ডি ককের ‘ধোঁকায়’ আউট ফখর, নিন্দার ঝড়

0
2421

কী দুর্দান্ত খেলছিলেন ফখর জামান। সতীর্থদের ব্যর্থতার কারণে দলকে হয়ত জেতাতে পারতেন না, কিন্তু কাব্যিক ইনিংসকে রূপ দিতে পারতেন দ্বিশতকে। তা আর সম্ভব হল না কুইন্টন ডি ককের ছলচাতুরীর কারণে।

ডি ককের 'ধোঁকায়' আউট ফখর, নিন্দার ঝড়
ডি ককের স্পোর্টসম্যানশিপ নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

ক্রিকেটে প্রতারণার জন্য কুখ্যাতি পাকিস্তানের। তবে এবার পাকিস্তানি শিকার হল প্রতারণার। তাও কিনা দক্ষিণ আফ্রিকার মত দলের কাছে, কুইন্টন ডি ককের মত ক্রিকেটারের কাছে! দক্ষিণ আফ্রিকা-পাকিস্তান দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ফখরের আউট নিয়ে টুইটারে উঠেছে নিন্দার ঝড়।

Advertisment

দলের অন্যরা ছিলেন ম্লান, ফখর একাই লড়ছিলেন প্রোটিয়াদের বিপক্ষে। ১৫৫ বলে ১৯৩ রান করেছিলেন ১৮টি চার ও ১০টি ছক্কার সাহায্যে। শেষ ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ৩১ রান। জিততে হয়ত পারত না সফরকারীরা, তবে ফখরের শতকের সম্ভাবনা ছিল।

ডি কক ফেক ফিল্ডিং করে অ্যাইডেন মারক্রামকে রান আউটের সুযোগ করে দিয়ে ফখরের সেই সম্ভাবনা শেষ করে দেন। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে রান আউটের ধরন নিয়ে। স্ট্রাইকে থাকা ফখর শেষ ওভারের প্রথম বলকে লং অফে ঠেলে দুই রানের জন্য দৌড়াতে থাকেন। ফখর পপিং ক্রিজে ঢুকার আগে ডি কক বোলারের দিকে এমন ইঙ্গিত করে, যাতে মনে হয় বল বোলারের দিকে যাচ্ছে। দ্বিধাগ্রস্ত ফখর দৌড়ের গতি কমিয়ে পেছনে তাকাতেই মারক্রাম স্ট্যাম্প ভেঙ্গে দেন।

ফেক ফিল্ডিং বা ভনিতা করে ব্যাটসম্যানকে আউট করলে ৫ রান জরিমানার বিধান রয়েছে। আম্পায়াররা খেয়াল না করায় দক্ষিণ আফ্রিকাকে রান জরিমানা করা হয়নি।