Score

তামিমই উৎসাহ বাড়িয়ে দিয়েছিলেন মুশফিকের

দুর্দান্ত ১৩৭ রানের জয়ে ইউনিমনি এশিয়া কাপ ২০১৮ মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বোলারদের জয় নিশ্চিত করার আগে দলের জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। ম্যাচ শেষে প্রতিক্রিয়ায় জানালেন নিজের ইনিংস সম্পর্কে।

তামিমই উৎসাহ বাড়িয়ে দিয়েছিলেন মুশফিকের
শতক হাঁকানোর পর মুশফিকের উদযাপন।

দলের জয়ে অবদান রাখতে পেরে প্রথমেই সর্বশক্তিমান আল্লাহ্‌কে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেন,

সর্বশক্তিমান আল্লাহকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আমাদের প্রথম খেলাটা জেতার অনেক প্রয়োজন ছিল এবং সবাই সেটার জন্য সক্রিয় ছিল।’

Also Read - দুর্দান্ত জয়ে এশিয়া কাপ শুরু বাংলাদেশের

লঙ্কানদের বিপক্ষে ম্যাচ জিতলেও শুরুটা মোটেও প্রত্যাশামত হয়নি বাংলাদেশের। ম্যাচ শেষে বিষয়টি স্বীকার করেছেন মুশফিক নিজেও। ৩ রানে ২ উইকেটের পতন ও চোটের জন্য তামিমের মাঠ ছেড়ে যাওয়ার পর তৃতীয় উইকেট জুটিতে মুশফিকের সাথে ১৩১ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ মিঠুন। তার অবদানের কথা মনে করিয়ে দিয়ে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেন মিঠুনের জন্যই সহজ হয়েছিল তার রান করা।

‘আমরা যেমন শুরু চেয়েছিলাম, সেটা হয়নি কিন্তু মিঠুনকে ধন্যবাদ আমার উপর থেকে চাপ তুলে নেবার জন্য। এরপর আমি আমার সুযোগটা কাজে লাগিয়েছি।’

তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে দিয়ে হাতে চোট নিয়েও দলের প্রয়োজনে মাঠে তামিমের ব্যাট করতে আসা বাড়তি উৎসাহ দিয়েছিল মুশফিককে এবং তা তাকে ইনিংস বড় করার স্পৃহার যোগান দিয়েছিল উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন,

‘যখন তামিমকে আবার ব্যাট করতে আসতে দেখলাম, এটা আমার অনেক উৎসাহ বাড়িয়ে দেয়। আমি পরিকল্পনা করি, তার (তামিম) জন্য এবং আমার দেশের জন্য কিছু করা দরকার।’

প্রচন্ড গরমে বারংবার ক্র্যাম্প করা সত্ত্বেও ব্যাট হাতে লড়ে যান তিনি। এমন গরমের মাঝে খেলার অনুভূতি কেমন ছিল জানতে চাওয়া হলে এটা ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা ইনিংস আর তা এমন প্রতিকূল পরিবেশে খেলার জন্য জানিয়ে তিনি যোগ করেন,

‘সম্ভবত, আমার জীবনের সেরা ইনিংস কেননা এতো উচ্চ তাপমাত্রায় মনোযোগ ধরে রাখা অনেক কঠিন, পাশাপাশি উইকেটে থাকাও কষ্টকর ছিল’

এ জয়ের ফলে গ্রুপ ‘বি’তে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ওঠে এসেছে বাংলাদেশ সেই সাথে সুপার ফোর পর্বের লড়ায়ের জন্য এক ধাপ এগিয়ে গেল মাশরাফি-সাকিবরা।


আরও পড়ুনঃ দুর্দান্ত জয়ে এশিয়া কাপ শুরু বাংলাদেশের

Related Articles

মেডিকেল রিপোর্টের উপরেই নির্ভর করছে সাকিবের এনওসি

এই মিরাজ অনেক আত্মবিশ্বাসী

মিঠুনের ‘মূল চরিত্রে’ আসার তাড়না

‘আঙুলটা আর কখনো পুরোপুরি ঠিক হবে না’

এক নয় মাশরাফির তিন ইনজুরি