টি-টোয়েন্টিতে পাঁচ ধাপ এগোলেন সৌম্য

0
1819

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-২০ সিরিজের ভালো পারফরমেন্স প্রদর্শনের সুবাদে আইসিসি টি-২০ র‍্যাংকিংয়ে রাজসিক উত্থান ঘটেছে বাংলাদেশি ক্রিকেটার সৌম্য সরকারের। পাঁচ ধাপ এগিয়ে তিনি অবস্থান করছেন সেরা বিশ-এ।

সৌম্যকে স্যালুট মাশরাফির

Advertisment

অবশ্য সৌম্য এগোলেও পিছিয়েছেন সাকিব আল হাসান। ওয়ানডে ও টেস্টের মতো টি-২০ ফরম্যাটেরও অলরাউন্ডারদের র‍্যাংকিংয়ের সাকিব ছিলেন শীর্ষে। তবে সাকিবকে হটিয়ে এখন সেই আসন গ্রহণ করেছেন অস্ট্রেলীয় অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া তিনটি পৃথক টি-২০ সিরিজের ভিত্তিতে সোমবার টি-২০ র‍্যাংকিংয়ের বিভিন্ন ক্যাটাগরি হালনাগাদ করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। তাতে দেখা যাচ্ছে, এক ধাপ অবনমনে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান নেমে গেছেন দ্বিতীয় স্থানে। ৩২৬ রেটিং পয়েন্টধারী সাকিব শীর্ষস্থান হারিয়েছেন যে ম্যাক্সওয়েলের কাছে, সেই অজি ক্রিকেটারের রেটিং পয়েন্ট ৩৯০। আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মারলন স্যামুয়েলস এবং দক্ষিণ আফ্রিকার জেপি ডুমিনি ক্রমান্বয়ে আছেন ম্যাক্সওয়েল ও সাকিবের পরের স্থানগুলোতে।

অবশ্য সাকিব পেছালেও উত্থান ঘটেছে সৌম্য সরকারের, সেটি ব্যাটসম্যানদের র‍্যাংকিংয়ে। সর্বশেষ সিরিজে ভালো পারফর্ম করে শীর্ষ ২০-এ ঢুকা এই বাঁহাতি ওপেনার ৫ ধাপ এগিয়ে অবস্থান করছেন তালিকার ২০তম স্থানে।

ব্যাটসম্যানদের মধ্যে শীর্ষে আছেন নিউজিল্যান্ডের কলিন মুনরো। ৩ ধাপ এগিয়েছেন এই ব্যাটসম্যান, যার উত্থানে পেছনে পড়েছেন বর্তমানে তৃতীয় স্থানে থাকা পাকিস্তানের বাবর আযম। অলরাউন্ডারদের র‍্যাংকিংয়ের মতো ব্যাটসম্যানদের র‍্যাংকিংয়েও উত্থান ঘটেছে ম্যাক্সওয়েলের। অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান সেখানে আছেন দ্বিতীয় স্থানে। দুই ধাপ অবনমনে চতুর্থ স্থানে অ্যারন ফিঞ্চ এবং ছয় ধাপ এগিয়ে নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল পঞ্চম স্থানে অবস্থান করছেন।

বোলারদের মধ্যে শীর্ষে আছেন কদিন আগেই ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানে আরোহণ করা আফগান স্পিনার রাশিদ খান। সেরা পাঁচ বোলারের মধ্যে আরও আছেন যথাক্রমে নিউজিল্যান্ডের ইশ সোধি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্যামুয়েল বদ্রি, পাকিস্তানের ইমাদ ওয়াসিম ও ভারতের জাসপ্রিত বুমরাহ। এক ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান সপ্তম এবং এক ধাপ পিছিয়ে সাকিব আল হাসান দশম স্থানে রয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ ‘আমার মতো বোলারদের আসলে খেলতে খেলতে শিখতে হয়।’