চাই, সেখানে এখন পারব না কারণ বিদেশি ক্রিকেটার রয়েছে তবে নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই যতটুকু সুযোগ পাই, তা কাজে লাগিয়ে দলের জয়ে অবদান রাখতে পারলেই খুশি।’

আরও পড়ুনঃ রান না দিয়েই দশ উইকেট