Scores

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগ শুরু ৭ এপ্রিল

আগামী ৭ এপ্রিল থেকে মাঠ গড়াচ্ছে এবারের মৌসুমের প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের খেলা। আর ১৭ ও ১৮ মার্চ দলবদল অনুষ্ঠিত হবে।

অবশেষে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচাইতে মর্যাদার আসর প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ। সব কিছু ঠিক থাকলে ৭ এপ্রিল থেকে মাঠে গড়াবে ২০১৬-১৭ মৌসুমের প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ। দল বদল ১৭ ও ১৮ এপ্রিল। অথচ প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসর আদৌ অনুষ্ঠিত হবে কিনা, সেই বিষয়ে অনেকেরই শঙ্কা ছিল। সেই শঙ্কা দূর করে প্রিমিয়ার লিগের তারিখ চূড়ান্ত করেছে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)।

Also Read - দেশের বাইরে মিরাজের সেরা বোলিং


গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে লিগ নিয়ে সভা শেষে গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানিয়েছেন সিসিডিএম সহ-সভাপতি নাজমুল হোসেন। তিনি বলেন, ‘খেলা শুরু হবে ৭ এপ্রিল তারিখ থেকে। আর দলবদলের সম্ভাব্য তারিখ ১৭ থেকে ১৮ মার্চ। ক্লাবগুলোর সঙ্গে বৈঠক করে প্রাথমিকভাবে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’


আরও দেখুন- গলে টেস্টে মিরাজের স্পিন দ্যুতি


প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের এবারের আসরে খেলোয়াড়দের দলবদলের ব্যাপারে পরিবর্তন আনছে সিসিডিএম। গেল দুই মৌসুম ক্লাবগুলো প্লেয়ার বাই চয়েসের ভিত্তিতে খেলোয়াড় দলে ভেড়ালেও এবার দলবদল হবে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে। রোববার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে সভাশেষে লিগের বিষয়ে বিস্তারিত জানাবে সিসিডিএম।

প্রিমিয়ার লিগের বিগত আসরগুলোর ধারাবাহিকতায় এবারের আসরেও জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের জন্য পুল থাকছে। তবে কে কোন পুলে খেলবেন, সেটা এখনও ঠিক হয়নি বলে জানান নাজমুল, ‘জাতীয় দলের জন্য পুল থাকছে তবে সেটা এখনও নির্বাচন করা হয়নি। যেহেতু জাতীয় দলের খেলা রয়েছে। বৃষ্টি এবং বিভিন্ন কারণে খেলা আমরা বেশি পেছাতেও পারছি না, রোজা এসে যাচ্ছে সামনে। ক্লাবগুলো মোটামুটি রাজি হয়েছে জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা না থাকলেও তারা খেলেবে।’

৬ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ শেষ হওয়ায় জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা যোগ দিতে পারবেন লিগের শুরু থেকেই। তবে মে মাসে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ ও জুনে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থাকায় সুপার লিগ পর্ব থেকে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ক্লাবগুলো পাবে না।

তবে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা না থাকলেও ক্লাবগুলোর খেলতে আপত্তি নেই বলে জানিয়েছেন নাজমুল হোসেন। সেক্ষেত্রে প্রতি দলে দুইজন করে বিদেশি প্লেয়ার খেলানোর সুযোগ দেয়া হতে পারে বলে জানান তিনি। গেল আসরে একজন করে বিদেশি ক্রিকেটার খেলেছে প্রতিটি দলে।

প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসর গড়াবে তিনটি ভেন্যুতে। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ছাড়া ও বাকি দুইটি ভেন্যু হলো বিকেএসপির ২ ও ৩ নম্বর মাঠ। এদিকে ক্লাবগুলো এরই মধ্যে ঘর গোছানো শুরু করেছে। গেল মৌসুমের ধারাবাহিকতায় এবারও শক্তিশালী দল গড়ছে আবাহনী।

শোনা যাচ্ছে, সাকিব, তামিম, তাসকিন, মোসাদ্দেক, নাজমুল, সাকলাইনকে ধরে রেখেছে ক্লাবটি। তাদের সঙ্গে যোগ হচ্ছেন মোস্তাফিজ, শুভাগত, মিঠুন,সাইফুদ্দিন, আফিফ ও আবু জায়েদরা। অন্যদিকে মাশরাফি, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ, নাঈম ইসলামরা যোগ দিচ্ছেন লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জে।

জানা যায়, প্রিমিয়ার লিগের দলগুলোকে ৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা অনুদান দেবে বিসিবি। এছাড়া জার্সির জন্য দেয়া হবে ৬৬ হাজার টাকা করে। ১২ মার্চ সিসিডিএমের পরবর্তি সভা অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতেছিল আবাহনী লিমিটেড।

  • মাকসুদুল হক, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম।
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Related Articles

কালবৈশাখী ঝড়ে সিলেট স্টেডিয়ামের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

প্রিমিয়ার লিগে এবারও ভালো করার প্রত্যাশা রাব্বির

রাজশাহীর সামনে আজ বরিশাল

২০ জুলাই থেকে শুরু বোলিং অ্যাকশন সংশোধনের কাজ

ক্রিকেটারদের ৩০ শতাংশ পাওনা শোধ করলো বিসিবি