টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কোচিং প্যানেলে নেহরাকে দেখতে চান হরভজন

বিশ্বকাপে ভারতের হতাশাজনক পারফরম্যান্স সাবেকরা একদমই মেনে নিতে পারছেন না। অনেকের মতে ভারতের টি-টোয়েন্টি দলকে ঢেলে সাজানো উচিত। নতুন অধিনায়ক হিসেবে তো হার্দিক পান্ডিয়ার কথাও বলে দিয়েছেন অনেকে। তবে সাবেক ভারতীয় স্পিনার হরভজন সিং এবার বদল চাইলেন কোচিং প্যানেলে। টি-টোয়েন্টির জন্য ভারতের কোচিং প্যানেলে আশিস নেহরাকে দেখতে চান তিনি।

টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কোচিং প্যানেলে নেহরাকে দেখতে চান হরভজন

রাইসান কবির
ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে -

আপডেট হয়েছে -

খেলার সারসংক্ষেপ

  • ভারতের বিশ্বকাপের পারফরম্যান্স হতাশ করেছে সমর্থকদেরকে
  • টি-টোয়েন্টি দলকে তাই ঢেলে সাজানোর পরামর্শ দিচ্ছেন সাবেকরা
  • টি-টোয়েন্টি দলের কোচ হিসেবে আশিস নেহরাকে দেখতে চান হরভজন সিং
  • একেক ফরম্যাটে একেক দল গঠন নিয়ে বেশ আলোচনা হয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটে। যার বাস্তবায়ন ভারত করেছেও। তবে এবার নতুন এক আলোচনা যেন উত্থাপিত হল ভারতীয় ক্রিকেটে- ফরম্যাটভেদে ভিন্ন ভিন্ন কোচ!
    আশিস নেহরা। ছবিঃ গেটি ইমেজস
    সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের পারফরম্যান্স নিয়ে চলছে বেশ কাটাছেঁড়া। সেমিফাইনালে উঠলেও সমর্থকদের মন ভরাতে পারেনি ভারতের পারফরম্যান্স। সেমিতে উঠে ইংল্যান্ডের কাছে বেশ বাজেভাবে, একদম ১০ উইকেটে হেরেছে ভারত। সমালোচনা ওঠাটা তাই স্বাভাবিকই।  

    এরপর থেকেই ভারতের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট নিয়ে তুমুল আলোচনা হচ্ছে। ভারতের এমন হতাশাজনক পারফরম্যান্স সাবেকরা একদমই মেনে নিতে পারছেন না। অনেকের মতে ভারতের টি-টোয়েন্টি দলকে ঢেলে সাজানো উচিত। নতুন অধিনায়ক হিসেবে তো হার্দিক পান্ডিয়ার কথাও বলে দিয়েছেন অনেকে। তবে সাবেক ভারতীয় স্পিনার হরভজন সিং এবার বদল চাইলেন কোচিং প্যানেলে। টি-টোয়েন্টির জন্য ভারতের কোচিং প্যানেলে আশিস নেহরাকে দেখতে চান তিনি।   

    ভিন্ন ফরম্যাটে ভিন্ন কোচের ধারণা ক্রিকেটবিশ্বে নতুন কিছু নয়। বর্তমানে অনেক দলই ফরম্যাটভেদে ভিন্ন কোচ রাখছে। ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। তার অধীনে দলের পারফরম্যান্সও বেশ ভালো। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট হিসেবে বিশ্বকাপ পর্যন্ত কাজ করেছেন শ্রীধরন শ্রীরাম। শ্রীরাম আসার পর দলের উন্নতিও চোখে পড়েছে। এছাড়া বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ড দলের সাথে কাজ করেছেন ম্যাথু মট।
     
    বর্তমানে আবুধাবিতে অবস্থান করা হরভজন ভারতীয় সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, ‘টি-টোয়েন্টির জন্য আপনি আশিস নেহরার মত কাউকে নিয়ে আসতে পারেন যিনি কিছুদিন আগেই অবসরে গিয়েছেন। রাহুলের (দ্রাবিড়) প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখেই বলছি নেহরা এটা (টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট) তার চেয়ে (রাহুলের চেয়ে) ভালো জানে।’
    হরভজন সিং। ছবিঃ গেটি ইমেজস
    তিনি আরও বলেন, ‘আমরা (রাহুল এবং হরভজন) একসাথে অনেক বছর খেলেছি। তার জ্ঞানের পরিধি বিশাল। তবে এই ফরম্যাটটি কিছুটা জটিল। যে সম্প্রতি খেলাটি খেলেছে কোচিংয়ের জন্য সেই বেশি উপযুক্ত। তবে আমি বলছি না যে আপনারা রাহুলকে টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিন। ভারতকে ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত করতে রাহুল এবং নেহরা দুজন একইসাথে কাজ করতে পারে।’

