Scores

ডিপিএলে জয় পেয়েছে রূপগঞ্জ , খেলাঘর ও অগ্রণী ব্যাংক

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে সোমবার জয় পেয়েছে লিজেন্ডস অফ রূপগঞ্জ, খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি ও অগ্রণী ব্যাংক। তারা হারিয়েছে যথাক্রমে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে।

মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট ৩১৪ রান সংগ্রহ করে লিজেন্ডস অফ রূপগঞ্জ। ৯৫ বলে ১২৫ রান করেন পাপ্পু। তাঁর ব্যাট থেকে আসে ১২ চার আর ৮ ছয়। ৪৫ করা মোহাম্মদ নাইমের সাথে ২য় উইকেট জুটিতে ২২.৩ ওভারে ১৫০ রানের জুটি গড়েন পাপ্পু। অধিনায়ক নাইম ইসলামও শেষদিকে দ্রুত রান যোগ করেন। ৫৩ বলে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ৬১ রান।

Also Read - দুই টেস্টে নিষিদ্ধ রাবাদা


ব্যাট করতে নেমে শুভ সূচনা করে কলাবাগান। শ্রীভাস্ত গোস্বামী ও তাসামুল হকের প্রথম উইকেট জুটিতে আসে ৬৫ রান। মোহাম্মদ আশরাফুল আর গোস্বামী পান ফিফটির দেখা। দুইজন করেন যথাক্রমে ৬৪ ও ৭৫ রান। এরপর মিডল অর্ডার আর বলের সাথে তাল মিলিয়ে রান তুলতে না পারলে হেরে যায় কলাবাগান। দুই স্পিনার পারভেজ রাসুল ও আসিফ হাসান দুইজন নিয়েছেন তিনটি করে উইকেট, অন্যদিকে পেসার মোহাম্মদ শহীদ নিয়েছেন দুই উইকেট।

স্কোরকার্ডঃ

 

ফতুল্লায় আজমীর আহমেদ ( ৬৫ ), সালমান হোসেন ( ৬৩ ), রিশি ধাওয়ান ( ৭০ ) ও জাহিদ জাভেদ (৫৫) এর ফিফটিতে জয় পেয়েছে অগ্রণী ব্যাংক।

২৯০ রান তাড়া করতে নেমে ২য় উইকেট জুটিতে আজমীর ও সালমান ৮৮ রান তোলেন। তিন নম্বর উইকেট জুটিতে ধীমান ও সালমান তোলেন ৫০ রান। রিশি ধাওয়ান ও জাভেদের মারকুটে ব্যাটিংয়ে জয় নিশ্চিত করে অগ্রণী ব্যাংক।

দিনের শুরুতে বাংলাদেশের লিস্ট এ ক্রিকেটে মাত্র তৃতীবারের মত প্রথম উইকেটে জুনায়েদ সিদ্দিকী ও মিজানুর রহমান যোগ করেন ২০০ রানের বেশি। নয় চার আর তিন ছয়ে ১২০ বলে ১০২ রান করেন মিজানুর। আট চার আর এক ছয়ে ১০৩ বলে সেঞ্চুরির আট রান আগে ৯২ এ কাটা পড়েন জুনায়েদ সিদ্দিকী। জাতীয় দলের বাইরে থাকা শফিউল ইসলাম ৪৮ রান দিয়ে নেন চার উইকেট।

স্কোরকার্ড:

ব্রাদার্স ইউনিয়ন: ৫০ ওভারে ২৮৬/৬

মিজানুর ১০২, জুনায়েদ ৯২, মাইশুকুর ৩৭*

শফিউল ৪/৪৮

অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব: ৪৯.১ ওভারে ২৯২/৭  আজমির ৬৫, সালমান ৬৩,   ধাওয়ান ৭০, জাভেদ ৫৫

শুভ ৩/৬২

ফল: অগ্রণী ব্যাংক ৩ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: শফিউল ইসলাম

 

খেলাঘরের বিপক্ষে তানভির ইসলাম ও আনজুম আহমেদের সাত উইকেট শিকারে ৪৮ ওভারে মাত্র ১৬৭ রানে অলআউট হয়ে যায় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি শেখ জামালের। ৬৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলা দলটি দেড়শ ছাড়ায় তানবীর ও আল ইমরানের ব্যাটে। সপ্তম উইকেটে দুই জনে গড়েন ৭১ রানের জুটি।

৬৫ বলে ৫টি চারে ৫২ রান করে ফিরেন লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার তানবীর। তার বিদায়ের পর বেশি দূর এগোয়নি শেখ জামালের সংগ্রহ। তানভির আর আনজুম দুজনের মিলিত বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ১৮ – ০ – ৪৬ – ৭।

ব্যাট করতে নেমে অশোক মেনারিয়ার ৭১ বলে ৫৮ ও রাফসান আলমের ৮২ বলে ৪৯ রানে সহজ জয় পায় খেলাঘর।

স্কোরকার্ডঃ

আরো পড়ুনঃ

প্রধান কোচের ভূমিকায় এখনই নয়…তবে

Related Articles

মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেটার

উড়ন্ত সৌম্যে অগ্রণী ব্যাংকের রান পাহাড়

সৌম্যর দুর্দান্ত শতক

আশরাফুলের শতকে কলাবাগানের লড়াকু সংগ্রহ

অগ্রণী ব্যাংককে হারের স্বাদ দিলো দোলেশ্বর