SCORE

টেস্ট বা ওয়ানডে নয়, সবচেয়ে জনপ্রিয় টি-২০!

ক্রিকেট বা ফুটবলের মত বৈশ্বিক ক্রীড়া ইভেন্টগুলোর জন্য গ্লোবালাইজেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রাশিয়ায় চলছে ফুটবল বিশ্বকাপের আসর, যেখানে অংশ নিচ্ছে মোট ৩২টি দল। সম্প্রতি বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ২০২৬ ফুটবল বিশ্বকাপ থেকে আসরে অংশ নিতে পারবে ৪৮টি দল। তবে এদিক থেকে ঠিক উল্টো চিত্র ক্রিকেট বিশ্বের অভিভাবক আইসিসির দেয়ালে।

টেস্ট-বা-ওয়ানডে-নয়-সবচেয়ে-জনপ্রিয়-টি-২০e
বিগব্যাশ, আইপিএল বা বিপিএলের মত ঘরোয়া টি-২০ আসরগুলোর কারণে আরও জনপ্রিয়তা কুড়িয়ে নিচ্ছে টি-২০ ফরম্যাট। ছবি: সংগৃহীত 

আইসিসি বিশ্বকাপের বিগত দুটি আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৪টি দল নিয়ে। তবে সেই স্ট্রাকচার থেকে অনেকটা সরে এসে ২০১৯ সালে ১০ দলের অংশগ্রহণে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে আইসিসি। ওয়ানডে বিশ্বকাপে দলগুলোর অংশ নেওয়ার সুযোগ কমে যাওয়ায় কমছে এই ফরম্যাটে দলগুলোর মনোযোগও। আর এর ফলশ্রুতিতে বিশ্বের ক্রিকেট সমর্থকদের বড় একটি অংশের কাছে এখন অধিক জনপ্রিয় টি-২০ ক্রিকেট, ওয়ানডে ক্রিকেট নয়; টেস্ট ক্রিকেট তো নয়-ই!

ক্রিকেট বিশ্বের কাছে গেমটির অবস্থান এখন কেমন- সেটি যাচাই করার জন্য সম্প্রতি ১৪টি দেশে একটি জরিপ চালায় আইসিসি। আর সেই জরিপের ফলাফলে দেখা গেছে, সমর্থকদের অনেক বড় অংশ পছন্দের তালিকায় প্রথমেই রেখেছেন টি-২০ ফরম্যাটকে।

Also Read - ক্রিকেটের ৯০ শতাংশ দর্শকই উপমহাদেশের!

জরিপে অংশ নেন আইসিসির বারোটি পূর্ণ সদস্য দেশ বা অঞ্চল বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া, জিম্বাবুয়ে, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, আফগানিস্তান, আয়ারল্যান্ড, উইন্ডিজ ও পাকিস্তান এবং সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটে বেশ আগ্রহ দেখান দুই দেশ চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট সমর্থকরা। প্রত্যক্ষভাবে জরিপে সাহায্য করা তিনশ’ মিলিয়নেরও বেশি সমর্থকের মধ্যে ৯২ শতাংশেরও বেশি সমর্থক জানিয়েছেন, ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-২০’র মধ্যে তাদের সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে আধুনিকতম ফরম্যাট টি-২০’ই।

জরিপের এমন ফলাফলে আইসিসি বেশ বড়সড় এক হোঁচটই খেল। ওয়ানডে ক্রিকেটের আবির্ভাবের পর ক্রিকেটে যে ধারার প্রচলন ঘটেছিল, সেটি অনেকটাই ভেঙে গেছে টি-২০ ক্রিকেটের আবির্ভাবের ফলে। শুধু তা-ই নয়, এতে হ্রাস পাচ্ছে মর্যাদার টেস্ট ক্রিকেটের গুরুত্বও। সম্প্রতি প্রকাশিত আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী, ২০১৯ বিশ্বকাপের পর ২০২৩ বিশ্বকাপের আগে টানা দুই বছর দুটি টি-২০ বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে, সিদ্ধান্ত বদলের আগে যার একটি হওয়ার কথা ছিল একদিনের ফরম্যাটের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসর। ওয়ানডে ক্রিকেটকে আইসিসির এই কম গুরুত্ব আরোপের ফলে দর্শকরা টি-২০ ক্রিকেটের দিকে ঝুঁকতে রীতিমত বাধ্য হচ্ছেন।

২০১৯ সালে আইসিসি বিশ্বকাপ বা ওয়ানডে বিশ্বকাপের আসর বসবে ইংল্যান্ডে, যেখানে টেস্ট খেলুড়ে দেশ হয়েও অংশ নিতে পারবে না জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ড। অথচ জিম্বাবুয়ে বিশ্বকাপের বিগত অনেক আসরে অংশ নিয়েছে শক্তিশালী দল হিসেবেই। যেখানে টেস্ট খেলুড়ে দলের সংখ্যাই ১২, সেখানে ১০ দল নিয়ে আইসিসির বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে সমালোচনা হচ্ছিল আগে থেকেই। সাম্প্রতিক এই জরিপের ফলাফল যেন সমালোচনার আগুনে আরও ঘি ঢেলে দিল।

আইসিসির এই জরিপ আরও বলছে, সংস্থাটির সাথে যুক্ত ১০৪টি দেশের মধ্যে ৭৭টি দেশ কোনো না কোনো পর্যায়ে আইসিসির টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে। বাকি ২৭টি দেশ সীমাবদ্ধ কেবল ঘরোয়া ক্রিকেটেই। আইসিসির আঙিনা মাড়ানো দলগুলোর কাছেও অধিক গুরুত্ব পাচ্ছে টি-২০ ক্রিকেট। যার ফলে ঐ ৭৭টি দেশের মধ্যে ৪১টি দেশ কেবল টি-২০ ফরম্যাটেই খেলছে! অর্থাৎ, প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে টেস্ট কিংবা ওয়ানডে কিংবা দুই ফরম্যাটেই খেলছে আইসিসির মাত্র ৩৬টি দেশ।

জরিপ অনুযায়ী, ক্রিকেট সমর্থকদের ৯৫ শতাংশেরও বেশি সমর্থক আইসিসির বৈশ্বিক টুর্নামেন্টগুলোতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। সেই হিসেবে, টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে না- এমন দলের বা দেশের ক্রিকেট সমর্থকরাও খোঁজ রাখছেন আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ, টি-২০ বিশ্বকাপ, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি বা বিশ্বকাপ বাছাইয়ের মত আসরগুলোর। তবে শুধু টি-২০ ক্রিকেটের বিশ্বায়নের চেষ্টা ক্রিকেটের বাজারজাতকরণে কতটা ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারবে- সেই প্রশ্ন থাকছেই। কেননা, আধুনিক ক্রিকেটের সর্বাধুনিক আবিষ্কার টি-২০ ফরম্যাটের আগেও যে অনেক জনপ্রিয় ছিল বিশ্বের ক্রিকেট অঙ্গন!

আরও পড়ুনঃ মুস্তাফিজকে ‘এ’ দলে খেলাতে চান নির্বাচকরাও

Related Articles

বাংলাদেশি সমর্থকদের কর্মকাণ্ডে মুগ্ধ আইসিসি

টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ইংল্যান্ডের উন্নতি, রেটিং হারাল ভারত

শেষ হলো কুক অধ্যায়

অ্যান্ডারসনকে আইসিসির জরিমানা

কুকের অবসরে টুইটার প্রতিক্রিয়া