Scores

টাইগারদের ঢাকায় পা রাখার সময়

গতকাল নিউজিল্যান্ডে সন্ত্রাসী হামলার পর থেকেই দেশে ফেরার ক্ষণ গুনছে মুশফিক-রিয়াদরা। আজ বাংলাদেশ সময় ভোর পাঁচটায় দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় তারা। রাতে এসে দেশের মাটিতে নামার কথা রয়েছে।

 

ট্রমা কাটাতে সময় লাগবে তামিম

Also Read - ক্রিকেটাররা রক্ষা পাওয়ায় শুকরিয়া জানালেন প্রধানমন্ত্রী


বাংলাদেশ দল দেশে ফিরছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে। ভোর পাঁচটার ক্রাইস্টচার্চের বিমানবন্দর থেকে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসে করে নিউজিল্যান্ড ত্যাগ করে টাইগাররা। দেশে ফেরার পথে সিঙ্গাপুরে ৫ ঘণ্টা যাত্রা বিরতি দেবে তারা। এরপর বাংলাদেশ সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটে ঢাকায় পা রাখবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

এর আগে দেশে ফেরা নিয়ে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলট সংবাদমাধ্যমের বলেন, ‘শনিবার দুপুর ১২টায় (বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টা) আমরা রওনা দেব। আশা করি, ঢাকায় পৌঁছাব রাত ১০টা ৪০ মিনিটে।’

তবে কোচিং স্টাফদের সবাই এখনই বাংলাদেশে ফিরছেন না। আগামী মে মাসের আগে আর খেলা নেই জাতীয় দলের। তবে অনুশীলন শুরু হবে এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে। এখন ক্রিকেটাররা ব্যস্ত থাকবে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে।

কোচিং স্টাফদের নিয়ে খালেদ মাসুদ পাইলট বলেছেন, ‘আমরা ১৯ জন ফিরব। কোচিং স্টাফের কেউ ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাবে, কেউ হয়তো দক্ষিণ আফ্রিকায়। তারা দ্রুতই টিকিট পেয়ে যাবে।’

বাংলাদেশ গতকালই দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিতে চেয়েছিল। কিন্তু টিকেট ও ফ্লাইট জটিলতার কারণে উৎকণ্ঠা নিয়ে আরো একদিন নিউজিল্যান্ডেই অবস্থান করতে হয় মুশফিকদের।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড জানায়, পুরো দলের টিকিট পেতে প্রথমে সমস্যা হয়েছিল। তবে পরে সবার টিকিটের ব্যবস্থা হয়ে গেছে এবং সবাই একসাথে দেশে ফিরছেন।

গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানান যে এরপর থেকে যেকোনো সফরে যাওয়ার আগেই বিসিবির প্রথম শর্ত থাকবে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা। যে দেশ সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে তবেই পরবর্তী কোনো সফরে পাঠানো হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে।

[আরও পড়ুনঃ শচীনের শতকের শতক ও মুশফিক-সাকিবদের জয়]

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

বিশ্বকাপে টাইগারদের অভিভাবক সুজন

টাইগারদের নিউজিল্যান্ড থেকে দেশে ফেরার দিনক্ষণ চূড়ান্ত

খালেদ মাসুদ পাইলটের মুখে সেই ভয়াবহ ঘটনার বর্ণনা

মুশফিক ক্রাইস্টচার্চে ফিরবেন: খালেদ মাসুদ

পাইলটই হচ্ছেন নিউজিল্যান্ড সফরের ম্যানেজার