টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল বিশ্বকাপের ‘বড় বাবা’ : রবি শাস্ত্রী

0
732

প্রথম দিনের খেলা বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ার পর দ্বিতীয় দিন সাউদাম্পটনে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়শিপের ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করছে ভারত। এদিকে এই ফাইনালকে সকল বিশ্বকাপের ‘বড় বাবা’ হিসেবে অ্যাখায়িত করে হাস্যরসের জন্ম দিয়েছেন কোহলিদের কোচ রবি শাস্ত্রী।

 

Advertisment
তিন ম্যাচের ফাইনালের সুফল তুলে ধরলেন শাস্ত্রী
রবি শাস্ত্রী। ফাইল ছবি

 

ভারতে ক্রিকেটকে ধর্মের মত মানা হয়। আর ক্রিকেটারদের তো ভক্তরা দেবতা আসনের অধিষ্ঠিত করে রাখেন। গাভাস্কার,কপিল, সৌরভ, শচীন থেকে শুরু করে হালের রোহিত-কোহিলরা সেদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়।

তবে ১৯৮৩ বিশ্বকাপজয়ী দলের অন্যতম সদস্য ও বর্তমান ভারত জাতীয় দলের কোচ হয়েও ভক্তদের কাছে তেমন পাত্তা পান না রবি শাস্ত্রী। এর পেছনে যদিও ভক্তদের একদরফা দোষ দেওয়া চলে না। হরহামেশাই বিতর্কিত সব মন্তব্য করে হাস্যরসের সৃষ্টি করতে বেশ পটু কোহলিদের কোচ। এবার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে সকল ফাইনালের ‘বড় বাবা’ বলে নতুন করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন।

শাস্ত্রী নিজে ১৯৮৩ বিশ্বকাপের দলের ফাইনাল খেললেও সাউদাম্পটনের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে সবার উপরে রাখছেন। তিনি বলেন,

“ এই ফাইনাল সকল বিশ্বকাপের বড় বাবা। আমি ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলেছি। বেশ কয়েকটি বিশ্বকাপে ধারভাষ্য দিয়েছি। কিন্তু টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের স্থান সবগুলোর উপরে। টেস্ট সবচেয়ে বড় ও কঠিন ফরম্যাট। এখানে প্রাপ্তির আনন্দও সবচেয়ে বেশি। অনেক বড় ক্রিকেটার আছেন, যারা বিশ্বকাপ জেতেনি। এই ফাইনালে খেলতে পারা তাদের জন্য অনেক বড় ব্যাপার। পাঁচ বছর ধরে টেস্টের র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থানে থাকাটাও দারুণ।”

টেস্ট ক্রিকেটের গুরুত্ব বোঝাতেই শাস্ত্রী হয়তো টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে সকল ফাইনালের ‘বড় বাবা’ বলে অভিহিত করেছেন। কিন্তু শাস্ত্রীর এমন মন্তব্যকে খোদ ভারতীয় সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে হাস্যরসের বিষয় বানিয়ে ফেলেছেন।

এদিকে রবি শাস্ত্রীর এমন মন্তব্যের পর মাঠের খেলায় অবশ্য তার শিষ্যরা নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খুব বেশি সুবিধাজনক অবস্থানে নেই। কিউই পেসারদের বোলিং তোপের মুখে দিনের প্রথম সেশনেই দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শুভমান গিলকে হারায় ভারত। ইনিংস মেরামতে অধিনায়ক কোহিলকে সঙ্গ দিতে পারেননি পূজারাও। আরেক মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আজিঙ্কা রাহানেকে সঙ্গে নিয়ে পাঁচ কিউই পেসারের বিপক্ষে লড়াই করে যাচ্ছেন কোহলি।