ট্রেন্টব্রিজে প্রথম দিনে ভারতের আধিপত্য

পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন নিজেদের করে নিয়েছে সফরকারী ভারত। বোলারদের নৈপুণ্যে ইংল্যান্ডকে মাত্র ১৮৩ রানে গুটিয়ে দেওয়ার পর দিনের বাকিটা ভারতের দুই ওপেনার কাটিয়ে দিয়েছেন নিরাপদেই।

ট্রেন্টব্রিজে প্রথম দিনে ভারতের আধিপত্য

Advertisment

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট। কিন্তু তার সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমাণ করতে পারেনি ইংল্যান্ডের টপ অর্ডার। ম্যাচের প্রথম ওভারেই ওপেনার ররি বার্নস লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন ভারতের পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ। রিভিউ নিলেও বাঁচেননি তিনি। দলের রানের খাতা খোলার আগেই স্বাগতিকদের প্রথম উইকেটের পতন ঘটে যায়।

বুমরাহর হাত ধরে পাওয়া স্বপ্নীল সূচনার ছন্দ ধরে রাখে ভারত। দ্বিতীয় উইকেটের জন্য অনেকক্ষণ অপেক্ষা করতে হলেও ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের অনায়াসে রান তোলার সুযোগ দেয়নি তারা। ২১ তম ওভারে এসে ডম সিবলি ও জ্যাক ক্রলির দ্বিতীয় উইকেটের ৪১ রানের জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ সিরাজ। ২৭ রান করে পান্টের হাতে ক্যাচ দেন ক্রলি। প্রথমে আম্পায়ার সাড়া না দিলেও রিভিউ নিলে আল্ট্রাএজে দেখা যায় ক্রলির ব্যাটে লেগেছিল বল। সিবলিও থিতু হয়ে বড় স্কোর না গড়েই সাজঘরে ফিরেন। ৭০ বলে ১৮ রান করে হন সামির শিকার।

চতুর্থ উইকেটে জনি বেয়ারস্টোকে সাথে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক জো রুট। রুট আর বেয়ারস্টো মিলে ৭২ রানের জুটি গড়েন। এক ওভারে জোড়া আঘাত হেনে আবার স্বাগতিকদের ব্যাকফুটে ঠেলে দেন সামি। ঐ ওভারেই ঘুরে যায় ইনিংসের মোড়। শুরু হয় ইংল্যান্ডের ছন্দপতন।

৫১তম ওভারে আক্রমণে এসে বেয়ারস্টো এবং ড্যান লরেন্সকে ফেরান সামি। ৭১ বলে ২৯ রান করে সামির বলে এলবিডব্লিউ হন বেয়ারস্টো। ঐ ওভারের শেষ বলে লেগ স্টাম্পের বল ফ্লিক করতে গিয়ে লরেন্স ক্যাচ তুলে দেন পান্টের হাতে।

রানের খাতা খুলতে পারেননি জস বাটলারও। ১৮ বল খেলে কোনো রান না করে বুমরাহর শিকার হন তিনি। এক প্রান্ত আগলে রাখা জো রুটের প্রতিরোধের সমাপ্তি ঘটান পেসার শার্দুল। ১০৮ বলে ৬৪ রান করে রুট এলবিডব্লিউ হন। ঐ ওভারে ওলি রবিনসনকে ফিরিয়ে দেন ঠাকুর। ইংল্যান্ডের ইনিংসের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ০ রান করে সাজঘরে ফিরে যান রবিনসন। ৪ রান করে স্টুয়ার্ট ব্রড পরিণত হন বুমরাহর তৃতীয় শিকারে।

১৩৮ রানে ৩ উইকেট থেকে ১৬০ রানে ৯ উইকেট চলে যায় ইংল্যান্ডের। ২২ রানের ব্যবধানে ৬ উইকেট হারালে প্রথম ইনিংসে বড় পুঁজি করা হয়নি স্বাগতিকদের। শেষদিকে স্যাম কারান ২৭ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। তাকে সঙ্গ দেওয়া জেমস অ্যান্ডারসনকে বোল্ড করে ইংল্যান্ডকে অলআউট করেন বুমরাহ।

ইনিংসে মাত্র ৩ ওভার বোলিং করেন ভারতের স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা। চার পেসার মিলেই ভাগাভাগি করে নেন ইংল্যান্ডের দশ উইকেট।

ব্যাটিংয়ে নেমে সাবধানী হয়েই খেলেন ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা এবং লোকেশ রাহুল। ১৩ ওভার ব্যাট করেন দুজন। ২১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন দুজন। দুজনই অপরাজিত আছেন ৯ রান করে। তবে ট্রেন্টব্রিজের পেস বান্ধব সবুজাভ উইকেটে ভারতের ব্যাটসম্যানদেরকেও মুখোমুখি হওয়া লাগতে পারে কঠিন পরীক্ষার। ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের (ডব্লিউটিসি) নতুন সাইকেলের প্রথম সিরিজ এটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ইংল্যান্ড (প্রথম ইনিংস) ১৮৩/১০, ৬৫.৪ ওভার
রুট ৬৪,  বেয়ারস্টো ২৯, কারান ২৭*
বুমরাহ ৪/৪৬, সামি ৩/২৮, শার্দুল ২/৪১

ভারত (প্রথম ইনিংস) ২১/০, ১৩ ওভার
রোহিত ৯*, রাহুল ৯*

 

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।