Scores

“টাকার জন্য নয়, নিজেকে প্রমাণের জন্য আইসিএলে গিয়েছিলাম”

২০০৮ সালে লোভনীয় প্রস্তাব পেয়ে বিতর্কিত ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগে (আইসিএল) খেলতে গিয়েছিলেন শাহরিয়ার নাফীস। যদিও তার দাবি, টাকার লোভে ঐ টুর্নামেন্টে যাননি তিনি, গিয়েছিলেন জাতীয় দলের জন্য নিজেকে প্রমাণ করতে। 

টাকার জন্য নয়, নিজেকে প্রমাণের জন্য আইসিএলে গিয়েছিলাম-

অনুমোদনহীন আইসিএলে ঢাকা ওয়ারিয়র্সের হয়ে যেসব বাংলাদেশি ক্রিকেটার খেলেছিলেন, সবাইকেই বিসিবি নিষিদ্ধ করেছিল। সেই তালিকায় ছিল নাফীসের নামও। যদিও পরবর্তীতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় বিসিবি। হাল আমলের কাড়ি কাড়ি টাকার টি-টোয়েন্টি লিগগুলোর আবির্ভাবের আগে খেলোয়াড়দের কাছে টাকার খনি হয়ে এসেছিল এই আইসিএল। যদিও আইসিএলে নাফীসের যোগ দেওয়ার কারণ ছিল ভিন্ন; অন্যদের মত মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক নয়।

Also Read - সাকিব-তামিম-মুশফিক কেউই আশরাফুলের মত মেধাবী নয় : নাফীস






বিডিক্রিকটাইম  এর লাইভ আড্ডায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে নাফীস বলেন, ‘প্রথমত, টি-টোয়েন্টির জন্য ঘোষিত ৩০ সদস্যের দলেও জায়গা পাইনি, এটা অনেক বড় অপমান। দ্বিতীয়ত, চুক্তি থেকে বাদ পড়েছিলাম। তৃতীয়ত, আমি ভালো করেও দলে জায়গা পাচ্ছিলাম না, তাই নিজেকে প্রমাণ করতে চেয়েছিলাম।’ 

আয়ারল্যান্ডে পরপর তিন ম্যাচে অর্ধ-শতক হাঁকিয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন। ঠিক পরের সিরিজেই পাকিস্তানে গিয়ে প্রথম ম্যাচে ২৪ রান, এরপর দুই ম্যাচে ম্লান। সেই যে সুযোগ হারালেন নাফীস, এরপর এশিয়া কাপও সাজঘরে বসে দেখেছেন দর্শকদের মত।





নাফীস নিজেকে প্রমাণ করার তাড়না বোধ করেছিলেন। আর তাই খড়কুটোর মত আঁকড়ে ধরেছিলেন আইসিএলকেই। তিনি বলেন, ‘এভাবে কারণে-অকারণে বাদ পড়ে যাওয়া এবং প্রমাণ করার জায়গা না পাওয়ায় ভেবেছিলাম, এই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ সবাই দেখবে, ভালো খেললে মানুষ দেখবে আমি ভালো করছি। এখন ফেসবুকের যুগ, যেকোনো খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তখন তো প্রিন্ট মিডিয়া ছিল। সর্বোচ্চ প্রচারিত দৈনিকের কাটতিও ছিল ৫ লাখ। তাই আমজনতা তো জানতে পারত না। তা ভাবছিলাম, ভালো করলে মানুষ দেখবে।’

‘নিজের কাছে নিজের সন্তুষ্টি তৈরি এবং বিশ্বাস ফিরিয়ে আনা মানুষকে আমার সামর্থ্য দেখানোর জন্যই আইসিএলে খেলতে গিয়েছিলাম’– বলেন নাফীস।

আইসিএলে অন্যান্য বাংলাদেশি ক্রিকেটারের যোগদানের বড় কারণ ছিল মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক। তবে নাফীস পারিশ্রমিকের কথা ভেবে আইসিএলে যাননি বলেই দাবি।

তার ভাষ্য, ‘অহংকার করে বলছি না, তবে আলহামদুলিল্লাহ্‌ আল্লাহ আমাকে এমন এক পরিবারে জন্ম দিয়েছেন যেখানে অর্থের সমস্যা কখনো ছিল না এখনো নেই। টাকার জন্য কখনোই ক্রিকেট খেলিনি। হ্যাঁ, আমি পেশাদার ক্রিকেটার, টাকা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু টাকা পাওয়ার জন্য ক্রিকেট খেলতে হবে এমনটা ভাবিনি কখনো। সবসময় ভালো খেলতে চেয়েছি।’


বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

Related Articles

ক্যারিয়ার বাঁচাতেই আইসিএল বেছে নেন নাফীস

আশরাফুলের আইসিএলের দল গোছানোর খবর আংশিক সত্য : নাফীস

আইসিএল খেলতে যাওয়ার কারণ জানালেন আফতাব

১৫ কোটি টাকার প্রস্তাব পেয়েও আইসিএলে যাইনি : আশরাফুল