Scores

উইন্ডিজকে হারানোয় রেটিং বাড়ল বাংলাদেশের

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী আহমেদ স্টেডিয়ামে সফরকারী উইন্ডিজকে সিরিজের প্রথম টেস্টে ৬৪ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এ জয়ের ফলে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে রেটিংও বেড়েছে টাইগারদের।

‘গেম সেন্স’ বাড়ানোয় অধিনায়কের তাগিদ

সিরিজের প্রথম টেস্টে সফরকারীদের বিপক্ষে দাপুটে জয় তুলে নিয়ে নিজেদের নামের পাশে ৩ রেটিং পয়েন্ট যুক্ত করেছে সাকিব আল হাসান ও তার সতীর্থরা। ৬১ রেটিং নিয়ে সিরিজ শুরু করা বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জেতায় রেটিং বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩ পয়েন্টে।

Also Read - হারিয়ে না যাক নাঈম হাসান


পক্ষান্তরে, র‍্যাঙ্কিংয়ে নিচের অবস্থানে থাকা বাংলাদেশের বিপক্ষে হেরে রেটিং পয়েন্ট হারিয়েছে সফরকারী উইন্ডিজ। ৭৬ রেটিং নিয়ে সিরিজ শুরু করা ক্যারিবীয়ানদের প্রথম টেস্টে হারের পর রেটিং পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৭২ পয়েন্টে।

রেটিং পয়েন্টে পরিবর্তন আসলেও আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে পরিবর্তন আসেনি কোনো দলের অবস্থানেই।

বর্তমানে ১১৬ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানে অবস্থান ভারতের। তাদের চেয়ে ১০ পয়েন্ট কম নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাকিলার তিনে ইংল্যান্ড, চারে নিউজিল্যান্ড ও পাঁচে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তানের চেয়ে মাত্র ২ রেটিংয়ে এগিয়ে থেকে তালিয়ার ষষ্ঠ অবস্থানে নিজেদের ধরে রেখেছে শ্রীলঙ্কা। এরপরের দুই অবস্থান অর্থাৎ আট ও নয় নম্বরস্থানে রয়েছে উইন্ডিজ ও বাংলাদেশ। তালিকায় সবার তলানিতে রয়েছে জিম্বাবুয়ে।

এক নজরে সবশেষ আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিং-

১. ভারত – ১১৬ রেটিং।

২. দক্ষিণ আফ্রিকা- ১০৬ রেটিং।

৩. ইংল্যান্ড- ১০৫ রেটিং।

৪.নিউজিল্যান্ড- ১০২ রেটিং।

৫. অস্ট্রেলিয়া- ১০২ রেটিং।

৬. শ্রীলঙ্কা- ৯৭ রেটিং।

৭. পাকিস্তান- ৯৫ রেটিং।

৮. উইন্ডিজ- ৭২ রেটিং।

৯. বাংলাদেশ- ৬৩ রেটিং।

১০. জিম্বাবুয়ে- ১৩ রেটিং।

[বি.দ্র: এ টেস্ট র‍্যাঙ্কিংটি ২৫.১১.২০১৮ তারিখ অনুযায়ী।]


আরও পড়ুনঃ বিপিএল ২০১৯ আসরের সূচি প্রকাশ

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রাখলেন দুই অস্ট্রেলিয়ান

টেস্ট র‍্যাকিংয়ে সাকিবের পিছিয়ে পড়ার কারণ

টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে স্মিথ-লায়নের উত্থান

টেস্টে বাৎসরিক হালনাগাদে বাংলাদেশের জন্য দুঃসংবাদ

বাংলাদেশের সামনে র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতির ‘কঠিন’ চ্যালেঞ্জ