Scores

ডি ভিলিয়ার্সের আপত্তি, উচ্ছ্বাসিত স্টেইন

গত বছরের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তৃতীয় ম্যাচ দিয়েই টেস্ট ক্রিকেটে আগমন হয় দিবা-রাত্রির ম্যাচ। মাঠে দর্শকদেরও উপস্থিতি ছিল বেশ ভরপুর। তাই আবারো দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজন করতে চাচ্ছে ক্রিকেট অস্ত্রেলিয়া (সিএ)। তবে এইবার প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা, আগামী হোম সিরিজের অ্যাডিলেডে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া শেষ টেস্টেই এই ম্যাচ আয়োজন করার প্রস্তাব দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে।

ছবিঃ গত বছর দিবা-রাত্রির টেস্টে রেকর্ড পরিমান দর্শক
ছবিঃ গত বছর দিবা-রাত্রির টেস্টে রেকর্ড পরিমান দর্শক

দিবা-রাত্রি টেস্ট মানেই আলাদা এক আমেজ কাজ করে খেলোয়াড় ও দর্শকদের মাঝে। গত বছর ওই টেস্ট ম্যাচের পর ব্যাপক সাড়া পেয়েছিলো শ্রোতাদের কাছ থেকে। তবে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলা নিয়ে কিছুটা আপত্তি রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট ও ওয়ানডে অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্স।তাঁর মতে এই দিবা-রাত্রি ম্যাচে পিছিয়ে রয়েছে তাঁর দলের খেলোয়াড়রা, এই ধরণের মঞ্চে খেলার জন্য তাঁর দলের প্লেয়াররা প্রস্তত নয়।

ab-de-villiers-vs-nz “‘ঠিক এই মুহূর্তে আমরা দিবারাত্রিতে টেস্ট খেলার ব্যাপারে খুব একটা স্বচ্ছন্দ নই। কারণ ঐতিহাসিক দিবারাত্রির টেস্টটিতে যাঁরা খেলেছেন, তাঁদের অনেকের কাছ থেকেই আমরা কিছু এই টেস্টের নেগেটিভ দিক জানতে পেরেছি। তবে সেতি কেমন জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, “অস্ট্রেলিয়া যখন এ বছরের শুরুতে আমাদের এখানে সফরে এল, আমরা স্টিভেন স্মিথসহ আরও কয়েকজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেছি। আলোচনার পর আমরা একমত হয়েছি যে দিবারাত্রির টেস্টে অনেক অজানা বিষয় নির্ধারক হয়ে যায়। দুই দলই ওই টেস্ট খেলার ব্যাপারে দ্বিধায় ছিল।’

Also Read - কে হবেন ভবিষ্যতের অধিনায়ক?


এর আগে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার পক্ষে ছিলেননা দক্ষিণ আফ্রিকার প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নির্বাহী টনি আইরিশ। তিনি বলেন “এই টেস্টে পিছিয়ে থাকবে আমাদের ছেলেরা, কারণ অস্ট্রেলিয়ারা এর আগেও দিবা রাত্রির ম্যাচ খেলেছে তাছাড়া তাঁদের ঘরোয়া লিগ গুলোতেও দিবা-রাত্রির ম্যাচ আয়োজন করা হয় তাই স্বাভাবিক ভাবে ওরাই আমাদের চেয়ে এগিয়ে থাকবে।

২০১৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়েছিলেন অস্ত্রেলিয়া ক্রিকেট দল। তাঁদের দেশে টেস্ট ম্যাচে দর্শক নিয়ে কঠোর সমলোচনা করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান সাবেক উইকেট কিপার রড মার্স। তিনি বলেন, “দক্ষিণ আফ্রিকা অসাধারণ একটি দল অথচ তাঁদের নিজেদের ঘরের মাটিতে টেস্ট ক্রিকেটে দর্শকদের আনাগোনা কম। খুব সম্ভবত ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যান ও সেরা বোলার তোমাদের দলেই আর তাঁদের খেলাই দেখতে আসেনা তাঁদের দেশের মানুষ। এই ধরণের পরস্থিতি  চলতে থাকলে হয়ত হারিয়ে যেতে পারে তাঁদের ক্রিকেট।

 

ছবিঃ গেটি ইমেজ
ছবিঃ গেটি ইমেজ

তবে অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্সের বিপরীতটা বললেন দলের সেরা বোলার ডেল স্টেইন। তিনিদিবা রাত্রির টেস্ট নিয়ে উদ্বেগ নয় বরঞ্চ বেশ উচ্ছ্বাসিত তিনি। তিনি বলেন, “একটাও দিবারাত্রির টেস্ট না খেলে আমি আমার ক্যারিয়ার শেষ করতে চাই না। কী দারুণ ব্যাপার। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড যখন খেলল, আমার তো দেখতে খুবই চমৎকার লেগেছে, অনেক দর্শকও হয়েছে। বলটাও আলাদা—গোলাপি। এই চ্যালেঞ্জে নিজের সামর্থ্যের পরীক্ষা দিতে কে না চাইবে!’

 

 

-মুশফিকুর রিফাত,প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটিম ডট কম

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে মাশরাফি

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো ভারত

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

শঙ্কা কাটিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলছেন মুস্তাফিজ

দুদকের শুভেচ্ছাদূত হলেন সাকিব