Scores

ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ে ব্যাঙ্গালোরের বড় সংগ্রহ

এবি ডি ভিলিয়ার্স নামার আগ পর্যন্ত  রানটা ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু শেষদিকে এবি ডি ভিলিয়ার্সকে আটকে রাখা আর সম্ভব হয়নি কলকাতা নাইট রাইডার্সের বোলারদের। শারজাহতে তার ব্যাটিং যেন ছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের পালে উত্তাল হাওয়া।

ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ে ব্যাঙ্গালোরের বড় সংগ্রহ

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ হওয়া সুনীল নারাইনের পরিবর্তে দলে রাখা হয়েছে ব্যাটসম্যান টম ব্যান্টন। তাই হাতে একজন বোলার কম ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

Also Read - এ বছর হচ্ছে না বিপিএল, মনোযোগ ডিপিএলে


ব্যাটিংয়ে  অ্যারন ফিঞ্চ আর দেবদূত পাড়িক্কাল মিলে শুরুটা করেন দেখেশুনেই। প্রথম ৬ ওভারে রান হয় ৪৭। তাদের জুটি ভাঙেন আন্দ্রে রাসেল। ২৩ বলে ৩২ রান করে রাসেলের বলে বোল্ড হন পাড়িক্কাল। এরপর থেকে কমতে থাকে রানের গতি। মাঝের ওভারগুলোতে গতির বৈচিত্র্য এনে ফিঞ্চ আর বিরাট কোহলিকে আটকে রাখেন কামলেশ নাগারকোটি।  দারুণ এক ইয়র্কারে ফিঞ্চকে বোল্ড করেন প্রাসিধ কৃষ্ণা। ৩৭ বলে ৪৭ রান করেন ফিঞ্চ। ফিঞ্চ-কোহলির জুটি থেকে আসে ২৮ বলে ২৭ রান।

কমে যাওয়া রান রেটকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। ব্যাটিংয়ে নেমে নিজের ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই হাঁকান বাউন্ডারি। সেই শুরু হওয়া ঝড় আর থামেনি। নাগারকোটির করা ১৬তম ওভারে মারেন দুই ছক্কা আর এক চার। কোহলিকে স্লোয়ার দিয়ে নাগারকোটি আটকে রাখলেও ডি ভিলিয়ার্স স্লোয়ার বলগুলো আঁছড়ে ফেলেন গ্যালারিতে। প্যাট কামিন্সের করা পরের ওভারেও দুই ছক্কা আর এক চার মারেন ডি ভিলিয়ার্স।

বিধ্বংসী ডি ভিলিয়ার্সের সামনে অসহায় ছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের বোলাররা। আন্দ্রে রাসেল, প্রাসিধ কৃষ্ণা, প্যাট কামিন্স, কামলেশ নাগারকোটি- ছাড় দেননি কাউকেই। শেষ ৫ ওভারে ৮৩ রান সংগ্রহ করলে ১৯৪ রানের বড় পুঁজি পায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যঙ্গালোর।

৩৩ বলে ৭৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। এই ৩৩ বলের ইনিংসে ১১ বলেই বলকে সীমানা পার করান তিনি। এর মধ্যে পাঁচটি ছিল চার আর ছক্কা ছিল ছয়টি। কোহলি অপরাজিত ছিলেন ৩৩ রান করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ১৯৪/২, ২০ ওভার
ডি ভিলিয়ার্স ৭৩*,  ফিঞ্চ ৪৭, কোহলি ৩৩
রাসেল ১/৫১, কৃষ্ণা ১/৪২

Related Articles

হাসপাতালে ভর্তি মুরালিধরন

‘পয়লাতে পয়লা, এইতো চাই’

আইপিএল থেকে ছিটকে গেলেন স্টোকস

বল হাতে দুর্দান্ত সাকিব

লন্ডনে আইপিএল চান মেয়র সাদিক খান