টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ের ষষ্ঠ স্থানে রিয়াদ

0
1573

আইসিসির সর্বশেষ প্রকাশিত টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ের অলরাউন্ডারের তালিকায়  ৬ষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের সহ-অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ২১৩ রেটিং নিয়ে এই স্থানে রয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। সবার উপরে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং সেরা তিনে রয়েছেন সাকিব আল হাসান।

অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে সেরা অবস্থানে মাহমুদউল্লাহ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বল হাতে খুব একটা দেখা যায়না বাংলাদেশ দলের টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বল হাতে খুব দেখা না মিললেও তাকে দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতের পাশাপাশি বল হাতেও জ্বলে উঠতে দেখা গিয়েছে মাহমুদউল্লাহকে। সর্বশেষ আইসিসি প্রকাশ করেছে টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডারদের র‍্যাংকিংয়ের তালিকা। তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছেন বাংলাদেশের এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার।

Advertisment

পেছনে ফেলেছেন শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা ও আয়ারল্যান্ডের পল স্টার্লিংকে। মাহমুদউল্লাহর আগে অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে ৬ষ্ঠ স্থানে ছিলেন থিসারা। তবে আইসিসির সর্বশেষ প্রকাশিত তালিকায় ২১০ রেটিং নিয়ে সপ্তম স্থানে রয়েছেন এই লঙ্কান অলরাউন্ডার। ২১৩ রেটিং নিয়ে তার উপরে রয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

মাহমুদউল্লাহর উপরে রয়েছেন উইন্ডিজের মারলন স্যামুয়েলস। মাহমুদউল্লাহ থেকে মাত্র ৯ রেটিং, ২২২ রেটিং নিয়ে ৫ম স্থানে রয়েছেন স্যামুয়েলস। র‍্যাংকিংয়ের চতুর্থ স্থানে রয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অলরাউন্ডার ডুমুনি। ২৩৪ রেটিং নিয়ে এই স্থানে রয়েছেন প্রোটিয়া অলরাউন্ডার। র‍্যাংকিংয়ের তিনে রয়েছেন বাংলাদেশ দলের অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

তার রেটিং ৩১০। সাকিবের থেকে মাত্র ৩ রেটিং বেশি, ৩১৩ রেটিং নিয়ে র‍্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন আফগানিস্তানের অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী। এই তালিকার প্রথম স্থানে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। সবচেয়ে বেশি ৩৬৬ রেটিং নিয়ে প্রথম স্থানে রয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৭৩ ম্যাচ খেলেছেন মাহমুদউল্লাহ। ৭৩ ম্যাচের ৬৬ ইনিংসে ব্যাট হাতে ২২.৭৮ গড়ে করেছেন ১১৮৫ রান এবং বল হাতে নিয়েছেন ২৬ উইকেট।

এক নজরে আইসিসির প্রকাশিত অলরাউন্ডারের তালিকাঃ

১। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল – ৩৬৬ রেটিং

২। মোহাম্মদ নবী – ৩১৩ রেটিং

৩। সাকিব আল হাসান – ৩১০ রেটিং

৪। জেপি ডুমিনি – ২৩৪ রেটিং

৫। মারলন স্যামুয়েলস – ২২২ রেটিং

৬। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ – ২১৩ রেটিং

৭। থিসারা পেরেরা – ২১০ রেটিং

৮। পল স্টার্লিং – ২০৮ রেটিং

৯। রিচার্ড বেরিংটন  ২০২ রেটিং

১০। সামিউল্লাহ শেনওয়ারি – ১৮৮ রেটিং

আরও পড়ুনঃ সিনেমা হলে বিশ্বকাপ ক্রিকেট!