Scores

টি-টোয়েন্টি ম্যাচে চন্দরপলের ডাবল সেঞ্চুরি!

মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসেবে খ্যাতি ছিল শিবনারায়ণ চন্দরপলের। টেস্ট ক্রিকেটে বেশি সমৃদ্ধ পরিসংখ্যান গড়লেও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে তার তাণ্ডবকে ভয় পেতেন বোলাররা। ২০১৫ সালে ক্রিকেট ছাড়ার পর তার খেলোয়াড়ি সত্তার কথা আবছায়া সমর্থকদের কাছে। তবে ৪৪ বছর বয়সী ক্রিকেটারের হাড়ে যে একটুও জং ধরেনি!

টি-টোয়েন্টি ম্যাচে চন্দরপলের ডাবল সেঞ্চুরি!

জং ধরেনি তার প্রমাণ চন্দরপলের সাম্প্রতিক একটি ইনিংস। সম্প্রতি একটি স্থানীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলার সময় ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান চন্দরপল। ৭৬ বলের মোকাবেলায় ২৫টি চার ও ১৩টি ছক্কায় ২১০ রান করে থামে তার ইনিংস, যেখানে স্ট্রাইক রেট ছিল ২৭৬.৩১!

Also Read - আইপিএলে সবচেয়ে বেশি হারের রেকর্ড কোহলির!


 

ক্যারিব লাম্বার বলপার্কের সেন্ট মার্টিনে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচটি ছিল অ্যাডাম স্যানফোর্ড ক্রিকেট ফর লাইফ নামের একটি টুর্নামেন্টের অংশ। চন্দরপলের বিধ্বংসী ইনিংসে ভর করে ম্যাচে দল জয় পায় ১৯২ রানের বিশাল ব্যবধানে।

চন্দরপল ছাড়াও আরেক ক্যারিবীয় তারকা ডোয়াইন স্মিথ এই ম্যাচে উজ্জ্বল ছিলেন। উইন্ডিজ জাতীয় দলের সাবেক এই ক্রিকেটার যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় দল ম্যাড ডগসের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে চন্দরপলের সাথে ব্যাটিং উদ্বোধনীতে নেমেছিলেন। তাদের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩০৩ রান। ৮টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ২৯ বলে ৫৪ রান করেন স্মিথ।

অবশ্য ঐ টুর্নামেন্টটি আইসিসির স্বীকৃত আসর না হওয়ায় ইতিহাসের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডের মর্যাদা পাচ্ছেন না চন্দরপল।

৩ বছর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও এখনও বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া ও স্থানীয় ক্রিকেটে বীরদর্পে খেলে বেড়াচ্ছেন শিবনারায়ণ চন্দরপল। এই সময়ে ছেলে সন্তান ত্যাগনারায়ণ চন্দরপলের সাথে একই ম্যাচে ব্যাটিং করার কীর্তিও গড়েছেন।

 

উইন্ডিজ বা সাবেক ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলের অধিনায়ক শিবনারায়ণ চন্দরপল তার দীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারে জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন ১৬৪টি টেস্ট, ২৬৮টি ওয়ানডে ও ২২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। ২০১০ সালে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি, ২০১১ সালে ওডিআই এবং ২০১৫ সালে টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানান তিনি।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন


Related Articles

৬ হাজারি ক্লাবে নাম লেখালেন সাকিব

লাইভ: সৌম্য-তামিমে শুভ সূচনা বাংলাদেশের

টস জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

মুশফিককে নিয়ে দুর্ভাবনা নেই

“ধারাভাষ্যকারদের কথা শুনে উইকেট বোঝা সহজ নয়”