    ২০১৭ সালের নভেম্বরে নিজের সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন নেহরা। এরপর থেকেই যুক্ত আছেন কোচিংয়ের সাথে। সর্বশেষ আইপিএলে গুজরাট টাইটান্সের কোচিং প্যানেলেও ছিলেন তিনি। নিজেদের প্রথম মৌসুমেই আইপিএলের শিরোপা জিতে নিয়েছে গুজরাট।

    হরভজন বলেন, ‘এরকম চুক্তি (ফরম্যাটভেদে দায়িত্ব ভাগাভাগি) হলে রাহুলের জন্যও বিষয়টি সহজ হয়ে যাবে। নিউজিল্যান্ড সফরের মত সে মাঝেমাঝে ছুটি নিতে পারবে এবং নেহরা তার জায়গায় কাজ করতে পারবে।’

    এছাড়া টি-টোয়েন্টি ভারতের খেলার অ্যাপ্রোচেও পরিবর্তন দেখতে চান হরভজন, ‘টি-টোয়েন্টিতে খেলার অ্যাপ্রোচে পরিবর্তন আনতে হবে। প্রথম ৬ ওভার বেশ গুরুত্বপূর্ণ, তা কাজে লাগাতে হবে। অন্যথায় দেখা যাবে আপনাকে হার্দিক (পান্ডিয়া) অথবা সূর্যের (সূর্যকুমার যাদব) ওপর ভরসা করতে হবে। তাদেরকে ২০ বলে ৫০ রান করতে হবে। যদি তারা তা করতে না পারে তাহলেই আপনি অল্প রানে গুঁটিয়ে যাবেন।’ সর্বশেষ বিশ্বকাপে ভারতের সাথে আসলে এমন কিছুই ঘটেছে।
     
    উদাহরণ হিসেবে ইংল্যান্ডকে টেনে তিনি বলেছেন, ‘ইংল্যান্ড তাদের খেলার অ্যাপ্রোচে পরিবর্তন এনেছে এবং ২টি বিশ্বকাপ জিতে ফেলেছে। টি-টোয়েন্টিকে টি-টোয়েন্টির মত করেই খেলতে হবে, ওয়ানডের মত নয়।’
    হরভজন সিং। ছবিঃ গেটি ইমেজস
    শেষদিকে হরভজন বলেন, ‘টপ অর্ডারের তিনজনের সবাইকে স্ট্রাইকরেট বাড়াতে হবে। আপনি ১১০ বা ১২০ স্ট্রাইকরেটে ব্যাট করে ১৮০ রান করাটা খুব কঠিন হয়ে যাবে। প্রথম ১০-১২ ওভারে আপনাকে ওভারপ্রতি প্রায় ৯ রান করে তুলতে হবে। কে টি-টোয়েন্টি খেলবে আর কে খেলবে না এই বিষয়ে মন্তব্য করার আমি কেউ নই। যদি তারা ফিট থাকতে পারে তাহলে কেন খেলবে না? তবে খেলার অ্যাপ্রোচে পরিবর্তন আনতে হবে। ক্রিকেটারদেরকে রাতারাতি পরিবর্তন করা যাবে না, অ্যাপ্রোচকে পরিবর্তন করতে হবে।’
     
    বিশ্বকাপ শেষে বর্তমানে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি করে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি খেলার জন্য নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছে ভারতীয় দল। অভিজ্ঞ অনেক ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেওয়ার কারণে দলের অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে হার্দিক পান্ডিয়া। সহ-অধিনায়ক হিসেবে আছেন রিশভ পান্ট।

    বাংলাদেশের ক্রিকেটসহ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ধরনের খবর সবার আগে পেতে এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন BDCricTime Videos চ্যানেলটি। বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।
     
     
     
     
        
    সম্পর্কিত খবর