Scores

ডিউক বল বলেই বেমানান বাংলাদেশ?

উইন্ডিজের মাটিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে খেলা সহজ হবে না, সেটি আগেই বুঝতে পারছিল বাংলাদেশ। কিন্তু তাই বলে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হতে হবে, এটি ভেবেছিলেন খুব কম লোকই।

ডিউক-বল-বলেই-বেমানান-বাংলাদেশ
তামিম ইকবাল। ছবি: এএফপি

২-০ ব্যবধানে পরাজয় বরণ করে নেওয়া টেস্ট সিরিজ শেষে এবার চলছে ময়নাতদন্ত। আর এতে শামিল হয়েছেন খোদ ক্রিকেটাররাও।

বাংলাদেশ দলের বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল কোনো অজুহাত খুঁজতে না চাইলেও অনভ্যস্ত প্রকৃতির বল-এ খেলার কারণে অসুবিধার কথা জানালেন ক্রিকেট বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ইএসপিএনক্রিকইনফোকে। তামিম বলেন-

Also Read - পাইলট-মুশির আগে সোহান


এখানে একমাত্র যে জিনিসটা ভিন্ন ছিল সেটি হল ডিউক বল, যা দিয়ে আমরা চার বছর পর খেলেছি। এর সুইং এবং গতি কুকাবুরা বলের চেয়ে বেশি। এটিই ছিল টেস্ট সিরিজের ভিন্নতা। তবে এটি আমাদের বাজে পারফরম্যান্সের কোনো কারণ হিসেবে দাঁড়াতে পারে না।’

এর আগে প্রথম টেস্টে হারের পর ডিউক বলে টাইগারদের দুর্বলতা তুলে ধরেছিলেন কয়েকজন সাবেক ক্রিকেটার। তামিমের চোখে, কুকাবুরার বদলে ডিউকে খেলতে গিয়ে বাংলাদেশিদের এই অসুবিধার কারণটি মানসিক, আমার মনে হয় ব্যাপারটি টেকনিক্যালের চেয়েও বেশি মানসিক ছিল। টপ অর্ডারের ছয়জন একইভাবে আউট হয়েছেন। আমার মনে হয় সুইং এবং বাউন্স মোকাবেলার জন্য আমরা প্রস্তুত ছিলাম, কিন্তু আপনি আসলে এমন কোনো পেস বান্ধব উইকেটের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারবেন না যেখানে বল কাটিং হয়ে থাকে।’

তামিমের মতে, ব্যাটসম্যানরা উইকেটে বেশি সময় কাটাতে না পারাতেই ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ। সফরকারী দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান বলেন, ‘আমি নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিভিন্ন কন্ডিশনে খেলেছি। এসব উইকেটে আপনাকে অনেকক্ষণ সময় কাটাতে হবে। আপনি দ্রুতই একটি বড় শট খেলতে পারবেন না। আমাদের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা তাদের একটানা ৬০-৭০ ওভার ফিল্ডিংয়ে রাখতে না পারা। তাদের পেস বোলাররা টানা পাঁচটি টেস্ট ম্যাচে খেলছে। তাই তারা ক্লান্ত হয়ে পড়ত।’

আরও পড়ুন: উইন্ডিজ-বাংলাদেশ সিরিজের সেরা পাঁচ

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

পেস বোলিংয়ে ‘অনাগ্রহ’; ওয়ালশের আক্ষেপ নেই

মাশরাফিই ছিলেন নেপথ্যের কারিগর

সিদ্ধান্ত সাকিবের উপরেই ছেড়ে দিল বিসিবি

নিজেদের ব্যর্থতার দায় বোর্ডের উপর চাপাচ্ছেন না রাব্বি

উইন্ডিজে কোচের নজর কেড়েছেন যারা