Scores

টেম্পারিং এবং নিদাহাস ট্রফির ঘটনায় আইসিসির উদ্বেগ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বিগত কয়েক সপ্তাহকে ‘সাম্প্রতিক কালের সবচেয়ে জঘন্য স্মৃতি’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বল টেম্পারিংয়ের ঘটনা এবং নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশ দলের মাঠ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টার ঘটনাকেই ইঙ্গিত করেছেন রিচার্ডসন, সেই সাথে প্রকাশ করেছেন উদ্বেগ।

চোখে লাগার মতো ঘটনাগুলো নিয়ে আইসিসির আগামী সভায় আলোচনা করা হবে বলে জানিয়ে রিচার্ডসন বলেন, ‘আমরা গত কয়েক সপ্তাহ ধরে খেলোয়াড়দের অসংযত আচরণ দেখছি। যেমন স্লেজিং, অশালীন ভাষা, আম্পায়ারের সঙ্গে বিরুদ্ধ আচরণ। এমনকি নিদাহাস ট্রফিতে মাঠ ত্যাগ করার মতো ঘটনাও দেখেছি। সর্বশেষ বল টেম্পারিং। সব কিছুই আমাদের এপ্রিলের সভায় এজেন্ডা হিসেবে রয়েছে।’ 

Also Read - জয়ের ছন্দ ধরে রেখেছে শেখ জামাল


রিচার্ডসন বলেন, ‘যা হয়েছে তা যত দ্রুত সম্ভব এ নিয়ে কিছু করার জন্য তাগাদা দিচ্ছে। তাই বোর্ডগুলোর পূর্ণ সমর্থন নিয়ে আমরা খেলোয়াড়দের আচরণের উপর বিশ্লেষণ করবো যাতে কোড অব কন্ডাক্ট ভঙ্গ করার মতো ঘটনা না ঘটে।’

খেলোয়াড়দের আগ্রাসনের কারণে সম্প্রতি রাবাদা সহ বেশ ক’জন ক্রিকেটার আইসিসি থেকে শাস্তি পেয়েছেন। সেদিকে ইঙ্গিত করে বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে রিচার্ডসন আরও বলেন, ‘ঠিক এই মুহূর্তে আমার মাথায় যেসব খেলোয়াড়দের নাম আসছে তারা হলেন অ্যালান বর্ডার, অনিল কুম্বলে, শন পোলক, কোর্টনি ওয়ালশ (বাংলাদেশের বর্তমান পেস বোলিং কোচ), রিচি রিচার্ডসন- তারা সবাই প্যাশন নিয়ে খেলতেন এবং তাদের কারোর আগ্রাসনকেই আপনি দোষ হিসেবে জাহির করার সুযোগ রাখেন না।’

আইসিসির প্রধান নির্বাহীর কণ্ঠে সুর মিলিয়েছেন ভারতের ক্রিকেট দেবতা খ্যাত কিংবদন্তী সাবেক ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার। খেলোয়াড়দের আচরণে পরিবর্তন আনার তাগিদ জানিয়ে সম্প্রতি এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট ভদ্রলোকের খেলা হিসেবে পরিচিত। আমি মনে করি এটা এমন একটি খেলা যা বিশুদ্ধ পন্থায় হওয়া উচিত।’

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তান সফরে নেই গেইল-ব্রেথওয়েট-হোল্ডার

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

মাঠের বাইরে ছিটকে পড়ে অজি তারকার ‘প্রায়শ্চিত্ত’!

দেয়ালে ঘুষি মেরে ইঞ্জুরিতে অজি তারকা

পাকিস্তান সফরের অন্যরকম ‘পুরস্কার’

শেফিল্ড শিল্ডে খেলা চলাকালেই অগ্নিকাণ্ড

‘অপরাজিতা’ অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বরেকর্ড