Scores

টি-টেন লিগ: ফিক্সিংয়ের কালো হাত থেকে বাঁচার দায়িত্ব ক্রিকেটারদেরই

ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট টুর্নামেন্টগুলোতে বেশ সক্রিয় থাকার চেষ্টা করেন জুয়াড়িরা। আইপিএল, বিপিএল, পিএসএল- উপমহাদেশের তিন টুর্নামেন্টেই প্রমাণিত হয়েছে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ। এমনকি সংযুক্ত আরব আমিরাতের টি-১০ ক্রিকেট লিগেও পড়েছে ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া। সেই ছায়া থেকে বেঁচে থাকার দায়িত্বট ক্রিকেটারদের নিজেদেরই- এমনটাই জানিয়েছে বিসিবি।

টি-টেন লিগ_ ফিক্সিংয়ের কালো হাত থেকে বাঁচার দায়িত্ব ক্রিকেটারদেরই

টি-১০ ক্রিকেটে ফিক্সিংয়ের দায়ে শাস্তি ভোগ করছেন নুয়ান জয়সা। শ্রীলঙ্কার হয়ে ৩০ টেস্ট ও ৯৫ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে খেলা জয়সা ২০১৭ সালের টুর্নামেন্টে অংশ নেওয় টিম শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ ছিলেন। এরপর তার বিপক্ষে দুর্নীতির অভিযোগ আনে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ড।

তার বিপক্ষে আনা তিনটি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে অবৈধ উপায়ে ম্যাচের ফলাফল প্রভাবিত করার জন্য কোনো চুক্তির অংশ নেওয়া এবং ক্রিকেটার বা কাউকে এধরণের কাজে জড়িত হতে উৎসাহিত করা রয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হওয়া জয়সার সামনে অপেক্ষা করছে বড় শাস্তি।

Also Read - ''এই সাদমান, ওপারে যা''


সম্প্রতি ম্যাচ পাতানোর দায়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই ক্রিকেটার শাইমান আনোয়ার এবং মোহাম্মদ নাভিদ। এর মধ্যে মোহাম্মদ নাভিদ টি-১০ লিগেও ম্যাচ পাতানোর সঙ্গে জড়িত ছিলেন এমন প্রমাণ মিলেছে।

এবার টি-১০ খেলতে যাচ্ছেন একঝাঁক বাংলাদেশি ক্রিকেটার। দল পেয়েছেন আফিফ হোসেন ধ্রুব, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান, নাসির হোসেন, সোহাগ গাজী, মুক্তার আলি এবং মনির হোসেন। তাসকিন আহমেদ প্রথমে দল পেলেও বিসিবির তরফ ঠেকে তাকে অনাপত্তিপত্র প্রদান না করায় খেলছেন না তিনি।  এর মধ্যে নিজ নিজ দলকে নেতৃত্ব দেবেন নাসির হোসেন এবং মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

খেলতে যাওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে নাসির হোসেন প্রত্যেকেই বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে প্রথমবার খেলতে যাচ্ছেন। ফিক্সিংয়ের অন্ধকার গলিতে যেন নিজের অজান্তেও প্রবেশ না করে বসেন- সেদিকে চোখ কান খোলা রাখার দায়িত্বটাও তাদের।

বাংলাদেশ ক্রিকেট ও একজন আকরাম খান

বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন ক্রিকেটারদের এসব ক্ষেত্রে কি কি করণীয় সেই গাইডলাইন দেওয়া হয় বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকেই। বিডিক্রিকটাইমকে তিনি বলেন, “গাইডলাইন আমরা বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকে দিতে থাকি। যখন ওরা সিক্সটিনে, এইটিনে, নাইনটিনে খেলে- তখন থেকেই আমরা গাইডলাইনগুলো দিয়ে থাকি। এটা নিয়ে তাদের সবসময় ব্রিফ দেওয়া হয়।”  

তবু জুয়াড়িদের পাতা ফাদে কেউ পা দিয়ে ফেললে সেটা তাদের দায় বলে সাফ জানিয়ে দেন আকরাম খান। তিনি বলেন, “পা দিয়ে ফেললে এটা তাদের সমস্যা। আমাদের সমস্যা না। দায়দায়িত্ব শতভাগ তাদের।”   

বিপিএলে ফিক্সিং করে নিষিদ্ধ হওয়া মোহাম্মদ আশরাফুল এখনো ফিরতে পারেননি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করার দায়ে ক্যারিয়ার থেকে  হারিয়েছেন একটি বছর। সতর্ক থাকা এবং নৈতিকভাবে সৎ থাকার দায়িত্বটা তাই পুরোপুরি আফিফ-নাসিরদের ওপর।  একট ভুল যে হতে পারে  পুরো ক্যারিয়ার শেষের কারণ।
 

Related Articles

“টানা উইকেট না হারালে রান তাড়া করতে পারতাম”

টি-১০ খেলার অনাপত্তিপত্র পেলেন আফিফ-মেহেদী

টি-টেন লিগ: ড্রাফট শেষে যেমন হল দলগুলো

আফিফ ঝড়ের পরও বরিশালকে বিদায় করে দিল ঢাকা

আফিফ-তৌহিদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ঢাকাকে ১৯৪ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিলো বরিশাল